kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন

সুপার টিউসডে জরিপে এগিয়ে হিলারি-ট্রাম্প

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



সুপার টিউসডে জরিপে এগিয়ে হিলারি-ট্রাম্প

জর্জিয়ায় গতকাল ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমাবেশে সমর্থকদের পাশাপাশি তাঁর বিরোধীরাও উপস্থিত হয়। বিরোধীরা বর্ণবাদের বিরুদ্ধে প্ল্যাকার্ড বহন করে। ছবি : এএফপি

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী বাছাইয়ের লক্ষ্যে গতকাল মঙ্গলবার একযোগে ১২টি রাজ্যে প্রাইমারি ও ককাস হিসেবে পরিচিত ভোটাভুটি অনুষ্ঠিত হয়। একসঙ্গে এতগুলো রাজ্যে এ আয়োজন সম্পন্ন হয় বলেই দিনটি সুপার টিউসডে নামে পরিচিত।

ডেমোক্র্যাট পার্টি এবং রিপাবলিকান—দুই দলের সমর্থকরাই  এ ভোটাভুটিতে নিজেদের মতামত জানান।

জরিপে দেখা যায়, ডেমোক্রেটিক দল থেকে সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন এবং রিপাবলিকান পার্টি থেকে ডোনাল্ড ট্রাম্প বেশির ভাগ রাজ্যে জয় পাবেন।

এই ১২ অঙ্গরাজ্যে দুই দলেরই ডেলিগেট সংখ্যা বেশি। ফলে গুরুত্বও বেশি। গত সোমবার প্রকাশিত সিএনএনের ওই জরিপ অনুযায়ী, ডেমোক্রেটিক দলের মনোনয়নপ্রত্যাশী হিলারি তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী সিনেটর বার্নি স্যান্ডার্সের তুলনায় ১৭ শতাংশ পয়েন্টে এগিয়ে আছেন। ১২টির মধ্যে আটটিতে হিলারির জয় সুনিশ্চিত বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বলা হচ্ছে, স্যান্ডার্স তাঁর নিজের অঙ্গরাজ্য ভারমন্টে জয় লাভ করবেন। তিনি মিনেসোটা, ওকলাহোমা ও ম্যাসাচুসেটসেও অল্প ব্যবধানে এগিয়ে আছেন। নিজ অঙ্গরাজ্যের বাইরে উল্লেখযোগ্য ব্যবধানে দুই বা তিনটি অঙ্গরাজ্যে স্যান্ডার্স জয়লাভে ব্যর্থ হলে আর কত দিন তিনি লড়াই চালিয়ে যাবেন, তা নিয়ে তাঁকে ভাবতে হবে।

দলের প্রচার শুরুর পর থেকেই নানা বিতর্কিত মন্তব্যের কারণে আলোচনার শীর্ষে উঠে আসেন ট্রাম্প। সিএনএনের জরিপ অনুসারে, তিনি রিপাবলিকান সমর্থকদের মধ্যে ৪৯ শতাংশ সমর্থন পাবেন। গতকাল যে ১২টি অঙ্গরাজ্যে রিপাবলিকান সমর্থকরা বাছাই ভোটে অংশ নেন, এর মধ্যে একমাত্র টেক্সাস ছাড়া বাকিগুলোতে ট্রাম্প জয় পাবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

গত কয়েক দিন রিপাবলিকান নেতৃত্ব ট্রাম্পের বিরুদ্ধে একাট্টা হওয়ার চেষ্টার অংশ হিসেবে সিনেটর রুবিওর সমর্থনে বাকি তিন মনোনয়নপ্রত্যাশীকে লড়াই থেকে সরে যাওয়ার তাগাদা দিচ্ছিলেন। কিন্তু রুবিও এখন পর্যন্ত কোনো অঙ্গরাজ্যেই জয়লাভ করেননি।

কৃষ্ণাঙ্গদের হেনস্থা : ট্রাম্প বিভাজনের বীজ বপন করছেন—দীর্ঘদিন ধরে এমন অভিযোগ শোনা গেলেও গত সোমবার ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যের র‌্যাডফোর্ডে এক সমাবেশে তা নগ্নভাবে প্রকাশ পায়। গত রবিবার সিএনএনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি পরিষ্কারভাবে শ্বেতাঙ্গ বর্ণবাদিতা সমর্থনের নিন্দা জানাননি—সমাবেশে এমন সমালোচনাকে ট্রাম্প পাশ কাটানোর চেষ্টাকালে কয়েকজন প্রতিবাদ করেন। তাঁদের ওপর খেপে ওঠেন ট্রাম্প, ‘তোমরা কি মেক্সিকো থেকে এসেছ?’ সূত্র : বিবিসি, এএফপি।


মন্তব্য