kalerkantho


ডায়েট

মাইগ্রেন কী খাবেন কী খাবেন না

মাইগ্রেন থাকলে কিছু খাবার বাদ দিয়ে খেলে অনেকটাই ভালো থাকা যায়। যেসব খাবার খাবেন ও বাদ দেবেন—জানালেন পুষ্টিবিদ এ বি সিদ্দিকী

১৪ আগস্ট, ২০১৭ ০০:০০



মাইগ্রেন কী খাবেন কী খাবেন না

মাইগ্রেনের সমস্যা থাকলে দুধ পুরোপুরি বাদ দিতে হবে

মাইগ্রেনের সমস্যায় কপালের অর্ধেক অংশজুড়ে মাথাব্যথা হয়। মাথাব্যথার সঙ্গে বমি ভাব থাকে।

তীব্র আলো ও শব্দ সহ্য হয় না। মাইগ্রেন তাড়াতাড়ি কমে  না, সাধারণত কয়েক ঘণ্টা থেকে তিন দিনের মতো এর প্রকোপ থাকে।

কেন হয়

অনেক সময় খাবার, পারফিউমের গন্ধ, সিগারেটের ধোঁয়া, স্ট্রেস, অতিরিক্ত কম ঘুম বা খুব গরম বা ঠাণ্ডা থেকেও মাইগ্রেনের সমস্যা দেখা দিতে পারে। তবে খাবার ও নিয়ম মেনে চললে মাইগ্রেন অনেকটাই প্রতিরোধ করা সম্ভব।

কী খাবেন

লাল চাল, খেজুর, ফল। রান্না করা সবুজ, হলুদ ও কমলা রঙের সবজি।

পর্যাপ্ত পানি, হারবাল টি। অল্প পরিমাণে লবণ ও আদা খেতে পারেন।

কী খাবেন না

টমেটো, সাইট্রাসজাতীয় ফল, মাখন, দুধ, চকোলেট, ডিম, মাংস, গমজাতীয় খাবার, যেমন রুটি, পাস্তা, ব্রেড ইত্যাদি।

এ ছাড়া বাদাম, পেঁয়াজ, আপেল, কলা। বেভারেজের মধ্যে অ্যালকোহলসমৃদ্ধ বেভারেজ, বিশেষ করে রেড ওয়াইন। কফি, চা ও কোমল পানীয় কম পরিমাণ। এ ছাড়া বোতলজাত ঠাণ্ডা পানীয় খাওয়ার আগে ভালো করে লেবেল চেক করে নিন। মোনোসোডিয়াম গ্লুটামেট, নাইট্রাইট রয়েছে—এ রকম পানীয় বাদ দিন। এ ধরনের খাবার মাইগ্রেনের সমস্যা বাড়িয়ে তোলে ও ন্যাচারাল হরমোন ব্যালান্সে সমস্যা করে।

খেয়াল রাখুন

যেসব খাবারে মাইগ্রেন দেখা দেয় তা পুরোপুরি বাদ দিন।

কোনো বেলার খাবারই বাদ দেওয়া যাবে না। বিশেষ করে সকালের নাশতা কখনোই বাদ দেওয়া যাবে না।   অনেকক্ষণ না খেয়ে থাকলে মাইগ্রেনের সমস্যা দেখা দেয়। সময়মতো ঘুমাতে হবে।

ঘরোয়া উপায়ে সমাধান

আদার টুকরা বা আদার রস খেতে পারেন। দিনে দুবার আদা মেশানো পানি পান করুন।

ম্যাগনেসিয়ামসমৃদ্ধ খাবার যেমন বাদামি চাল, বার্লি, সবুজ শাকসবজি, বিশেষত পালংশাক নিয়মিত খান।

ক্যালসিয়াম ও ভিটামিন ‘ডি’ মাইগ্রেন প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে। তিল, রাগি আটা, বিট, সবুজ সবজিতে প্রচুর ক্যালসিয়াম রয়েছে।

প্রতিদিন রোদে ১০ মিনিট থাকতে পারলে ভালো হয়। সম্ভব না হলে ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে ভিটামিন ‘ডি’ সাপ্লিমেন্ট খেতে পারেন।

মেনোপজের সময় ইস্ট্রোজেন হরমোনের ভারসাম্যের অভাবের কারণে অনেক সময় মাথা ধরে। ফাইবারসমৃদ্ধ খাবার খান। লো ফ্যাট ডায়েট মেনে চলুন।

মাইগ্রেনের সমস্যা হলে আলু, ভাতের মতো স্টার্চ জাতীয় খাবার খান। ফল, ডুমুর খেতে পারেন।


মন্তব্য