kalerkantho


জাপান সাগরে ক্ষেপণাস্ত্রেও পরীক্ষা উত্তর কোরিয়ার

নিরাপত্তা পরিষদের নিন্দা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২০ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



জাপান সাগরে দুটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া। যুক্তরাষ্ট্রের এক কর্মকর্তা ফক্স নিউজকে এ কথা জানিয়েছেন। উত্তর কোরিয়ার এ ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার নিন্দা জানিয়েছে জাপান।

এদিকে উত্তর কোরিয়ার সাম্প্র্রতিক ধারাবাহিক ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার কঠোর নিন্দা জানিয়েছে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ। তারা বলেছে, এসব ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক নিরাপত্তাকে হুমকিগ্রস্ত করেছে।

মার্কিন কর্মকর্তা বলেন, গত শুক্রবার উত্তর কোরিয়ার ছোড়া দুটো ক্ষেপণাস্ত্রই মাঝারি পাল্লার রডং ক্ষেপণাস্ত্র বলে ধারণা করা হচ্ছে। কয়েক দফা রকেট উেক্ষপণের পর উত্তর কোরিয়া এ পরীক্ষা চালাল।

দক্ষিণ কোরিয়ার সেনাবাহিনী জানায়, পূর্ব উপকূল থেকে সাগরে নিক্ষেপ করা অন্তত একটি ক্ষেপণাস্ত্র প্রায় ৮০০ কিলোমিটার দূরে বিস্ফোরিত হয়। শুক্রবার স্থানীয় সময় ভোরে রাজধানী পিয়ংইয়ংয়ের উত্তর থেকে ক্ষেপণাস্ত্রটি ছোড়া হয়। সেটি কোরিয়া উপদ্বীপের ওপর দিয়ে আড়াআড়িভাবে উড়ে গিয়ে জাপান সাগরে পড়ে। দক্ষিণ কোরিয়ার বার্তা সংস্থা ইয়োনহাপের প্রতিবেদনেও বলা হয়, খুব সম্ভবত ক্ষেপণাস্ত্রটি মাঝারি পাল্লার রডং ক্ষেপণাস্ত্র হবে। রয়টার্স জানায়, ইয়োনহাপের তথ্য সঠিক হলে ২০১৪ সালের পর এই প্রথম মাঝারি পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালাল উত্তর কোরিয়া। এটি জাপানের ভূখণ্ডে আঘাত হানতে সক্ষম।

জানুয়ারিতে চতুর্থবারের মতো পরমাণু অস্ত্র পরীক্ষা এবং ফেব্রুয়ারিতে দূরপাল্লার রকেট উেক্ষপণের পর উত্তর কোরিয়ার ওপর নতুন করে কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে জাতিসংঘ ও যুক্তরাষ্ট্র। যদিও দেশটি ওই নিষেধাজ্ঞার তোয়াক্কা করছে না। একের পর এক ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে তারা।

এ সপ্তাহে উত্তর কোরিয়ার ওপর আবারও নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

পার্লামেন্টে জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে বলেন, ‘জাপান আত্মসংযম ধরে রেখে উত্তর কোরিয়াকে এ ধরনের পরীক্ষা বন্ধের জোর দাবি জানাচ্ছে। সেই সঙ্গে আমরা যেকোনো পরিস্থিতির জবাব দিতে প্রয়োজনীয় সব ধরনের সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করব। ’ সূত্র : রয়টার্স, বিবিসি।


মন্তব্য