kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


‘পরস্পরের সামরিক ঘাঁটি ব্যবহার করতে পারবে ভারত-যুক্তরাষ্ট্র’

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



বড়সড় সামরিক চুক্তিতে আবদ্ধ হয়েছে ভারত ও যুক্তরাষ্ট্র। তারা পরস্পরের সামরিক ঘাঁটি ব্যবহার করার সুযোগ পাবে।

সোমবার ওয়াশিংটনে এই চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী মনোহর পারিকর এবং যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষামন্ত্রী অ্যাশটন কার্টার। এই চুক্তিকে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের ইতিহাসে এক বিরাট মাইলফলক হিসেবে দেখছে নয়াদিল্লি ও ওয়াশিংটন।

চুক্তির মোদ্দা বিষয় হলো, যুক্তরাষ্ট্র ও ভারত জ্বালানি ভরার জন্য বা অন্য কোনো সামরিক সহায়তার জন্য পরস্পরের সামরিক ঘাঁটি ব্যবহার করতে পারবে। সন্ত্রাস মোকাবিলায় কার্যকর হবে এটি।

চুক্তির পর ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেছেন, এই চুক্তির সঙ্গে সামরিক ঘাঁটি নির্মাণকে গুলিয়ে ফেলা যাবে না। কেউ কারো ভূখণ্ডে সামরিক ঘাঁটি তৈরি করতে পারবে না। একসঙ্গে অভিযান চালানোর বিষয়ও নেই এই চুক্তিতে। তবে ফোর্বস ম্যাগাজিন স্পষ্ট বলেছে, ‘এই চুক্তির ফলে যুক্তরাষ্ট্রের নৌ ও বিমানবাহিনীর বিরাট সুবিধা হলো। তাদের ভারতে ঘাঁটি থাকবে না ঠিকই, কিন্তু তার থেকেও ভালো কিছু পাচ্ছে—ভারতের সামরিক ঘাঁটি। ’

ভারতীয় বিশ্লেষকরা বলছেন, চীন যেভাবে পাকিস্তানকে সঙ্গে নিয়ে ভারতবিরোধী বৃত্ত গড়ে তুলতে সক্রিয়, তাতে পাল্টা সামরিক জোট ভারতেরও প্রয়োজন। যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ভারতের এ ব্যাপারে সমঝোতা অনেক দিন ধরেই দানা বাঁধছিল। ভারতের সঙ্গে এই সামরিক চুক্তি যুক্তরাষ্ট্রের কাছে দীর্ঘ প্রতীক্ষিত ছিল। কার্টার মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী হওয়ার পর থেকে সবচেয়ে গুরুত্ব দিয়ে দেখছিলেন যে বিষয়গুলো, তার মধ্যে অন্যতম ছিল এই চুক্তি।

সূত্র : দ্য হিন্দু, টাইমস অব ইন্ডিয়া।


মন্তব্য