kalerkantho


গরু নিয়ে গাড্ডায় ভারতের কৃষক

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৩১ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



জবাইয়ের উদ্দেশ্যে গরু বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা থাকায় ভারতের ধনী রাজ্য মহারাষ্ট্রে লাখ লাখ কৃষক গরিবি দশায় পড়ার হুমকির মুখে পড়েছে। দেশটির আরো কয়েকটি রাজ্যেও কৃষকরা এ অবস্থায় বিপাকে পড়েছে। গরুর উত্পাদন বেশি এবং অনেক গরু বয়স্ক ও দুর্বল হয়ে পড়লেও তারা বিক্রি করতে পারছে না। খরা ও বন্যার কারণে ফসল মার খেলেও গোয়ালের গরুকে পুষতে হচ্ছে তাদের। এ অবস্থায়  প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ক্ষমতাসীন ভারতীয় জনতা দলের (বিজেপি) প্রতি তাদের অসন্তোষ ও ক্ষোভ বাড়ছে।

সনাতন ধর্মে (হিন্দু) গরুকে পবিত্র প্রাণী বিবেচনা করা হয়। তাই ঐতিহ্যগতভাবেই ভারতের অনেক রাজ্যে গরু জবাই নিষিদ্ধ থাকলেও বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার আগে এ ব্যাপারে জোর-জবরদস্তি  খুব একটা ছিল না। ভারত ছিল বিশ্বে শীর্ষ গরুর মাংসের রপ্তানিকারক দেশ।   কিন্তু কয়েক বছর ধরে বিজেপিশাসিত মহারাষ্ট্রের মতো কয়েকটি রাজ্য গরু জবাইয়ের ওপর নিষেধাজ্ঞা বিস্তৃত করে।   এই নিষেধাজ্ঞা মানতে বাধ্য করছে কট্টরপন্থী হিন্দু স্বেচ্ছাসেবীরা।   গরু বিক্রির খবর পেলে তারা হামলাও চালাচ্ছে।

পবিত্রতার কারণ দেখিয়ে গরুর মাংস নিষিদ্ধ করার ফলাফল হিসেবে ভারতজুড়ে গরুর দাম পড়ে গেছে। মাংস রপ্তানি গত বছরের এপ্রিল থেকে ডিসেম্বর পর্বে ১৩ শতাংশ হ্রাস পায়। এ  সুযোগে মাংস রপ্তানিতে প্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিল অনেক এগিয়ে গেছে। মহারাষ্ট্রের একটি গরুর হাটে কয়েক সপ্তাহ ধরে দুটি ষাঁড় নিয়ে বসে আছেন রেভাজি চৌধুরী নামের এক ব্যক্তি। কিন্তু কোনো ক্রেতা পাচ্ছেন না। ক্লান্ত ও বিষণ্ন কণ্ঠে তিনি বলেন, ‘আশ্চর্য হয়ে ভাবি, সরকার কাকে বাঁচাতে চায়, আমাদের না গরুদের?’ রাজ্যটিতে এখন খরা চলছে। গরুকে খাওয়ার জন্য তারা পানিও জোগান দিতে পারছে না।   সূত্র : রয়টার্স।


মন্তব্য