kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৯ জানুয়ারি ২০১৭ । ৬ মাঘ ১৪২৩। ২০ রবিউস সানি ১৪৩৮।


আবদেসলামের গ্রেপ্তার অর্জন হলেও মূল লড়াই বাকি

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২০ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



আবদেসলামের গ্রেপ্তার অর্জন হলেও মূল লড়াই বাকি

প্যারিস হামলার অন্যতম সন্দেহভাজন সালাহ আবদেসলামের গ্রেপ্তারের ঘটনাকে সন্ত্রাসবিরোধী লড়াইয়ে বড় অর্জন হিসেবে দেখছেন বিশ্বনেতারা। তবে বেলজিয়ামের গণমাধ্যম বলছে, ইসলামী জঙ্গিবাদের যে ভিত্তি, তা তাদের দেশে এখনো রয়ে গেছে। এক গ্রেপ্তারের ঘটনায় সেই ভিত্তি উপড়ে ফেলা সম্ভব নয়।

গত শুক্রবার বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসের মোলেনবিক এলাকায় কয়েক ঘণ্টার অভিযান শেষে আবদেসলামকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। প্যারিস হামলার পর চার মাস ধরে এখানে আত্মগোপনে ছিল সে। শুক্রবার পুলিশের সঙ্গে গোলাগুলির সময় আবদেসলাম আহত হয়। অভিযানের সময় আমিন চোকরি (ছদ্মনাম) নামের আরেকজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার করা হয় তিন সদস্যের একটি পরিবারকে। অভিযোগ আছে, ওই পরিবার চার মাস ধরে আবদেসলামাকে আশ্রয় দিয়েছে।

শুক্রবার গ্রেপ্তারের পরই আবদেসলাম ও চোকরিকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গতকাল শনিবার দুজনকেই হাসপাতাল থেকে ছাড়িয়ে নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ব্রাসেলসের সিটি মেয়র। তবে হাসপাতাল থেকে তাদের কোথায় নেওয়া হয়েছে, তা জানা যায়নি। ধারণা করা হচ্ছে, ফ্রান্সের কাছে হস্তান্তর করার আগে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করবে বেলজিয়াম পুলিশ। গত ১৩ নভেম্বর প্যারিসে ভয়াবহ ওই সন্ত্রাসী হামলায় ১৩০ জন নিহত হয়। আহত হয় তিন শতাধিক। হামলার দায় স্বীকার করে ইসলামিক স্টেট (আইএস)। হামলার মূলহোতা আবদেলহামিদ আবাউদ গত নভেম্বরেই পুলিশের অভিযানে নিহত হয়।

গণতন্ত্র ও সন্ত্রাসবিরোধী লড়াইয়ে আবদেসলামের গ্রেপ্তারকে বড় অর্জন হিসেবে দেখছেন বিশ্বনেতারা। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা এরই মধ্যে ফ্রান্স ও বেলজিয়ামকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। ফ্রান্সের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বারনার্ড কাজেন্যুভ বলেছেন, এ ঘটনার মধ্য দিয়ে ইউরোপে আইএসের উপস্থিতি অনেকটা দুর্বল হয়ে পড়বে। ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওলাঁদ বলেছেন, বিচারের জন্য যত দ্রুত সম্ভব আবদেসলামকে ফ্রান্সের হাতে তুলে দিতে বেলজিয়ামকে অনুরোধ জানানো হবে। ফ্রান্সের নাগরিক আবদেসলাম দীর্ঘদিন ধরে ব্রাসেলসের পাশের মোলেনবিক এলাকায় বাস করছিল।

মোলেনবিকের যেখান থেকে আবদেসলামকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, সেটি ইসলামপন্থী জঙ্গিদের কর্মকাণ্ডের কেন্দ্র হিসেবে পরিচিত। সেখানকার একটি ফ্ল্যাটেই তল্লাশি চালিয়ে আবদেসলামের আঙুলের ছাপ পায় পুলিশ। বেলজিয়ামের গণমাধ্যম অবশ্য আবদেসলামের গ্রেপ্তার ঘটনাকে ‘খুব বড় অর্জন’ হিসেবে দেখছে না। দৈনিক এল’ইকো পত্রিকা লিখেছে, আবদেসলামের গ্রেপ্তারের ঘটনাকে কেবল ‘নিখুঁত অভিযান’-এর খেতাব দেওয়া যেতে পারে। কিন্তু জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে যে অদৃশ্য যুদ্ধ চলছে, তা এখনো শেষ হয়নি। সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য