kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ

৯৪ নতুন মুখ, সংখ্যালঘু ৫৭ নারী প্রার্থী ৪৫

সুব্রত আচার্য্য, কলকাতা   

৫ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



নতুন ৯৪ জনকে প্রার্থী করে ২৯৪ আসনের পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভায় দলের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করেছেন তৃণমূল নেত্রী ও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় কলকাতার কালীঘাটে দলের অফিসে তিনি প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করে সিপিএম-কংগ্রেস এবং বিজেপি জোটের বিরুদ্ধে নির্বাচনী স্লোগানও বেঁধে দিয়েছেন।

এ স্লোগান হলো ‘হাত-হাতুড়ি-পদ্ম, বাংলার মানুষ করবেন জব্দ’।

মমতা দক্ষিণ কলকাতার ভবানীপুর আসন থেকে প্রার্থী হচ্ছেন। এ ছাড়া দলের শীর্ষস্থানীয় নেতাদের তাঁদের আগের জায়গাতেই প্রার্থী করেছেন মমতা। গতবারের নির্বাচিত বিধায়কদের মধ্যে বেশ কয়েকজনকে এবার বাদ দিয়েছেন। অন্যদিকে নতুন প্রার্থীদের মধ্যে সাতজন সেলিব্রিটিকে নিয়েছেন। তাঁরা হচ্ছেন অভিনেতা শোহম, ফুটবলার বাইচুং ভুটিয়া, ক্রিকেটার লক্ষ্মীরতন শুক্লা, জগমহন ডালমিয়ার মেয়ে বৈশালী ডালমিয়া, ফুটবলার রহিম নবী ও সংগীতশিল্পী ইন্দ্রনীল সেন। তাঁদের পাশাপাশি আগের সেলিব্রিটি প্রার্থীরা এবারও লড়বেন।

এবার নারী প্রার্থীর সংখ্যাও বাড়িয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। গত বছর ৩১ জন প্রার্থী হলেও এবার সেই সংখ্যা ৪৫। একইভাবে বাড়ানো হয়েছে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিও। ২০১১ সালে ৩৮ জন প্রার্থী ছিলেন। এবার ৫৭ জনকে প্রার্থী করা হয়েছে।

সারদাকাণ্ডে কারাগারে বন্দি তৃণমূলের শীর্ষ নেতা ও রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী মদন মিত্রকেও প্রার্থী করেছেন মমতা। এ ছাড়া সিপিএম থেকে বিতাড়িত হওয়া রাজ্জাক মোল্লা এবং সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের নেতা সিদ্দিক উল্লাহ চৌধুরীকেও এবার দলীয় প্রতীকে লড়ার সুযোগ দিয়েছেন তৃণমূলপ্রধান। এদিকে প্রার্থী তালিকা প্রকাশ অনুষ্ঠানে ছয় দফায় সাত দিনের ভোট নেওয়ার জন্য নির্বাচন কমিশনের সমালোচনা করেছেন মমতা। তিনি বলেন, ‘দাঙ্গাবিধ্বস্ত আসামের মতো রাজ্যে মাত্র দুই দফায় ভোট হলেও পশ্চিমবঙ্গে ছয় দফায় ভোট নেওয়ার কারণ খুবই পরিষ্কারভাবে রাজ্যবাসী বুঝতে পারছে। পশ্চিমবঙ্গের সঙ্গে সব সময়ই বিমাতাসুলভ আচরণ করা হয়। ’ পশ্চিমবঙ্গের ২৯৪ আসনের মধ্যে ৪ এপ্রিল প্রথম মাওবাদী অধ্যুষিত ১৮টি আসনের ভোট নেওয়া হবে। প্রথম দফায় দ্বিতীয় দিনের ভোট ১১ এপ্রিল ৩১টি আসনে।


মন্তব্য