kalerkantho

26th march banner

পরমাণু অস্ত্র প্রশ্নে ওবামা

‘ভারত-পাকিস্তানকে মজুদ কমাতে হবে’

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৩ এপ্রিল, ২০১৬ ০০:০০



‘ভারত-পাকিস্তানকে মজুদ কমাতে হবে’

ভারত ও পাকিস্তানকে অবশ্যই তাদের পরমাণু অস্ত্রের ভাণ্ডার হ্রাস করতে হবে এবং সামরিক নীতিমালার উন্নয়ন ঘটাতে গিয়ে তারা যেন ভুল পথে পরিচালিত না হয়, সেটাও নিশ্চিত হতে হবে—পরমাণু নিরাপত্তা সম্মেলনের শেষ দিন গত শুক্রবার এসব কথা বলেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা।

যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনে অনুষ্ঠিত সম্মেলনের সমাপনী দিনের বক্তব্যে ওবামা বলেন, ‘আমাদের পারমাণবিক মজুদ বিপুল পরিমাণে কমানোর চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করাটা ততক্ষণ পর্যন্ত খুবই কঠিন, যতক্ষণ পরমাণু অস্ত্রের অধিকারী সবচেয়ে বড় দুই দেশ যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া এ ব্যাপারে নেতৃত্ব দিতে প্রস্তুত না হচ্ছে। ’

এ ক্ষেত্রে সব সময় পরস্পরবিরোধী অবস্থানে থাকা ভারত-পাকিস্তানের প্রসঙ্গ টেনে ওবামা বলেন, ‘আমার মতে, আরো যে অঞ্চলে পরিবর্তন দরকার, সেটা হলো পাকিস্তান ও ভারত। এই উপমহাদেশ তাদের সামরিক নীতিমালার উন্নয়ন ঘটাতে গিয়ে ক্রমাগত যেন ভুল পথে পরিচালিত না হয়, সেটা নিশ্চিত করতে হবে। ’ বিশ্বের কিছু কিছু দেশ বিশেষত যেসব দেশে যুদ্ধক্ষেত্রে ব্যবহারের জন্য ছোট আকারের পরমাণু আছে, সেসব দেশের পরমাণু অস্ত্রই চুরি যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন ওবামা। বলা দরকার, ভারত ও পাকিস্তান তাদের সামরিক সক্ষমতা বৃদ্ধিতে ক্রমাগত চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

মূলত বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে মজুদ থাকা পারমাণবিক পদার্থের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার উদ্দেশ্যে প্রেসিডেন্ট ওবামা এ সম্মেলনের আয়োজন করেন। তিনি জানান, বিভিন্ন দেশের সেনাবাহিনী এবং অন্যান্য নানা প্রতিষ্ঠানে প্রায় দুই হাজার টন পারমাণবিক পদার্থ মজুদ আছে। অনেক জায়গায় সেগুলোর যথাযথ নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়নি। বিশ্বজুড়ে তত্পরতা চালানো ইসলামিক স্টেটসহ (আইএস) অন্যান্য জঙ্গি গোষ্ঠী পারমাণবিক পদার্থ চুরি করে বিধ্বংসী কার্যক্রম চালাতে পারে, এমন আশঙ্কা দিন দিন আরো প্রবল হচ্ছে। বিশেষত ব্রাসেলসে আত্মঘাতী হামলাকারী আইএস সদস্যরা বেলজিয়ামের পরমাণুবিষয়ক কার্যালয়ে নজরদারি চালিয়েছে, এমন তথ্য পাওয়ার পর আশঙ্কা তীব্রতর হয়। এতটা আশঙ্কার কারণ ব্যাখ্যায় ওবামা বলেন, ‘কেবল অল্প একটু প্লুটোনিয়াম, প্রায় একটা আপেলের সমপরিমাণও যদি হয়, সেটা দিয়ে হাজার হাজার নিরীহ মানুষকে মেরে ফেলা সম্ভব। ’

দুই দিনের সম্মেলনজুড়ে উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক কার্যক্রম প্রসঙ্গ ঘুরেফিরে এলেও বাদ পড়েনি ভারত-পাকিস্তান প্রসঙ্গ। বিশ্লেষকদের অভিমত, এ দুটি দেশের হাতে থাকা ছোট আকারের পরমাণু অস্ত্র চুরি করাটা জঙ্গিদের জন্য সহজ হবে, এমন আশঙ্কার কারণেই ওবামা তাঁর বক্তব্যে তাদের প্রসঙ্গ আনেন। পরমাণু অস্ত্রের অধিকারী দেশগুলোর হাতে থাকা পারমাণবিক পদার্থের মজুদ কমানোর লক্ষ্যে ওবামা প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকে এ নিয়ে চারবার এ ধরনের সম্মেলনের আয়োজন করেন। এ বছরই তাঁর ক্ষমতার মেয়াদ শেষ হচ্ছে। সে হিসেবে এটাই তাঁর আয়োজিত শেষ পরমাণু নিরাপত্তা সম্মেলন। সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য