kalerkantho


রাজবাড়ী

বিএনপিহীন মাঠে লড়াই আওয়ামী লীগ-জাপার

রাজবাড়ী প্রতিনিধি   

১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০



উপজেলা নির্বাচন উপলক্ষে রাজবাড়ীতে মাঠপর্যায়ে নেতাকর্মীদের মাঝে উৎসাহ-উদ্দীপনা বিরাজ করছে। এরই মধ্যে দলীয় সিদ্ধান্তের আলোকে পাঁচটি উপজেলায় সম্ভাব্য প্রার্থীদের তালিকা চূড়ান্ত করেছে আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টি (জাপা), যদিও মাঠে নেই বিএনপি। বিএনপি নেতারা জানিয়েছেন, এ সরকারের অধীনে তাঁরা আর কোনো নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবেন না।

আওয়ামী লীগের দলীয় সূত্রে জানা গেছে, রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলায় একক চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসেবে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শফিকুল মোর্শেদ আরুজের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। এরই মধ্যে তিনি কেন্দ্র থেকে দলীয় মনোনয়নপত্রও সংগ্রহ করেছেন। সেই সঙ্গে ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসেবে পাংশা উপজেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক ও বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান মোস্তফা মাহমুদ হেনা মুন্সী এবং সংরক্ষিত নারী ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে পাংশা পৌর আওয়ামী লীগের সদস্য ও বর্তমানে মাছপাড়া বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা সফুরা খাতুনের নাম স্থানীয় আওয়ামী লীগ চূড়ান্ত করেছে।

এ ছাড়া রাজবাড়ী সদর উপজেলায় ভোটের মাধ্যমে চেয়ারম্যান প্রার্থী চূড়ান্ত করেছে আওয়ামী লীগ। চেয়ারম্যান পদে দলটি তিনজনের নাম কেন্দ্রে পাঠিয়েছে। তাঁরা হলেন রাজবাড়ী পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম শফি, জেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক এস এম নওয়াব আলী ও সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট ইমদাদুল হক বিশ্বাস। ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছেন পৌর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অ্যাডভোকেট খান মো. জহুরুল হক ও জেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি মীর মাহফুজা খাতুন মলি।

গোয়ালন্দ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও দৌলতদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম মণ্ডল, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম মণ্ডল ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. নুরুজ্জামান মিয়ার নাম দেওয়া হয়েছে। ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান চৌধুরী, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আব্দুল বাতেন ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুববিষয়ক সম্পাদক ফজলুল হক এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে আওয়ামী লীগ কর্মী নাজমা বেগম, নারগীস পারভীন ও গোয়ালন্দ উপজেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি সাহিদা আক্তারের নাম এসেছে।

বালিয়াকান্দি উপজেলায় চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসেবে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শামছুল আলম মিয়া সুফি, সহসভাপতি ও বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আবুল কালাম আজাদ ও রাজবাড়ী জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অধ্যাপক ফকরুজ্জামান মুকুটের নাম কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে।

কালুখালীতে চেয়ারম্যান পদে সাতজনের নাম কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে। তাঁরা হলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বর্তমান উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী সাইফুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও সাওরাইল ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম (আলী), উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও রতনদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মেহেদী হাচিনা পারভীন, উপজেলা আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ মো. মোক্তার হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও মৃগী ইউপি চেয়ারম্যান মো. শহিদুজ্জামান সাগর, মদাপুর ইউপি আওয়ামী লীগের সহসভাপতি এ বি এম রোকনুজ্জামান ও ন আ মু জুলফিকার আলী।

অপরদিকে গত শনিবার রাতে জেলা জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় জেলার পাঁচটি উপজেলার প্রার্থীদের নামের তালিকা চূড়ান্ত করা হয়েছে। জেলা জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট খন্দকার হাবিবুর রহমান বাচ্চু বলেন, গোয়ালন্দে চেয়ারম্যান পদে উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি হামিদুল হক বাবলু, ভাইস চেয়ারম্যান পদে হেলাল মাহমুদ ও ফিরোজ আহম্মেদকে প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। পাংশায় চেয়ারম্যান পদে জেলা জাপার সদস্য তজিবর রহমান, ভাইস চেয়ারম্যান পদে জেলা জাপার সদস্য কাজী কাউছার আহম্মেদের নাম এসেছে। কালুখালীতে চেয়ারম্যান পদে জেলা জাপার সদস্য আনিসুর রহমান প্রার্থী হয়েছেন। বালিয়াকান্দিতে চেয়ারম্যান পদে উপজেলা জাপার সদস্যসচিব মোস্তাফিজুর রহমান ও ভাইস চেয়ারম্যান পদে জেলা জাপার সদস্য জাকির হোসেন এবং রাজবাড়ী সদর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে জেলা জাপার সদস্যসচিব সাহাদৎ হোসেন মিল্টনের নাম ঘোষণা করা হয়েছে।

এ ছাড়া জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি কমরেড জ্যোতি শংকর ঝন্টু জানান, তাঁরা জেলার কিছু উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী দেওয়ার কথা ভাবছেন।



মন্তব্য