kalerkantho


আশ্রয়দাতার বাড়িতে ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি   

৮ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



আশ্রয়দাতার বাড়িতে ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ

ঝুমা আক্তার

মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার জয়মন্টপ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী ঝুমা আক্তারের (১৩) লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার আশ্রয়দাতার বাড়িতে তার গলায় দড়ি দিয়ে ঝোলানো লাশ পাওয়া গেছে।

এটি হত্যা নাকি আত্মহত্যা, তা নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ধল্লা গ্রামের রিয়াজুল হকের মেয়ে ঝুমা আক্তার। তার মা কাঞ্চনমালা বিদেশে থাকেন। ঝুমা গত তিন বছর জয়মন্টপের এবারত হোসেনের বাসায় আশ্রিতা হিসেবে থাকত। এবারত স্থানীয় সংসদ সদস্য কণ্ঠশিল্পী মমতাজ বেগমের বড় ভাই। এবারত হোসেনও গান-বাজনা করেন। ঝুমা এই বাড়ির গৃহকর্মীর পাশাপাশি লেখাপড়া করে। গত পিইসি পরীক্ষায় সে অংশ নেয়। এবারতের মেয়ে এনাতাজ ঝুমার সহপাঠী।

ছেলে ফিরোজ সিংগাইর কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র।

এবারত হোসেন জানান, বৃহস্পতিবার ঘুম থেকে উঠে ঝুমা রান্নাবান্না করে। এবারত তাঁর স্ত্রী ফরিদা বেগম, ছেলে-মেয়ে ও ঝুমাসহ খাওয়া দাওয়া করেন। এরপর গৃহকর্তা ছেলেকে নিয়ে তাঁদের আরেকটি বাড়িতে যান। খাওয়াদাওয়ার পর তাঁর স্ত্রী ও মেয়ে বাড়ির আঙিনায় রোদ পোহাচ্ছিল। সকাল ১০টার দিকে ফিরোজ বাড়িতে ফিরে তাঁর ঘরে ঢুকে ঝুমাকে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলতে দেখেন। এবারত বলেন, এটি আত্মহত্যা। তবে এর কারণ সম্পর্কে তিনি কিছু বলতে পারেননি।

ঝুমার কৃষক বাবার সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। তবে তার মামা আবু সাইদ এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশ উদ্ধার করেন সিংগাইর থানার উপপরিদর্শক জিয়াউদ্দিন উজ্জ্বল। তিনি জানান, ঝুমার মৃতদেহ ঝুলন্ত অবস্থায় পান। তাঁরা ঝুলন্ত অবস্থা থেকে নামান। ফ্যানের সঙ্গে একটি শাড়ি কাপড় ঝুমার গলায় জড়ানো ছিল। তিনি বলেন, ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত হওয়া যাবে।


মন্তব্য