রিপাবলিকান নেতৃত্বের ‘ট্রাম্প-331904 | দেশে দেশে | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১৪ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৬ জিলহজ ১৪৩৭


রিপাবলিকান নেতৃত্বের ‘ট্রাম্প ঠেকাও’ চেষ্টা ফল দিচ্ছে না

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৪ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



রিপাবলিকান নেতৃত্বের ‘ট্রাম্প ঠেকাও’ চেষ্টা ফল দিচ্ছে না

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে দলীয় মনোনয়নের দৌড়ে অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে চলেছেন রিয়েল স্টেট ব্যবসায়ী ডোনাল্ড ট্রাম্প। রিপাবলিকানদের সুপার টুইসডেতে এবার ভোটাভুটি হয়েছে ১১টি রাজ্যে। এর মধ্যে ট্রাম্পের ঝুলিতে এসেছে সাতটি আর সিনেটর টেড ক্রুজ পেয়েছেন তিনটি। মার্কো রুবিও মাত্র একটিতে জয় পেয়েছেন। অর্থাৎ প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে চূড়ান্ত মনোনয়ন পাওয়ার ভিত মজবুত হচ্ছে ট্রাম্পের। যদিও বিষয়টি রিপাবলিকান দলের শীর্ষ নেতাদের অনেকেরই পছন্দ নয়।

রিপাবলিকান দলে ট্রাম্পবিরোধীদের সংখ্যা ও তৎপরতা নজিরবিহীন। দলের জ্যেষ্ঠ নেতা মিট রমনি বাকি প্রার্থীদের মধ্যে একজনকে বেছে নিয়ে প্রচার চালানোর পরামর্শ দিয়েছেন শুধু ট্রাম্পকে ঠেকাতে। ট্রাম্পকে থামানোর কারণ ব্যাখ্যা করে সমর্থকদের চিঠি দিয়েছেন নেব্রাস্কার রিপাবলিকান সিনেটর বেন সাসে। প্রকাশ্যে উদ্বেগের কথা জানিয়েছেন হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসের স্পিকার পল রায়ান এবং সিনেটের সংখ্যাগরিষ্ঠ দলের নেতা মিচ ম্যাককোনাল।

অনেকেই মনে করেন, আদর্শগতভাবে ট্রাম্প রিপাবলিকানই নন। গর্ভপাত, বাণিজ্য, স্বাস্থ্যসেবা এবং অভিবাসনের মতো বিষয়গুলোতে দলের সঙ্গে তাঁর মত মেলে না। তিনি যে আগ্রাসী ভাষা ব্যবহার করছেন তা দলের ইমেজ নষ্ট করছে। মনোনীত হলে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তিনি দলের ভরাডুবি ঘটাতে পারেন বলেও আশঙ্কা রয়েছে।

রিপাবলিকান নেতৃত্বের ধারণা ছিল ফ্লোরিডার গভর্নর জেব বুশের দিকেই হয়তো দলীয় সমর্থনের পাল্লা ভারী হবে। কিন্তু জেব লড়াই থেকেই আগেই বিদায় নিয়েছেন। মার্কো রুবিওরও প্রাইমারিতে ফলাফল হতাশাব্যঞ্জক। ওহাইয়োর গভর্নর জন কেসিসের সম্ভাবনা প্রায় শূন্য।

আর আছেন টেক্সাসের সিনেটর টেড ক্রুজ। ওয়াশিংটনের রিপাবলিকানরা তাঁকে কিভাবে নেবে তা নিয়ে প্রশ্ন আছে। কারণ দলের নানা কিছু নিয়ে তিনি বরাবরই সমালোচনাপ্রবণ। তবে প্রাইমারিতে ট্রাম্প ছাড়া বাকি ছিটেফোঁটা সাফল্য তাঁরই।

প্রস্তাব উঠেছে মধ্যস্থতার সম্মেলন আয়োজনের। দলে যখন কোনো প্রার্থীই পর্যাপ্ত ডেলিগেটের সমর্থন পায় না তখন এই পথটিই খোলা থাকে। তবে ট্রাম্পবিরোধীদের সমস্যা হলো, যতই তারা তাঁকে ঠেকাতে চায়, ততই তাঁর সমর্থন বাড়ে। সূত্র : দ্য ইনডিপেনডেন্ট।

মন্তব্য