kalerkantho


পবিত্র মোহন দে

নিজস্ব প্রতিবেদক, ময়মনসিংহ

   

১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১০ ০০:০০



দেশের শাস্ত্রীয় সংগীতের অন্যতম তবলাবাদক এবং গায়ক ছিলেন ময়মনসিংহের ওস্তাদ মিথুন দে। ওস্তাদ মিথুন দের অনুপ্রেরণা এবং শিক্ষাদানে ক্রমে এক কৃতী তবলাবাদক হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলেছেন তাঁরই কনিষ্ঠ সহোদর পবিত্র মোহন দে। সেই শিশু বয়সে তৃতীয় শ্রেণীতে পড়ার সময় তবলা বাদনে হাতেখড়ি হয়েছিল পবিত্র মোহন দের। এখন তাঁর বয়স ৭৪ বছর। বয়সের ভারে মোটেও কাবু নন পবিত্র দা। ময়মনসিংহ শহরের একাধিক সংগীত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এখনো তাঁর সরব বিচরণ। ওস্তাদ পবিত্র মোহন দের জন্ম ময়মনসিংহ শহরের আকুয়ার চুকাইতলা এলাকায় ১৯৩৭ সালের ১ মে। কিশোর ও যুবক বয়সে প্রতিদিন গড়ে ১০ থেকে ১২ ঘণ্টা চর্চা করতেন। বেনারস ও ফারাক্কাবাদের মিশ্রিত ধারায় খোলা ও মুক্ত ধ্বনির বোল এবং বোলের মিষ্টত্ব ও নান্দনিকতাকে বজায় রেখে তবলা বাদনের অনন্য এক ধারা ওস্তাদ মিথুন দে ও পবিত্র মোহন দের হাতে গড়ে উঠেছিল। ১৯৪৭ থেকে ৬৮ সময়কালে পবিত্র মোহন দে শাস্ত্রীয় সংগীত, রবীন্দ্রসংগীত ও অন্যান্য গানে তবলা সঙ্গতে নিজেকে নিয়োজিত করেন। সে সময় কলকাতা থেকে খেয়াল গায়ক বীরেশ রায় ও আধুনিক গানের খ্যাতিমান গায়ক সতীনাথ ও উৎপলা সেন ময়মনসিংহে এলে পবিত্র দে তবলা সঙ্গতে তাঁদের প্রশংসা কুড়িয়েছিলেন। স্বাধীনতা পূর্বকালে ময়মনসিংহে ভীষ্মদেব ভট্টাচার্য, পারুল রানী সিনহা ও আভা দে খেয়াল গেয়ে খ্যাতি অর্জন করেছিলেন। তাঁদের সঙ্গে নিয়মিত তবলা সঙ্গত করতেন পবিত্র দে। ১৯৬৭ সালে ময়মনসিংহের আমানাৎ ও ফতেহ আলী খাঁর খেয়াল গাওয়ার আসরেও তবলা সঙ্গতে আমন্ত্রিত হয়েছিলেন পবিত্র দা। ওস্তাদ এনায়েত খাঁর শিষ্য কালজয়ী সেতার বাদক শ্রী বিপিন দাশের সঙ্গেও তিনি বহুবার তবলা সঙ্গত করেছেন।


মন্তব্য