kalerkantho


অভিবাসন নিয়ে মার্কেল

বলকান রুট বন্ধ করাটা সমাধান নয়

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১১ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



অভিবাসীদের জন্য বলকান রুট বন্ধ হয়ে যাওয়ার দায় ইউরোপীয় দেশগুলোর ওপর চাপিয়েছেন জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মার্কেল। এটা কোনো টেকসই পদক্ষেপ নয় এবং এতে সমস্যার সমাধানও সম্ভব নয় বলে মনে করেন এই ইউরোপীয় নেতা।

তুরস্ক থেকে গ্রিস হয়ে ইউরোপে প্রবেশ করা অভিবাসীদের জন্য বলকান রুটগুলো গত বুধবার মধ্যরাত থেকে পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায়। এর পরিপ্রেক্ষিতে মার্কেল বলকান দেশগুলোর উদ্দেশে বলেন, ‘একতরফা সিদ্ধান্ত নিয়ে আপনারা সমস্যার সমাধান করেননি। ব্যক্তিগতভাবে আমি মনে করি, অস্ট্রিয়ার একতরফা সিদ্ধান্ত এবং তারপর পর্যায়ক্রমে বলকান দেশগুলোর নেওয়া সিদ্ধান্তের ফলে নিশ্চিতভাবেই আমাদের এখানে কম শরণার্থী আসবে। কিন্তু এতে গ্রিস খুব কঠিন অবস্থার মধ্যে পড়ে যাবে। ’ তাঁর মতে, তুরস্কের সঙ্গে সমঝোতায় পৌঁছতে না পারলে গ্রিস খুব বেশিদিন অভিবাসীদের চাপ সহ্য করতে পারবে না।

যুদ্ধ ও দারিদ্র্য থেকে বাঁচতে বিশেষত মধ্যপ্রাচ্য ও আফ্রিকা থেকে বিপুলসংখ্যক অভিবাসী তুরস্ক থেকে গ্রিসে প্রবেশ করছে। সেখান থেকে জার্মানিসহ ইউরোপের বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়ছে। তাদের ঠেকাতে অস্ট্রিয়া, স্লোভেনিয়া, ক্রোয়েশিয়া, সার্বিয়া এবং সর্বশেষ মেসিডোনিয়া একের পর এক তাদের সীমান্ত দিয়ে অভিবাসীদের প্রবেশ একেবারে বন্ধ করে দেয়। এতে বিপুলসংখ্যক অভিবাসীর চাপে গ্রিস বেকায়দায় পড়ে গেছে।

অবৈধ অভিবাসীদের তুরস্কে ফেরত পাঠানোর ব্যাপারে তুরস্কের সঙ্গে ইউরোপীয় ইউনিয়নের একটি চুক্তি আগামী ১৭-১৮ মার্চ চূড়ান্ত হওয়ার কথা। তবে জাতিসংঘ ও মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল এর বিরোধিতা করছে। সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য