kalerkantho


হার মেনেছে ‘খুনি পর্বত’

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৩ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



হার মেনেছে ‘খুনি পর্বত’

‘আট হাজারি’ তালিকাভুক্ত ‘খুনি পর্বত’ সম্প্রতি একদল উদ্যমী অভিযাত্রীর কাছে হার মেনেছে। প্রথমবারের মতো শীতকালে এ পর্বতের চূড়ায় পৌঁছেছেন তিন অভিযাত্রী।

পাকিস্তানের গিলগিত-বালতিস্তান অঞ্চলের পর্বতমালার একেবারে পশ্চিমে অবস্থিত ‘নাঙ্গা পবর্ত’ এক সময় ‘খুনি পর্বত’ নামে পরিচিত হয়ে ওঠে। ইতালির অভিযাত্রী সিমন মোরো, স্পেনের অ্যালেক্স সিকন ও পাকিস্তানি পর্বতারোহী আলী সাদপারা তিন মাসের অভিযান শেষে গত ২৬ ফেব্রুয়ারি এর চূড়ায় পা রাখেন। এর আগে এ পর্বতশৃঙ্গকে জয় করা হয় ১৯৫৩ সালে। তবে সেটা শীত মৌসুম ছিল না।

পর্বতটির ‘খুনি’ নামে কুখ্যাতি পাওয়ার কারণ প্রথমবার পর্বতশৃঙ্গটি পদানত হওয়ার আগে ওই চেষ্টা করতে গিয়ে ৩০ জন প্রাণ হারায়। বিশ্বে নবম ও পাকিস্তানে দ্বিতীয় শীর্ষ এই পর্বতশৃঙ্গের উচ্চতা আট হাজার ১২৫ মিটার। এই মৌসুমে নাঙ্গা পর্বত জয় করার ফলে শীতকালে অজেয় ‘আট হাজারি’ পর্বতমালার মধ্যে বাকি রইল কে২ পর্বত।

নাঙ্গার শীর্ষে পৌঁছানোর পথে অভিযাত্রীরা ছয় হাজার ২০০ মিটার উচ্চতায় উঠে এক রাত অপেক্ষা করেন। কারণ তাঁরা ওই পরিবেশের সঙ্গে নিজেদের খাপ খাইয়ে নিয়ে অক্সিজেন ছাড়াই চূড়ায় পৌঁছতে চেয়েছেন এবং তাঁরা সফলও হয়েছেন। অক্সিজেন ছাড়াই চূড়ায় পৌঁছে আনন্দে উদ্ভাসিত মোরোর সামনে আট হাজারি উচ্চতার আরো তিনটি পবর্তসহ উত্তর পাকিস্তান ও ভারতের বিস্তৃত পর্বতমালা দৃশ্যমান হয়ে ওঠে। মোরোসহ তিনজন নাঙ্গা পর্বতকে জয় করলেও দুর্ভাগ্য নিয়ে ফিরতে বাধ্য হয়েছেন তাঁদের সহযাত্রী ইতালির তামারা লিউঙ্গার। শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় চূড়ার মাত্র ১৭০ মিটার কাছে পৌঁছেও তাঁকে ফিরতি পথ ধরতে হয়। সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য