kalerkantho


ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল

একমাত্র মেশিন তা-ও বিকল

নিজস্ব প্রতিবেদক, ময়মনসিংহ   

১ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের একমাত্র সিটি স্ক্যান মেশিনটি ১০ দিন ধরে বিকল। এতে রোগীরা চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছে। বাধ্য হয়ে তারা বাড়তি টাকা দিয়ে বাইরের কোনো মেডিক্যাল থেকে এই পরীক্ষা করাচ্ছে।

ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, হাসপাতালের একমাত্র সিটি স্ক্যান মেশিনটি রেডিওলজি অ্যান্ড ইমেজিং বিভাগের আওতায়। মাথার আঘাত, বিশেষ করে ব্রেন স্ট্রোকের রোগীদের চিকিৎসায় এ মেশিনটি জরুরিভাবে ব্যবহার করা হয়। বাইরের কোনো বেসরকারি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে এ পরীক্ষা করালে রোগীদের বাড়তি টাকা গুনতে হয়। এ ছাড়া রোগীকে টানাটানিতে ভোগান্তি পোহাতে হয় স্বজনদেরও। হাসপাতাল সূত্র জানায়, গত ১৮ ফেব্রুয়ারি মেশিনটি নষ্ট হয়ে যায়। এর আগে ২০০৯ সালে মেশিনটির টিউব নষ্ট হলে তা ৫৬ লাখ টাকা ব্যয়ে মেরামত করা হয়।

হাসপাতালের রেডিওলজি অ্যান্ড ইমেজিং বিভাগের টেকনোলজিস্ট গণেশ চন্দ্র বাড়ৈ বলেন, ‘মেশিনটি বিকল হওয়ার আগে প্রতিদিন ৫০ থেকে ৬০টি সিটি স্ক্যান পরীক্ষা করা যেত। এখন সেসব রোগী ফিরে যাচ্ছে।’ জানা গেছে, হাসপাতালে দুই হাজার টাকার বিনিময়ে সিটি স্ক্যানের পরীক্ষা করানো সম্ভব হলেও বাইরে সাড়ে তিন হাজার টাকার প্রয়োজন হয়।

হাসপাতালের উপপরিচালক লক্ষ্মী নারায়ণ মজুমদার বলেন, গত ১৮ ফেব্রুয়ারি মেশিনটি নষ্ট হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়। ১৯ ফেব্রুয়ারি সিমেন্স কম্পানির প্রকৌশলী জুনায়েদের নেতৃত্বে একটি টিম আসে। তারা মেশিনটির টিউব ও কার্বন ব্রাশ অকেজো হওয়ার কথা জানায়। মেশিনটি মেরামতে প্রায় ৭২ লাখ টাকার চাহিদাপত্র দিয়েছে ওই দলটি। ২০ ফেব্রুয়ারি এই টাকা বরাদ্দ চেয়ে মন্ত্রণালয়ে চিঠি দেওয়া হয়েছে।



মন্তব্য