kalerkantho

বুধবার । ১৮ জানুয়ারি ২০১৭ । ৫ মাঘ ১৪২৩। ১৯ রবিউস সানি ১৪৩৮।


দক্ষিণ চীন সাগর

চীনের বড় তৎপরতার ইঙ্গিত দেখছে যুক্তরাষ্ট্র

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৯ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



যুক্তরাষ্ট্র বলেছে, প্রায় চার বছর আগে দক্ষিণ চীন সাগরে ফিলিপাইনের সমুদ্রসীমা দখল করে নিয়েছে চীন। যুক্তরাষ্ট্র এই দখলকে আরো বড় কোনো দখল শুরুর পূর্ব পদক্ষেপ হিসেবে বিবেচনা করছে। বৃহস্পতিবার এমনই মন্তব্য করেছে যুক্তরাষ্ট্র নৌবাহিনী প্রধান অ্যাডমিরাল জন রিচার্ডসন। তাঁরা চীনের এ ধরনের কর্মকাণ্ডের জবাব দেওয়ারও চিন্তা করছেন।  

দক্ষিণ চীন সাগর দিয়ে বছরে পাঁচ ট্রিলিয়ন ডলার সমমূল্যের পরিবহন করা হয়। ভিয়েতনাম, মালয়েশিয়া, ব্রুনাই, তাইওয়ান ও ফিলিপাইনের দাবি উপেক্ষা করে বিশ্ব বাণিজ্যের অন্যতম এই গুরুত্বপূর্ণ জলপথের প্রায় পুরোটাই নিজেদের দাবি করে আসছে চীন। দ্বীপে সামরিক কর্মকাণ্ডও শুরু করেছে তারা। দক্ষিণ চীন সাগরে এরই মধ্যে চীন কৃত্রিম দ্বীপ তৈরি করে বিমানের জন্য রানওয়ে তৈরি করেছে। তবে গুরুত্বপূর্ণ এই জলপথে নিজেদের দাবি প্রতিষ্ঠা করতে এরই মধ্যে ফিলিপাইন আন্তর্জাতিক আদালতের শরণাপন্ন হয়েছে। জন রিচার্ডসনের প্রত্যাশা, আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে আদালত এ ব্যাপারে রায় দেবেন।

রিচার্ডসন বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনী ফিলিপাইনের ঘাঁটির ২০০ কিলোমিটার পশ্চিমে স্কারবোরাফ দ্বীপে চীনের কর্মকাণ্ড দেখেছে। তিনি আরো বলেন, ‘আমার মনে হয় আমরা সেখানে কিছু জাহাজের চলাচল দেখতে পেয়েছে। সম্ভবত তারা সেখানে জরিপকাজ পরিচালনা করছে। আর এটাই উদ্বেগের বিষয়। সম্ভবত তারা আরো এলাকা দখলের প্রস্তুতি নিচ্ছে। তবে তারা যে জায়গা জরিপ করছে সেটি ২০১২ সালে দখল করা এলাকার কাছাকাছি কি না তা পরিষ্কার নয়। ’

রিচার্ডসনের দাবির ব্যাপারে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র লু ক্যাং বলেন, যখন চীনের নৌবাহিনী সেখানে টহল দিচ্ছে তখন তাকে সামরিকীকরণের কথা বলে চীনের সমালোচনা করা যুক্তরাষ্ট্রের একটা ভণ্ডামি। তাদের এ ধরনের কথাবার্তা হাস্যকর এবং উদ্ভট।

এ ব্যাপারে ফিলিপাইনের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সামরিক কর্মকর্তা বলেন, ‘এ ব্যাপারে কথা বলার জন্য আমি অনুমোদিত কেউ নই। ওই এলাকায় চীনা জাহাজের জরিপের ব্যাপারেও আমি কিছু জানি না। তবে ২০১২ সাল থেকে চীন ওই এলাকার দখল নিয়েছে এবং সব সময় তাদের দুই-তিনটা জাহাজ সেখানে অবস্থান করে। আমরা তাদের কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করছি। ’ সূত্র : রয়টার্স।


মন্তব্য