kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


১৪ ইউনিয়নের ১৩টিতে নির্বাচন ১২ নভেম্বর

বাঁশখালী প্রতিনিধি   

২০ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



১৪ ইউনিয়নের ১৩টিতে নির্বাচন ১২ নভেম্বর

বাঁশখালীতে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের নতুন তারিখ ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। স্থগিত ১৪ ইউনিয়নের মধ্যে ১৩টিতে নির্বাচন হবে আগামী ১২ নভেম্বর।

মামলাজনিত কারণে সাধনপুর ইউনিয়নে নির্বাচন হচ্ছে না। আর সরল ইউনিয়নে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রশিদ আহমদ চৌধুরী চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ায় সেখানে শুধু মেম্বার ও নারী মেম্বার পদে ভোটগ্রহণ করা হবে।

এই সংক্রান্ত নির্বাচন কমিশনের আদেশটি গতকাল বুধবার উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে পৌঁছেছে।

এতে প্রার্থীদের মধ্যে ব্যাপক-উৎসাহ উদ্দীপনা ছড়িয়ে পড়েছে। গ্রামে গ্রামে আবার পোস্টার ও ব্যানার টাঙানো হচ্ছে। নির্বাচনী প্রচারে কোমর বেঁধে নেমে পড়েছেন সবাই।

বাঁশখালী উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আরিফুল ইসলাম কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘স্থগিত নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে নির্বাচন কমিশন থেকে নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে। ১২ নভেম্বর ১৩ ইউনিয়নে নির্বাচন হবে। মামলাজনিত জটিলতায় সাধনপুর ইউনিয়নে নির্বাচন হচ্ছে না। ’

তিনি জানান, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন সম্পন্ন করতে নানামুখি পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, আওয়ামী লীগ, বিএনপি, ইসলামী আন্দোলন ও ইসলামী ফ্রন্টসহ বিভিন্ন দলের প্রার্থীরা নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। ১৩ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে ৬৮ জন এবং সংরক্ষিত নারী মেম্বার ১১৯ ও সাধারণ মেম্বার পদে ৫১৭ প্রার্থী রয়েছেন। উপজেলায় মোট ভোটার ২ লাখ ৬৯ হাজার ১৫৮ জন। কেন্দ্রসংখ্যা ১৩৫ এবং বুথ ৭৫৬টি।

উল্লেখ্য, গত ৪ জুন ছিল বাঁশখালীতে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। ভোটগ্রহণের মাত্র তিন দিন আগে স্থানীয় সংসদ সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী ও তত্কালীন উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. জাহিদুল ইসলামের মধ্যে ঘটে যায় ‘অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা’। এই কারণে ২ জুন নির্বাচন স্থগিত ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। এর পর ওই নির্বাচন কর্মকর্তাকে অন্যত্র বদলি করে আরিফুল ইসলামকে নিয়োগ করা হয়।


মন্তব্য