kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


রাখাইনে শান্তি কমিশনে কফি আনানকে চায় না কট্টরপন্থীরা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সাম্প্রদায়িক বিবাদ মেটাতে জাতিসংঘের সাবেক প্রধান কফি আনানের নেতৃত্বে গঠিত কমিশন মানে না সেখানকার কট্টরপন্থী বৌদ্ধরা। গতকাল মঙ্গলবার ওই রাজ্যে পা রাখার সঙ্গে সঙ্গে কফি আনান তাদের বিক্ষোভের মুখে পড়েন।

দেশটির পশ্চিমাঞ্চলীয় রাখাইন রাজ্যে সাম্প্রদায়িক দ্বন্দ্ব মেটানোর লক্ষ্যে সরকারি উপদেষ্টা ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী অং সান সু চি গত মাসে কফি আনানকে প্রধান করে ৯ সদস্যের কমিটি গঠন করেন। কফি আনান গতকাল রাজ্যের রাজধানী সিত্তে বিমানবন্দরে পৌঁছানোর সঙ্গে সঙ্গে ‘কফি নেতৃত্বাধীন কমিশন মানি না’ স্লোগান দিতে শুরু করে বৌদ্ধরা। তাদের হাতের প্ল্যাকার্ডে লেখা ছিল ‘আমাদের রাখাইন রাজ্যের বিষয়ে বিদেশি পক্ষপাতদুষ্ট হস্তক্ষেপ মানি না’।

সিত্তেতে দুই দিনের সফরে এক সভায় আনানের ভাষণ দেওয়ার কথা ও স্থানীয় রোহিঙ্গা-বৌদ্ধদের সঙ্গে মিলিত হওয়ার কথা। কিন্তু রাখাইনের অন্যতম প্রভাবশালী রাজনৈতিক দল আরাকান ন্যাশনাল পার্টি (এএনপি) তাঁর সঙ্গে আলোচনার সম্ভাবনা বাতিল করে দিয়েছে এবং গতকাল তারা পার্লামেন্টে ওই কমিশন ভেঙে দেওয়ার দাবি জানিয়েছে। তাদের অভিমত, কোনো বিদেশি রাখাইনের সমস্যা বুঝবে না।

এএনপি নেতা পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষের সদস্য উ উ হ্লা স বলেন, ‘কোনো বিদেশির ওপর নির্ভর করার প্রয়োজন আমাদের নেই। ’

২০১২ সালে রাখাইন বৌদ্ধ ও সংখ্যালঘু মুসলিমদের মধ্যে সাম্প্রদায়িক সহিংসতায় শতাধিক মানুষ নিহত হয়, যাদের বেশির ভাগ মুসলিম। বাড়ি ছেড়ে আশ্রয় শিবিরে চলে যেতে বাধ্য হয় প্রায় সোয়া লাখ রোহিঙ্গা মুসলিম। সেখানে তাদের চলাফেরা কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করে কর্তৃপক্ষ। রাখাইনের সাম্প্রদায়িক সংকট সমাধানের পথ বাতলাতে না পারায় অং সানের ভাবমূর্তি প্রশ্নবিদ্ধ হচ্ছিল। মানবাধিকারের প্রতি তাঁর প্রতিশ্রুতি নিয়ে আন্তর্জাতিক মহলেও কথা ওঠে । সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য