kalerkantho

26th march banner

শান্তিরক্ষীদের বিরুদ্ধে আরো যৌন নিপীড়নের অভিযোগ

সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিকের শতাধিক নারী ও মেয়েশিশু জানাল ভয়াবহ অভিজ্ঞতার কথা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২ এপ্রিল, ২০১৬ ০০:০০



সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিকের শতাধিক নারী ও মেয়েশিশু দেশটিতে নিয়োজিত জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী বাহিনীর সদস্য ও ফরাসি সেনাদের হাতে ভয়াবহ যৌন নিপীড়নের শিকার হয়েছে। তাদের মধ্যে কারো কারো সঙ্গে পশুর মতো আচরণ করা হয়েছে। জাতিসংঘ গত বৃহস্পতিবার এ কথা জানিয়েছে।

এর আগে আফ্রিকার অন্য দুই দেশ বুরুন্ডি ও গ্যাবনেও শান্তিরক্ষীদের বিরুদ্ধে একই ধরনের অভিযোগ উঠেছিল। জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি মুন এ ঘটনায় ‘যারপর নাই মর্মাহত’ হয়েছেন।

সবশেষে এ যৌন নির্যাতনের অভিযোগের প্রতিক্রিয়ায় জাতিসংঘে নিয়োজিত যুক্তরাষ্ট্রের উপ রাষ্ট্রদূত ডেভিড প্রেসম্যান বলেছেন, অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে ‘এসব সুগঠিতভাবে ঘটানো হচ্ছে। ’ জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক প্রধান জেইদ রা’দ আল হুসেইন এসব অভিযোগের ‘পূর্ণাঙ্গ তদন্তের’ দাবি জানিয়েছেন।

জাতিসংঘের মুখপাত্র স্টিফেন ডুজারিক বলেন, সম্প্রতি সেন্ট্রাল রিপাবলিকে যাওয়া তাঁদের একটি প্রতিনিধিদলকে ১০৮ জন নারী বিদেশি সেনাদের হাতে যৌন নিপীড়নের শিকার হওয়ার কথা জানান। এদের ‘অধিকাংশই’ নাবালিকা। ডুজারিক জানান, ফরাসি বাহিনীর বিরুদ্ধে পাশবিক আচরণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শান্তিরক্ষীদের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগের ওপর নজরদারি সংস্থা এইডস-ফ্রি ওয়ার্ল্ড জানায়, তিনটি বালিকা জাতিসংঘের মানবাধিকার কর্মকর্তাদের বলেছে, ২০১৪ সালে তাদের ফরাসি সেনাদের একটি ক্যাম্পের ভেতর উলঙ্গ করে বেঁধে রেখে কুকুরের সঙ্গে যৌনসঙ্গম করতে বাধ্য করা হয়।

জাতিসংঘে নিয়োজিত যুক্তরাষ্ট্র ও ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূত উভয়েই একে ‘বিবমিষা জাগানো’ ঘটনা বলে অভিহিত করেছেন। ফরাসি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তারা অভিযোগের ‘পূর্ণাঙ্গ তদন্ত করে দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে’ বদ্ধপরিকর।

সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিকে ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বর থেকে শান্তিরক্ষী বাহিনী নিয়োজিত রয়েছে। ফরাসি সেনারা অবশ্য জাতিসংঘের শান্তিমিশনের অংশ নয়। তারা জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের সিদ্ধান্ত অনুসারে দেশটিতে স্থিতাবস্থা ফেরাতে সহযোগিতার জন্য গেছে। সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিকে ১২ হাজার ৬০০ বিদেশি সেনা ও পুলিশ সদস্য এবং ৫০০ বেসামরিক কর্মচারী-কর্মকর্তা রয়েছে। সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য