kalerkantho


বিএনপির নোমান খসরু মুখোমুখি

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১৭ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



বিএনপির নোমান খসরু মুখোমুখি

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রাম-১০ আসনে (হালিশহর-ডবল মুরিং-পাহাড়তলী ও খুলশী থানা এলাকা) দলের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন চান বিএনপির হেভিওয়েট প্রার্থী আবদুল্লাহ আল নোমান ও আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী।

২০০৮ সালের নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে নগরীর হালিশহর-ডবল মুরিং-পাহাড়তলী ও খুলশী থানা এলাকা নিয়ে গঠন করা হয় চট্টগ্রাম-১০ আসন। নতুন সীমানা নির্ধারণের আগে এই আসনটি ছিল চট্টগ্রাম-৮।

১৯৯১ সালে চট্টগ্রাম-৮ আসন থেকে নির্বাচন করেছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। পরে উপনির্বাচনে সংসদ সদস্য হন আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী। বর্তমানে তিনি বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য।

২০০৮ সালে সীমানা পুনর্নির্ধারণের পর এই আসনে বিএনপির প্রার্থী হন দলের ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান। দলের সিদ্ধান্তেই নিজের দীর্ঘ সময়ের নির্বাচনী এলাকা কোতোয়ালি-বাকলিয়া আসন পরিবর্তন করে চট্টগ্রাম-১০ আসন থেকে নির্বাচন করেন তিনি। ওই নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ডা. আফসারুল আমীনের কাছে হেরে যান তিনি। তবে নোমান ১০ বছর ধরে এই আসনে নির্বাচনকেন্দ্রিক দলীয় কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে আসছেন।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট বিএনপিকে নিয়ে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার ঘোষণা দেওয়ার পর হঠাৎ করেই বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী চট্টগ্রাম-১০ ও চট্টগ্রাম-১১ (বন্দর-পতেঙ্গা-হালিশহরের একাংশ) আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য দলীয় মনোনয়ন ফরম নিয়েছেন। আর নোমান নিয়েছেন শুধু চট্টগ্রাম-১০ আসনের জন্য।

একই আসন (চট্টগ্রাম-১০) থেকে বিএনপির দুই হেভিওয়েট প্রার্থী মনোনয়ন ফরম নেওয়ায় স্থানীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে এক ধরনের বিভ্রান্তি তৈরি হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন মহানগরের একাধিক নেতা।

নোমান বলেন, তিনি শুধু একটি আসন থেকেই মনোনয়ন চাইবেন। এই আসনে মনোনয়ন পাবেন বলে তিনি আশাবাদী। মনোনয়ন না পেলে তিনি নির্বাচন করবেন না। তিনি আরো বলেন, ‘২০০৮ সালে ১১৩টি ভোটকেন্দ্রের ১০০টিতে আমি এগিয়েছিলাম। ১৩টি কেন্দ্রে ভোট কেড়ে নিয়ে আমাকে মাত্র আট হাজার ভোটে হারিয়ে দেওয়া হয়েছিল। এবার দলের মনোনয়ন পেলে এবং সুষ্ঠু নির্বাচন হলে এই আসনে আমি অবশ্যই জিতব।’

চট্টগ্রাম-১০ আসন থেকে দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহের বিষয়ে জানতে আমীর খসরুর মোবাইল ফোনে একাধিকবার ফোন করলেও তিনি ধরেননি। পরে তাঁর ব্যক্তিগত সহকারী মোহাম্মদ সেলিম বলেন, ‘চট্টগ্রাম-১০ আসনে আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীর জন্য মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সহসভাপতি শামসুল আলম। স্যার নিজে ফরম নেননি। এলাকার নেতারা ভাবছেন, স্যার এই আসনে প্রার্থী হলে ভালো হবে।’



মন্তব্য