kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৯ জানুয়ারি ২০১৭ । ৬ মাঘ ১৪২৩। ২০ রবিউস সানি ১৪৩৮।


কলকাতা ফ্লাইওভার ট্র্যাজেডি

নির্মাণ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা

সুব্রত আচার্য্য, কলকাতা   

২ এপ্রিল, ২০১৬ ০০:০০



ভারতের পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কলকাতায় নির্মাণাধীন ফ্লাইওভার ভেঙে পড়ার ঘটনায় নিহতের সংখ্যা ২৫ জনে দাঁড়িয়েছে। আহতের সংখ্যা ৮৯। গত বৃহস্পতিবার দুর্ঘটনার পর গতকাল শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত চলা তত্পরতায় এসব লাশ উদ্ধার করা হয়। দুপুরের পর সেনাবাহিনী উদ্ধারকাজের সমাপ্তি ঘোষণা করে।

ফ্লাইওভার ভেঙে পড়ার ঘটনায় কলকাতা পুলিশ গত বৃহস্পতিবার দুটি অনিচ্ছাকৃত খুনের মামলা করে। গতকাল সেই ধারা পরিবর্তন করে সরাসরি খুনের মামলার ধারা যুক্ত করে পোস্তা থানায় ফ্লাইওভার নির্মাণকারী সংস্থা আইভিআরসিএলের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। অন্যদিকে, ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত চেয়ে গতকাল কলকাতা হাইকোর্টে প্রধান বিচারপতি মঞ্জুলা চেল্লুরের এজলাসে জনস্বার্থে একটি আবেদন করেছেন আইনজীবী অনিরুদ্ধ সরকার।

এদিকে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ফ্লাইওভার ভেঙে পড়ার ঘটনা তদন্তে দুটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিতে খড়গপুর আইআইটির ইঞ্জিনিয়াররাও থাকছেন। সেই সঙ্গে মমতা এ-ও বলেন, এই ফ্লাইওভারের কাজ শুরু হয়েছিল বামফ্রন্টের সময়। ফ্লাইওভার ভেঙে পড়ার ব্যাপারে তারাই ভালো বলতে পারবে।

বামফ্রন্ট সরকারের আমলের নগর উন্নয়নমন্ত্রী অশোক ভট্টাচার্য অবশ্য বলেন, ‘বামফ্রন্ট এই কাজের বরাত দিয়েছিল। কিন্তু কাজটি তৃণমূল সরকারের সময়ই চলেছে। ’ বর্তমান নগর উন্নয়নমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম কোনো বিতর্কে না গিয়ে বলেন, ‘যে কারণেই হোক কিংবা যার গাফিলতিতেই হোক না কেন, এ ধরনের ঘটনার যথাযথ তদন্ত এবং দোষিদের শাস্তি হবেই। ’

যুক্তরাষ্ট্র সফররত ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি গতকাল সকালে মমতাকে ফোন করে দুর্ঘটনার খোঁজ নেন। মোদি এই বিপর্যয় মোকাবিলায় সব ধরনের সাহায্যের আশ্বাস দেন।

গতকাল সকালে কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। তিনি সেখানে সাংবাদিকদের জানান, নির্মাণকারী সংস্থার তিনটি অফিস সিল করে দেওয়া হয়েছে এবং সাতজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।


মন্তব্য