kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


পশ্চিম তীরে ৪৬৪ ইহুদি বাড়ির অনুমোদন

যুক্তরাষ্ট্রের উদ্বেগ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



পশ্চিম তীরে ৪৬৪ ইহুদি বাড়ির অনুমোদন

দখলকৃত পশ্চিম তীরে ইসরায়েল ইহুদিদের নতুন ও পুরনো মিলিয়ে ৪৬৪টি বাড়ির অনুমোদন দিয়েছে। এর মধ্যে নতুন বাড়ি নির্মাণ করা হবে ২৮৫টি।

আর আগেই নির্মাণ করা হয়েছে ১৭৯টি, যা এত দিন অনুমোদনের অপেক্ষায় ছিল। ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে ইহুদি বসতি স্থাপন নজরদারি সংগঠন পিচ নাউ এ তথ্য জানিয়েছে। ইসরায়েলের এই বসতি সম্প্রসারণে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। একই সঙ্গে তারা সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, বসতি সম্প্রসারণ ফিলিস্তিনে শান্তি প্রক্রিয়ার পথে বড় ধরনের হুমকি তৈরি করবে।

দখলকৃত পশ্চিম তীর এবং পূর্ব জেরুজালেমে ১৯৬৭ সাল থেকে ইহুদি বসতি স্থাপন করে আসছে ইসরায়েল। এ পর্যন্ত শতাধিক বসতি তৈরি করেছে তারা। এসব স্থাপনায় পাঁচ লাখ ৭০ হাজারের মতো ইহুদি বাস করে। তবে আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী এসব বসতি স্থাপনকারীকে অবৈধ হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

পিচ নাউ জানায়, নতুন বসতি স্থাপনের ব্যাপারে সর্বশেষ সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইসরায়েলের সেনাবাহিনী নিয়ন্ত্রিত নাগরিক প্রশাসন। পশ্চিম তীরে এই প্রশাসন এ বছর দুই হাজার ৬২৩টি বাড়ি তৈরি করেছে। এর মধ্যে ৭৫৬টি বাড়ি অবৈধভাবে তৈরি করা হয়েছে।

পশ্চিম তীরে ইহুদি বসতি স্থাপন সম্পর্কে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র জন কিরবি বলেন, ‘পশ্চিম তীরে বসতি স্থাপনের সিদ্ধান্তে আমরা গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। এ বছর ইসরায়েল আড়াই হাজারেরও বেশি বাড়ি তৈরি করেছে। তাদের মধ্যে সাত শতাধিক বাড়ি আইনগতভাবে অবৈধ। এ ধরনের কৌশল অবৈধ বসবাসকারীদের জন্য সরকারের পক্ষ থেকে সবুজ সংকেত হয়ে দেখা দিচ্ছে। তা ছাড়া এসব কার্যক্রম দুই দেশের মধ্যে সমস্যা সমাধানে বড় বাধা হয়ে দেখা দিচ্ছে। ’

দুই দেশের সমস্যা সমাধানে যুক্তরাষ্ট্র অবশ্য বিশ্বাসযোগ্য পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে চলেছে। কিন্তু ইসরায়েল এই আহ্বান উপেক্ষা করে একের পর এক বসতি স্থাপন করে চলেছে। সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য