kalerkantho


গফরগাঁওয়ে শিক্ষকের ফাঁদে অর্ধশত পরীক্ষার্থী

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



গফরগাঁওয়ের রৌহা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও সাবেক জামায়াত নেতা মারুফ আহমেদের ফাঁদে পড়ে প্রায় অর্ধশত এসএসসি পরীক্ষার্থী প্রবেশপত্র পায়নি। ফলে তাদের পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার বিষয়টি অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা জানায়, রৌহা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মারুফ আহমেদ তাঁর বিদ্যালয় থেকে নানা প্রলোভন দেখিয়ে উথুরী নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১৬ জনসহ বিভিন্ন বিদ্যালয়ের প্রায় অর্ধশত এসএসসি পরীক্ষার্থীর ফরম পূরণ করান। এ জন্য প্রতি শিক্ষার্থীর কাছ থেকে দুই হাজার ৫০০ টাকা করে নেন তিনি। কিন্তু পরীক্ষার সময় ঘনিয়ে এলেও এখনো কেউ প্রবেশপত্র পায়নি। উথুুরী গ্রামের মিম, জান্নাত, শামছুন্নাহার, স্বর্ণা; ধামাইল গ্রামের সজীব, হাজেরা ও ঝুমুর জানায়, তারা উথুরী নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইয়াসমিন সুলতানা পপির মাধ্যমে রৌহা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণ করে। কিন্তু তাদের কেউ পরীক্ষার প্রবেশপত্র পায়নি। তারা পরীক্ষা দিতে পারবে কি না তাও জানে না। এ ব্যাপারে কোনো শিক্ষকের সাহায্যও পাচ্ছে না। সবাই মোবাইল বন্ধ করে রেখেছেন। পরে তারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে গেলে বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

এ ব্যাপারে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে রৌহা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মারুফ আহমেদ ও উথুরী নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইয়াসমিন সুলতানা পপির মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বেলায়েত হোসেন বলেন, প্রতিবছরই মারুফ আহমেদ অবৈধ পন্থা অবলম্বন করে এসএসসি শিক্ষার্থীদের ফরম পূরণ করান। এ বিষয়ে আগেও তাঁকে সচেতন করা হয়েছে। এখন শিক্ষার্থীদের জন্য কী করা যায়, তা খোঁজ নিয়ে দেখা হচ্ছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ডা. শামীম রহমান বলেন, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য বলা হয়েছে।


মন্তব্য