kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


রিপাবলিকানদের সম্মেলনে ট্রাম্পবিরোধী সুর চড়া

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৬ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



রিয়েল এস্টেট মোগল ডোনাল্ড ট্রাম্পকে নিয়ে রিপাবলিকান দলে বিরোধিতায় এখন আর কোনো রাখঢাক নেই। অনেকেই আগামী নভেম্বরে দলের পতাকা ট্রাম্পের হাতে দেখতে চান না।

ট্রাম্পবিরোধিতার এই সুরই যেন তীব্রভাবে শোনা গেল যুক্তরাষ্ট্রের রিপাবলিকান পার্টির কনজারভেটিভ পলিটিক্যাল অ্যাকশন কনফারেন্সে (সিপিএসি)।

মেরিল্যান্ডের অক্সন হিলে শুক্রবার সম্মেলনে যোগ দিতে এসে দলের এক সমর্থক অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষক বেন উইলিয়াম বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট হলে তিনি বিপর্যয় ঘটাবেন। ’ ডানপন্থী কর্মীদের তৃণমূল পর্যায়ে এটিই সবচেয়ে বড় সম্মেলন। ‘দাম্ভিকতা, ধৈর্যহীনতা ও অশ্লীলতা’—ট্রাম্প সম্পর্কে বলতে গিয়ে টানা এই শব্দগুলোই ব্যবহার করলেন তিনি। একই সঙ্গে তাঁর মন্তব্য, ‘দলের দক্ষিণপন্থী অংশের জন্য (ট্রাম্পের বিষয়ে) জবাবটি হলো—না। তিনি পুরোপুরি রক্ষণশীল নন। ’

সিপিএসিতে অংশগ্রহণকারী বেশির ভাগেরই মতামত এটি। প্রমাণ মিলল, ট্রাম্প সম্মেলনে আসছেন না বলে ঘোষণা দেওয়ার পর তাঁদের উল্লাস ধ্বনি থেকে। তরুণ রিপাবলিকান এবং সিপিএসির একজন স্বেচ্ছাসেবক ব্রেন্ট টিডওয়েল (২৯) বলেন, ‘তাঁকে আমার রক্ষণশীল বলে মনে হয় না। আমার মনে হয়েছে তাঁর রক্ষণশীলদের কিছু আদর্শ পছন্দ হয়েছে এগুলোকে নিজের সঙ্গে সংগতিপূর্ণ মনে হয়েছে দেখেই এই দল থেকে নির্বাচন করতে চাইছেন। ’

এখন পর্যন্ত রিপাবলিকানদের মোট ১৫টি রাজ্যে প্রাইমারি হয়েছে। এর মধ্যে ১০টিতেই জয় পেয়েছেন ট্রাম্প। তার সমর্থনও উত্তরোত্তর বাড়ছে। ট্রাম্প ছাড়া রিপাবলিকান দলের মনোনয়ন প্রত্যাশী বাকি সবাই উপস্থিত ছিলেন সিপিএসিতে। প্রার্থিতা প্রত্যাশীদের মধ্যে এই সম্মেলনে যোগ দিয়ে রক্ষণশীলদের সমর্থন আদায়ের চেষ্টা দলের ঐতিহ্য হয়ে দাঁড়িয়েছে। ট্রাম্প বিষয়টি জানেন, কেননা তিনি এই সম্মেলন আয়োজনের জন্য এক লাখ ডলারেরও বেশি দান করেছেন। হিলারি ক্লিনটনকে ঠেকাতে নানামুখী তত্পরতার মধ্যেই রিপাবলিকান দলে প্রার্থী নিয়ে তীব্র বিভক্তি দেখা দিল।   সূত্র : এএফপি।


মন্তব্য