kalerkantho


৩৮তম বিসিএস প্রিলিমিনারি ♦ শেষ পর্ব

সাধারণ জ্ঞান সাধারণই তো!

ডিসেম্বরে বসছে ৩৮তম বিসিএস প্রিলিমিনারির আসর। এবার রেকর্ডসংখ্যক (প্রায় তিন লাখ ৯০ হাজার) আবেদন জমা পড়েছে। সবচেয়ে বেশি প্রার্থী ছিটকে পড়ে প্রিলিমিনারি পর্বেই। প্রিলির প্রস্তুতি নিয়ে বিশেষ ধারাবাহিকের শেষ কিস্তি আজ। লিখেছেন ২৯তম বিসিএসে পুলিশ ক্যাডারে প্রথম মো. তরিকুর রহমান

১৫ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



সাধারণ জ্ঞান সাধারণই তো!

সাধারণ জ্ঞানে দুটি ভাগ আছে। বাংলাদেশ বিষয়াবলি ও আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি।

এ দুটি অংশে বরাদ্দ থাকে ৩০ ও ২০ নম্বর। সর্বমোট ৫০ বা এক-চতুর্থাংশ প্রশ্ন আসে সাধারণ জ্ঞান থেকে। তাই গুরুত্বের সঙ্গে প্রস্তুতি নিতে হবে। সাধারণ জ্ঞানে অনেক ভালো নম্বর তোলারও সুযোগ থাকে সব বিভাগের প্রার্থীদের জন্য। শুধু প্রিলিমিনারি নয়, লিখিত ও ভাইভায়ও সাধারণ জ্ঞান অনেক গুরুত্বপূর্ণ। তাই এমনভাবে প্রিলিমিনারির প্রস্তুতি নিতে হবে, যাতে লিখিত ও ভাইভায় পরীক্ষার প্রস্তুতিও অনেকটা হয়ে যায়।

কী পড়বেন, কী পড়বেন না—ঠিক করে নিতে হবে সবার আগে। সিলেবাসের বিশাল সমুদ্র থেকে আপনাকেই ঠিক করে নিতে হবে কোন কোন টপিক পড়বেন, কোনটি পড়বেন না। যতটা সম্ভব আগের বিসিএস পরীক্ষাগুলোর প্রশ্ন সংগ্রহ করুন।

বিগত কয়েক বছরের প্রশ্নপত্র দেখলে নিজেই টপিক নির্বাচন করতে পারবেন। যেসব টপিক থেকে প্রায় বছরই প্রশ্ন আসে, সেগুলো রাখতে হবে পড়ার তালিকায়। বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়াবলির প্রস্তুতির অন্তত দুটি জব সলিউশন থেকে প্রশ্ন সমাধান করলে প্রস্তুতি অনেকটাই হয়ে যাবে।

নিয়মিত চোখ রাখুন খবরের কাগজ ও ইন্টারনেটে। সাধারণ জ্ঞান, বিশেষ করে সাম্প্রতিক প্রসঙ্গের জন্য এর কোনো বিকল্প নেই। কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স, কারেন্ট ওয়ার্ল্ড প্রভৃতি সাধারণ জ্ঞানবিষয়ক সাময়িকী প্রস্তুতিতে সহায়ক হতে পারে। বিসিএসের আগে এসব মাসিক বিশেষ সংখ্যাও বের করে। তাতেও চোখ বুলাতে পারেন। তবে শুধু খবরের কাগজ পড়েই সাম্প্র্রতিক প্রসঙ্গ থেকে আসা প্রশ্নে উত্তর করা যায়। রেফারেন্স বইপত্র পড়ে অনেকে সময় নষ্ট করে। আমার মতে, এর চেয়ে বিগত বছরের প্রশ্নোত্তর সমাধান অনেক বেশি কাজে দেয়।

প্রস্তুতিতে ইন্টারনেট হতে পারে সহায়ক। গুগলে ইংরেজিতে কিংবা ইউনিকোড বা অভ্রতে বাংলায় টাইপ করে গুগলে সার্চ করে পড়তে পারেন। বিশেষ করে আন্তর্জাতিক বিষয়াবলির প্রায় সব ধরনের প্রশ্নের উত্তরই পাবেন গুগল সার্চে। এতে কোনো তথ্যের জন্য ছোটাছুটির সময়টা অন্তত বাঁচবে। বিশ্বের সমকালীন রাজনীতি বা আলোচিত ইস্যু থেকে প্রশ্ন আসতে পারে। রোহিঙ্গা সমস্যা ও গণহত্যা, সিরিয়া সংকট, স্পেনের কাতালান ইস্যু, উত্তর কোরিয়া, সৌদি আরব, কাতার, আমেরিকা, ব্রিটেন, ফ্রান্স, ইসরায়েল, তুরস্কসহ আলোচিত দেশের ঘটনাপ্রবাহ থেকে প্রশ্ন আসতে পারে। সমকালীন গুরুত্বপূর্ণ টপিক পড়তে হবে একটু যত্ন করেই। বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক, বিশেষ করে আন্তর্জাতিক পাতা পড়লে প্রস্তুতিতে অনেক কাজে আসে। বিসিএসের জন্য গুরুত্বপূর্ণ সব টপিকের আর্টিক্যালে চোখ বুলালেই চলে, পুরো পত্রিকা পড়ার প্রয়োজন হয় না। বিভিন্ন নিউজ চ্যানেল কিংবা যেকোনো টিভি চ্যানেলের খবর দেখলে কাজে আসবে। সাম্প্রতিক সময়ের বিভিন্ন ঘটনাপ্রবাহ, গুরুত্বপূর্ণ চুক্তি, আন্তর্জাতিক যুদ্ধ ও শান্তিচুক্তি, বিভিন্ন পুরস্কার ও সম্মাননা, বিভিন্ন স্থানের নাম ও গুরুত্বপূর্ণ ঘটনার সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা, আন্তর্জাতিক সংস্থার নাম, সদর দপ্তর ইত্যাদি সম্পর্কে ভালোভাবে জেনে নিতে হবে।

সাধারণ জ্ঞানের জন্য আজকের বিশ্ব, নতুন বিশ্ব বা ভালো মানের একাধিক বই পড়তে হবে। সহায়ক হবে অষ্টম ও নবম-দশম শ্রেণির বোর্ডের বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়, নবম-দশম শ্রেণির ইতিহাস ও পৌরনীতি বই। আন্তর্জাতিক অংশে আরো তথ্য জানার জন্য ড. তারেক শামসুর রেহমানের বিশ্বরাজনীতির ১০০ বছর বইটি দেখতে পারেন। সংবিধান সাধারণ জ্ঞানের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অংশ। সংবিধান প্রণয়নের ইতিহাস, গুরুত্বপূর্ণ অনুচ্ছেদগুলো এবং সংশোধনীগুলো ভালো করে পড়তে হবে। বাংলাদেশ অর্থনৈতিক সমীক্ষা ২০১৭ থেকে বাছাই করে কিছু তথ্য পড়ে নিতে হবে। বাংলাদেশ ও বিশ্বের দুটি মানচিত্র সংগ্রহে না থাকলে আজই কিনে ফেলুন। এতে চোখ বুলালেও প্রস্তুতিতে কাজে দেবে। সাধারণ জ্ঞান সব সময় পরিবর্তন হতে থাকে। এদিকে খেয়াল রাখতে হবে। আর যা বর্তমানে প্রাসঙ্গিকতা হারিয়েছে, তা পড়ার দরকার নেই। ঐতিহাসিক কোনো ঘটনার প্রেক্ষাপটসহ পড়তে চেষ্টা করুন। এতে গল্পের মতো তা মনে রাখা যায়।

পত্রিকা, ইন্টারনেটে বা অন্য কোথায় নতুন কোনো গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পেলে তা নোট খাতায় টুকে রাখবেন। টপিক ধরে গ্রুপ স্টাডি করতে পারেন। বাংলাদেশ বিষয়াবলি ও আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি পড়ার জন্য প্রতিদিন সময় বরাদ্দ রাখবেন। নিয়মিত চর্চা না করলে সাধারণ জ্ঞানের অনেক কিছুই ভুলে যেতে পারেন। গুরুত্বপূর্ণ জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সংস্থা বা প্রতিষ্ঠানের বর্তমান প্রধানদের নাম ও তাঁদের সর্বশেষ সম্মেলন কোথায়, তা টুকে রাখুন। সাধারণ জ্ঞানের প্রস্তুতির জন্য মডেল টেস্ট দারুণ সহায়ক হতে পারে। লাইব্রেরিতে অযথা ছোটাছুটি না করে ঘরে বসেই প্রতিদিন যদি দু-তিন সেট মডেল টেস্ট দেন, দেখবেন আত্মবিশ্বাসও অনেক বেড়ে গেছে। সাধারণ জ্ঞান সাধারণই তো! নিজের প্রতি বিশ্বাস রাখুন, পরীক্ষা নিশ্চয়ই ভালো হবে।

 

পত্রিকা পড়লে  প্রস্তুতি অনেকটাই হয়ে যায়

অধ্যাপক ড. এমরান কবির চৌধুরী

সাবেক সদস্য

বাংলাদেশ সরকারি কর্মকমিশন (পিএসসি)

যারা বিসিএস পরীক্ষা দেবে, তাদের সবার আগে জানতে হবে দেশ সম্পর্কে। দেশের কয়টি জেলা, কয়টি উপজেলা, ভাষা আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস, স্বাধীনতার পরের নানা বিষয়, সংবিধান, ভৌগোলিক অবস্থা, ঐতিহ্য, কৃষ্টি ও সভ্যতা, অর্থনীতি, শিল্প, বাণিজ্য, কৃষি, সরকার ও রাজনৈতিক ব্যবস্থা সম্পর্কে জানতে হবে। বাংলাদেশের নদ-নদীর নাম, গ্রামের সংখ্যা, থানার সংখ্যা ইত্যাদি বেসিক থেকেও প্রশ্ন থাকে। সাম্প্রতিক ঘটনাবলি থেকেও কিছু প্রশ্ন থাকে। আন্তর্জাতিক বিষয়াবলিতে জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো, আঞ্চলিক, অর্থনৈতিক ও সামরিক জোট, বিশ্বরাজনীতি, আলোচিত যুদ্ধ, বিতর্কিত দ্বীপ, সীমারেখা, প্রণালী, মুদ্রা ও রাজধানী, আন্তর্জাতিক দিবস, বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সম্মেলন, পুরস্কার, সম্মাননা, খেলাধুলা, বিশ্বের সাম্প্রতিক ও চলমান ঘটনাগুলো থেকে প্রশ্ন আসে। বিভিন্ন দেশ, মহাদেশ সম্পর্কে ভালো ধারণা থাকতে হবে। বিশ্বের আলোচিত ঘটনা ও সমস্যা, মধ্যপ্রাচ্য, ইউরোপসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ঘটা সাম্প্রতিক ঘটনা জানতে হবে। যেমন—বর্তমানে সবচেয়ে আলোচিত ইস্যু রোহিঙ্গা সংকট। রোহিঙ্গা প্রসঙ্গে প্রশ্ন আসতে পারে।

সাধারণ জ্ঞানের প্রস্তুতির জন্য নিয়মিত পত্রিকা পড়তে হবে। কমপক্ষে দুটি বাংলা ও একটি ইংরেজি পত্রিকা পড়তে হবে। পত্রিকা পড়লে সাধারণ জ্ঞানের প্রস্তুতি অনেকটাই হয়ে যায়। সাধারণ জ্ঞানের অনেক তথ্য পাওয়া যায় ওয়েবসাইটে। অনেক ভুল তথ্য থাকে ইন্টারনেটে, এ বিষয়েও সতর্ক থাকতে হবে।


মন্তব্য