kalerkantho

বিশ্বের যত বিদ্রোহ

১১ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



বিশ্বের যত বিদ্রোহ

১৯৫৪ সালে রাজশাহীর জনসভায় যাচ্ছেন হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। ছবি : শিল্পী লুৎফর রহমান

১৯৪৭

♦ মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ পাকিস্তানের প্রথম গভর্নর জেনারেল, খাজা নাজিমুদ্দীন পূর্ব পাকিস্তানের মুখ্যমন্ত্রী

♦ ঢাকায় তমদ্দুন মজলিস গঠিত

 

১৯৪৯

♦ আওয়ামী মুসলিম লীগের প্রতিষ্ঠা : এর প্রেসিডেন্ট মওলানা ভাসানী গ্রেপ্তার

 

১৯৪৮

♦ পূর্ব পাকিস্তান মুসলিম ছাত্রলীগ গঠিত

♦ পাকিস্তান গণপরিষদে বাংলা ভাষার দাবি প্রত্যাখ্যান

♦ উর্দুকে একমাত্র রাষ্ট্রভাষা করার ঘোষণা জিন্নাহর

♦ জিন্নাহর মৃত্যু, খাজা নাজিমুদ্দীন গভর্নর জেনারেল

♦ সাহিত্য সম্মেলনে ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহর ঘোষণা : ‘আমরা বাঙালি’

♦ কারাগারে কমিউনিস্ট রাজবন্দিদের অনশন

শহীদ আসাদ

১৯৫০

♦ শেখ মুজিবুর রহমান গ্রেপ্তার

♦ ইলা মিত্রের নেতৃত্বে নাচোলে সাঁওতাল বিদ্রোহ

♦ ঢাকায় সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা

♦ রাজশাহী জেলের খাপরা ওয়ার্ডে গুলিতে নিহত ৭

 

১৯৫১

♦ জমিদারি প্রথার বিলোপ

♦ গুলিতে লিয়াকত আলীর মৃত্যু

 

১৯৫২

♦ রাষ্ট্রভাষা একমাত্র উর্দুর পক্ষে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী খাজা নাজিমুদ্দীনের ঘোষণা

♦ মওলানা ভাসানীর নেতৃত্বে সর্বদলীয় রাষ্ট্রভাষা সংগ্রাম পরিষদ গঠিত

♦ রফিক, সালাম, জব্বার, বরকত ও অহিউল্লাহ শহীদ (২১ ফেব্রুয়ারি)

 

১৯৫৩

আওয়ামী লীগের প্রথম কাউন্সিল অধিবেশন

যুক্তফ্রন্ট গঠিত

 

১৯৫৪

♦ প্রাদেশিক আইনসভা নির্বাচনে যুক্তফ্রন্টের জয়, ছয় মন্ত্রীসহ মুসলিম লীগের পরাজয়

♦ গণপরিষদে বাংলা ও উর্দুকে রাষ্ট্রভাষা ঘোষণা

♦ আদমজী মিলে দাঙ্গায় নিহত ৪০০

♦ ফজলুল হক মন্ত্রিসভা বাতিল, বগুড়ার মোহাম্মদ আলীর মন্ত্রিসভায় সোহরাওয়ার্দী আইনমন্ত্রী

 

১৯৫৫

♦ পূর্ব বাংলার নাম পূর্ব পাকিস্তান

♦ পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী মুসলিম লীগ থেকে ‘মুসলিম’ কথাটি বাদ

♦ বাংলা একাডেমির প্রতিষ্ঠা

 

১৯৫৬

♦ গভর্নর এ কে ফজলুল হক, মুখ্যমন্ত্রী আতাউর রহমান খান

♦ সোহরাওয়ার্দী পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী (১২ সেপ্টেম্বর)

১৯৫৭

♦ কাগমারী সম্মেলন

♦ আওয়ামী লীগ থেকে মওলানা ভাসানীর পদত্যাগ, ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টির (ন্যাপ) জন্ম

 

১৯৫৮

♦ সামরিক শাসন জারি, আইয়ুব খান

    প্রেসিডেন্ট

 

১৯৬০

♦ আইয়ুব খানের মৌলিক গণতন্ত্র

 

১৯৬১

♦ সরকারের আপত্তি সত্ত্বেও রবীন্দ্র শতবার্ষিকী উদ্‌যাপন

 

১৯৬২

♦ শিক্ষা কমিটির রিপোর্ট বাতিলের দাবিতে ঢাকায় বিক্ষোভ, নিহত ২ (১৭ সেপ্টেম্বর)

♦ সোহরাওয়ার্দী গ্রেপ্তার

 

১৯৬৪

♦ নারায়ণগঞ্জে দাঙ্গা, প্রতিরোধে ‘পূর্ব পাকিস্তান রুখিয়া দাঁড়াও’ ইশতেহার প্রচার

 

১৯৬৫

♦ পাকিস্তান-ভারত যুদ্ধ

 

১৯৬৬

♦ লাহোরে শেখ মুজিবের ছয় দফা দাবি উত্থাপন

♦ শেখ মুজিব, তাজউদ্দীন, তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া গ্রেপ্তার

 

১৯৬৭

♦ রেডিও পাকিস্তানে রবীন্দ্রসংগীত

    প্রচার নিষিদ্ধ

 

১৯৬৮

♦ শেখ মুজিবকে জেল থেকে মুক্তি দিয়ে ঢাকা সেনানিবাসে আটক

♦ রাষ্ট্র বনাম শেখ মুজিব মামলা (আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা) শুরু

 

১৯৬৯

♦ ছাত্র আসাদুজ্জামান নিহত

♦ স্কুলছাত্র মতিউর নিহত

♦ গণ-অভ্যুত্থান

♦ আগরতলা মামলা প্রত্যাহার (২২ ফেব্রুয়ারি)

♦ কেন্দ্রীয় ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ কর্তৃক শেখ মুজিবুর রহমানকে ‘বঙ্গবন্ধু’ উপাধি প্রদান

♦ শেখ মুজিব কর্তৃক পূর্ব পাকিস্তানের ‘বাংলাদেশ’ নামকরণ (৫ ডিসেম্বর)

 

১৯৭০

♦ সামুদ্রিক জলোচ্ছ্বাসে ১০ লাখ মানুষের মৃত্যু (১২ নভেম্বর)

♦ সাধারণ নির্বাচন (৭ ডিসেম্বর), ১৬৯ আসনের মধ্যে আওয়ামী লীগ ১৬৭টিতে জয়ী

♦ প্রাদেশিক ও জাতীয় পরিষদে আওয়ামী লীগের নিরঙ্কুশ জয়

১৯৭১

১২ জানুয়ারি

♦  ইয়াহিয়া-মুজিব বৈঠক

২৭ জানুয়ারি

♦ ঢাকায় মুজিব-ভুট্টো আলোচনা

 

১৩ ফেব্রুয়ারি

♦ ৩ মার্চ ঢাকায় সংসদের অধিবেশন ডেকেছেন প্রেসিডেন্ট ইয়াহিয়া

 

১৫ ফেব্রুয়ারি

♦ বাংলা একাডেমির একুশের কর্মসূচি উদ্বোধনে শেখ মুজিব : ক্ষমতায় এলেই সর্বস্তরে বাংলা ভাষা চালু হবে

১ মার্চ

♦ অধিবেশন না পেছালে পশ্চিম পাকিস্তান অচল করে দেওয়ার হুমকি ভুট্টোর

♦ অধিবেশন অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত ঘোষণা ইয়াহিয়ার

২ মার্চ

♦ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রসভায় স্বাধীন বাংলার পতাকা উত্তোলন

♦ ঢাকায় কারফিউ ভঙ্গ, বহু হতাহত

৩ মার্চ

♦ আলোচনার আহ্বান ইয়াহিয়ার, শেখ মুজিবের প্রত্যাখ্যান

♦ প্রতিদিন ৬টা-২টা হরতাল আহ্বান

♦ পল্টন ময়দানে ছাত্রলীগের জনসভায় স্বাধীন বাংলাদেশের প্রস্তাবিত জাতীয় সংগীত পরিবেশন এবং জাতীয় পতাকা প্রদর্শন

৪ মার্চ

♦ রেডিও পাকিস্তান ঢাকার নাম ঢাকা বেতার কেন্দ্র

৬ মার্চ

♦ টিক্কা খান নতুন গভর্নর

♦ ২৫ মার্চ সংসদের অধিবেশন আহ্বান ইয়াহিয়ার

৭ মার্চ

♦ স্বাধীনতা ঘোষণা করলে যুক্তরাষ্ট্র সমর্থন করবে না বলে বঙ্গবন্ধুর ৩২ নম্বরের বাড়িতে এসে জানালেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত ফারল্যান্ড

♦ রেসকোর্সের জনসভায় বঙ্গবন্ধু বললেন : ‘এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম’

♦ টিক্কা খানকে গভর্নর পদে শপথ পড়াতে অস্বীকার হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির

৯ মার্চ

♦ পল্টনের জনসভায় পাকিস্তান ভেঙে দুই স্বতন্ত্র রাষ্ট্র গঠনের দাবি মওলানা ভাসানীর

♦ অসহযোগ আন্দোলনের নির্দেশনা জারি করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তাজউদ্দীন আহমদ।

১৫ মার্চ

♦ পূর্ব ও পশ্চিম পাকিস্তানে দুই দলের সরকার গঠনের প্রস্তাব ভুট্টোর

♦ শেখ মুজিবের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তরের দাবি পশ্চিম পাকিস্তানি নেতা আসগর খান ও খান ওয়ালির

১৬ মার্চ

♦ ঢাকায় ইয়াহিয়া-মুজিব বৈঠক

১৭ মার্চ

♦ জন্মদিনের শুভেচ্ছার জবাবে বিদেশি সাংবাদিকদের শেখ মুজিব : ‘আমি আমার জন্মদিন পালন করি না...এই দুঃখিনী বাংলায় আমার জন্মদিনই বা কী, মৃত্যুদিনই বা কী?’

♦ ইয়াহিয়া-টিক্কা খান বৈঠক

১৯ মার্চ

♦ ইয়াহিয়া-মুজিব বৈঠক

♦ বঙ্গবন্ধু বললেন : “শেষনিঃশ্বাস ত্যাগের সময়ও কলেমা পাঠের সঙ্গে ‘জয় বাংলা’ উচ্চারণ করব”

২০ মার্চ

♦ ইয়াহিয়ার সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর চতুর্থ দফা বৈঠকে সৈয়দ নজরুল ইসলাম, তাজউদ্দীন আহমদ, কামরুজ্জামান, মনসুর আলী, খন্দকার মোশতাক আহমদ ও ড. কামাল হোসেন ছিলেন। বৈঠক শেষে বঙ্গবন্ধু বললেন, এই আলোচনা অনির্দিষ্টকাল চলবে না

♦ জেনারেলদের বৈঠকে বাঙালি নিধনের নীলনকশা ‘অপারেশন সার্চলাইট’ অনুমোদন

২১ মার্চ

♦ ভুট্টো ঢাকায়

♦ আন্দোলনের গতি না কমানোর নির্দেশ বঙ্গবন্ধুর

২২ মার্চ

♦ অধিবেশন আবারও স্থগিতের ঘোষণা

♦ সংবাদপত্রের প্রথম পৃষ্ঠায় স্বাধীন বাংলাদেশের পতাকা মুদ্রণ

শহীদ মতিউর

২৩ মার্চ

♦ ইয়াহিয়া-মুজিব আলোচনা ভেঙে গেল

♦ আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ‘প্রতিরোধ দিবস’, বেতার-টেলিভিশনে ‘সোনার বাংলা’ গান, বাড়িতে বাড়িতে নতুন জাতীয় ও কালো পতাকা, রাস্তায় ‘জয় বাংলা’ আওয়াজ

২৫ মার্চ

♦ ইয়াহিয়ার সঙ্গে ভুট্টোর আলোচনা

♦ ৩২ নম্বরে জনতার ঢল, বঙ্গবন্ধুর  ঘোষণা : ‘রক্তচক্ষুকে আমরা বরদাশত করব না’

♦ রাতে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর গণহত্যা শুরু

♦ বঙ্গবন্ধুকে গ্রেপ্তার

২৬ মার্চ

♦ রাতে বেতার ভাষণে আওয়ামী লীগকে বেআইনি এবং শেখ মুজিবকে পাকিস্তানের শত্রু হিসেবে ঘোষণা করেন ইয়াহিয়া

♦ স্বাধীনতাযুদ্ধের প্রস্তুতির জন্য শেখ মুজিবের বাণী প্রচার

২৭ মার্চ

♦ চট্টগ্রামের কালুরঘাট বেতার কেন্দ্র থেকে মহান নেতা ও মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক শেখ মুজিবুর রহমানের পক্ষ থেকে ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টের মেজর জিয়াউর রহমানের স্বাধীনতার ঘোষণাপত্র পাঠ

৩১ মার্চ

♦ ভারতের লোকসভায় বাংলাদেশের প্রতি সমর্থন



মন্তব্য