ভারত অসহিষ্ণু বলিনি-332954 | দেশে দেশে | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১২ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৪ জিলহজ ১৪৩৭


সাক্ষাত্কারে আমির খান

ভারত অসহিষ্ণু বলিনি

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৭ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



ভারত অসহিষ্ণু বলিনি

বলিউড তারকা আমির খান বলেছেন, তিনি কখনোই বলেননি ‘ভারত অসহিষ্ণু’। তাঁকে ভুলভাবে উদ্ধৃত করা হয়েছিল। গত শনিবার এক টিভি সাক্ষাত্কারে এভাবেই নিজের অবস্থান স্পষ্ট করেন পারফেকশনিস্ট হিসেবে খ্যাত এই অভিনেতা।

আমির খান বলেন, ‘আমাদের দেশ যথেষ্ট সহিষ্ণু। কিন্তু কিছু মানুষ হিংসা ছড়িয়ে যাচ্ছে। দেশকে ধর্মের নামে ভাগ করার চেষ্টা করছে। নরেন্দ্র মোদিই পারবেন এই পরিস্থিতি ঠেকাতে। কারণ তিনি আমাদের প্রধানমন্ত্রী। তাঁকেই নালিশ জানানো উচিত আমাদের।’

কিছু আগে দেওয়া নিজের বিতর্কিত সাক্ষাত্কার সম্পর্কে আমির বলেন, ‘আমি বলেছিলাম যে হতাশা আছে, নৈরাশ্য আছে, নিরাপত্তাহীনতার ভয় আছে। অসহিষ্ণুতা বেড়ে চলেছে। কিন্তু যা রটেছে, তা পুরোটাই আলাদা।’ তিনি বলেন, ‘অসহিষ্ণুতা বাড়ছে’ বলা আর ‘অসহিষ্ণু’ বলার মাঝে পার্থক্য আছে।

আমিরের আগের ওই সাক্ষাত্কারের জেরে তীব্র বিতর্ক তৈরি হয় গোটা দেশে। কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন দল বিজেপির সমর্থকরা আমিরকে দেশ ছেড়ে চলে যাওয়ারও দাবি জানান। এরই মধ্যে ‘ইনক্রেডিবল ইন্ডিয়া’ প্রচারের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর পদ থেকে বাদ পড়েছেন আমির। এ ব্যাপারে আমিরের বক্তব্য, ‘সরকার আমার ওই পদ কেড়ে নিলেও আমি মনে করি ভারত আমার ব্র্যান্ড নয়, আমার মা।’

আমিরের সাক্ষাত্কারের জেরে এমন গুঞ্জনও রটে ‘ক্রমেই বেড়ে চলা অসহিষ্ণুতা’র কারণে স্ত্রী কিরণ রাও দেশ ছেড়ে যাওয়ার কথা ভাবছেন। আমির শনিবার বলেন, ‘আমরা কোথাও যাচ্ছি না।’

গণমাধ্যমকে খবর প্রচারে সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দিয়ে আমির বলেন, ‘প্রত্যেক ভারতীয় নাগরিকই ভয়ের মধ্যে আছে। গণমাধ্যমের প্রতি আমার আর্জি থাকবে, তারা যেন এ ধরনের খবরে গুরুত্ব কম দেয়। কারণ এগুলো জনমনে নিরাপত্তাহীনতা সৃষ্টি করে।’

তাঁর স্ত্রী একজন মা উল্লেখ করে আমির বলেন, ‘প্রত্যেক মা-ই তাঁর সন্তানের জন্য দুশ্চিন্তা করেন। অনেক বিষয় নিয়েই আমরা আলাপ করি। এর অর্থ এই নয় যে তার সবই আমরা কাজে পরিণত করি। কিরণ আসলে তার অনুভূতি প্রকাশ করেছে।’

সূত্র : এনডিটিভি।

মন্তব্য