kalerkantho

রবিবার। ২২ জানুয়ারি ২০১৭ । ৯ মাঘ ১৪২৩। ২৩ রবিউস সানি ১৪৩৮।


মালয়েশিয়ায় আর্থিক কেলেঙ্কারি

এবার রাজাকের বিরুদ্ধে আদালতে মাহাথির

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৪ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের ব্যক্তিগত ব্যাংক হিসাবে জমা হওয়া ৬৮ কোটি ১০ লাখ ডলার সরকারি কোষাগারে স্থানান্তর করতে হবে—এমন দাবিতে আদালতে গেলেন রাজাকের পূর্বসূরি মাহাথির মোহাম্মদ।

আধুনিক মালয়েশিয়ার রূপকার হিসেবে খ্যাত সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির গতকাল বুধবার রাজাকের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। এর আগে গত মাসে তিনি এই একই ঘটনার জেরে দল থেকে বেরিয়ে যান। দল ছাড়ার কারণ হিসেবে মাহাথির তখন বলেন, ‘ক্ষমতাসীন ইউনাইটেড মালায়স ন্যাশনাল অর্গানাইজেশন (ইউএমএনও) দুর্নীতিকে সমর্থন করছে। ’

যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল গত জুলাইয়ে প্রধানমন্ত্রী রাজাকের ব্যক্তিগত ব্যাংক হিসাবে বিপুল পরিমাণ অর্থের বিষয়ে প্রশ্ন তুলে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে। এ নিয়ে তীব্র বিতর্ক সৃষ্টি হয় দেশজুড়ে। আর্থিক এ কেলেঙ্কারির সঙ্গে রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান ওয়ান মালয়েশিয়া ডেভেলপমেন্ট বার্হাডের (ওয়ানএমডিবি) নাম জড়িয়ে যায়। এর পরিপ্রেক্ষিতে রাজাকের পদত্যাগ দাবি করে আসছিল বিরোধীরা। এ দাবির প্রতি একাত্মতা প্রকাশ করেন মাহাথির। তিনি রাজাকের কঠোর সমালোচনা করে তাঁর পদত্যাগের দাবি জানান।

এ অবস্থায় গত জানুয়ারিতে অ্যাটর্নি জেনারেল ক্ষমতাসীন ইউএমএনও নেতা নাজিবকে দুর্নীতির অভিযোগ থেকে মুক্ত ঘোষণা করেন। তিনি জানান, প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত ব্যাংক হিসাবে জমা হওয়া অর্থ সৌদি রাজপরিবারের কাছ থেকে পাওয়া ‘উপহার’।

এরই মধ্যে নাজিবের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ স্বচ্ছতার সঙ্গে খতিয়ে দেখার আহ্বান জানানোর জেরে উপপ্রধানমন্ত্রীকে বরখাস্ত করা হয়েছে। সম্প্রতি সুইস কর্তৃপক্ষ জানায়, ওয়ানএমডিবিসহ মালয়েশিয়ার বিভিন্ন রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান থেকে হয়তো ৪০০ কোটি ডলার পর্যন্ত চুরি হয়ে থাকতে পারে। এ ক্ষেত্রে তারা সম্ভাব্য অর্থপাচার ও প্রতারণার বিষয়টি খতিয়ে দেখছে। সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য