kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন

উৎসবের আমেজ বন্দরনগরীতে

নূপুর দেব   

২০ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



উৎসবের আমেজ বন্দরনগরীতে

বিভিন্ন সড়কে বর্ণিল আলোকসজ্জা করেছে নগর আওয়ামী লীগ। ছবিটি গত সন্ধ্যায় জামালখান সড়ক থেকে তোলা। ছবি : নূপুর দেব

আওয়ামী লীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলন ঘিরে বন্দরনগরী চট্টগ্রামে দলীয় নেতাকর্মীদের মাঝে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। আগামী শনিবার ও রবিবার রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ওই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।

সরেজমিন দেখা যায়, সম্মেলন উপলক্ষে চট্টগ্রাম নগরীর গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন সড়ক ও আশপাশের এলাকায় বর্ণিল আলোকসজ্জা করা হয়েছে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং দলীয় সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি সম্বলিত ব্যানার, পোস্টার, ফেস্টুন, প্ল্যাকার্ডসহ নানা প্রচারপত্র শোভা পাচ্ছে। শুধু নগরী নয়, চট্টগ্রাম উত্তর ও দক্ষিণ জেলা, উপজেলা ও থানাগুলোতে রং বেরংয়ের আলোকসজ্জার পাশাপাশি বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার ছবি সম্বলিত পোস্টার, ব্যানার চোখে পড়ছে মোড়ে মোড়ে। ওই তিন সাংগঠনিক জেলা এবং এর আওতাধীন থানা, উপজেলা, পৌরসভা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে কার্যনির্বাহী কমিটির বর্ধিত সভার পাশাপাশি দফায় দফায় সভা হচ্ছে সম্মেলন নিয়ে। আজ বৃহস্পতিবার থেকে নেতাকর্মীদের ঢাকা যাওয়া শুরু হচ্ছে। তবে বেশির ভাগই যাবেন আগামীকাল শুক্রবার। সড়কপথের পাশাপাশি অনেকে যাচ্ছেন ট্রেনে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, চট্টগ্রামে তিন সাংগঠনিক জেলার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের মধ্যে মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী আগামী শনিবার ভোরে সড়কপথে চট্টগ্রাম থেকে ঢাকা যাবেন। সিটি মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন শুক্রবার রাতে বিমানে, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমেদ বৃহস্পতিবার বিকেলে ট্রেনে ও সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান বিমানে, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল আলম চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের প্রশাসক এম এ সালাম বিমানে যাচ্ছেন বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে। এর বাইরে তিন সাংগঠনিক জেলার আরো কিছু নেতার বিমানে ঢাকা যাওয়ার কথা রয়েছে।

সম্মেলনে চট্টগ্রাম মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ এবং সহযোগী সংগঠনের তিন হাজারের বেশি নেতাকর্মীর যাওয়ার কথা রয়েছে। এর মধ্যে কাউন্সিলর মহানগরের ১৬১ জন, উত্তর ও দক্ষিণ জেলায় ১১১ জন করে। আগামীকাল শুক্রবার বিকেলে ও রাতে ট্রেনে দলীয় নেতাকর্মীরা যাঁরা ঢাকা যাবেন তাঁদের বেশির ভাগ কমলাপুর রেলস্টেশন এলাকায় বিভিন্ন হোটেলে উঠবেন। সেখানে খাওয়া-দাওয়া করে সবাই আবার এক হয়ে মিছিল নিয়ে শনিবার সকালে সম্মেলনে যোগ দেবেন।

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমেদ গতকাল বুধবার কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘১১১ জন কাউন্সিলর, প্রায় ৭০০ ডেলিগেটসহ দেড় হাজার নেতাকর্মীর দক্ষিণ জেলা থেকে ঢাকার জাতীয় সম্মেলনে যেতে সব প্রস্তুতি গ্রহণ করেছি। জেলা, উপজেলা, পৌরসভা, ইউনিয়ন, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যে বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনা বিরাজ করছে। সবস্থানে প্রচার চলছে সম্মেলনের। বিশেষ বিশেষ স্থানে আলোকসজ্জা করা হয়েছে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনার ছবি সম্বলিত প্রচারপত্র সাঁটানো হয়েছে। ’

তিনি জানান, দক্ষিণ জেলা থেকে শতাধিক নারী নেতাকর্মী যাচ্ছেন সম্মেলনে। তাঁরা শুক্রবার বিকেলে চট্টগ্রাম থেকে মহানগর গোধূলি ট্রেনে ঢাকায় যাবেন। এছাড়া ওইদিন রাতে ঢাকা মেইল ও তুর্ণা নিশিতা ট্রেনে প্রায় ৪০০ নেতাকর্মী যাবেন। অন্যারা সড়কপথে যাবেন। প্রত্যেক উপজেলা থেকে দুটি করে বাস ঢাকায় যাবে।

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক চন্দন ধর বলেন, ‘ঢাকায় জাতীয় সম্মেলন উপলক্ষে মঙ্গলবার বিকেলে আমাদের বর্ধিত সভা হয়েছে। ১৬১ জন কাউন্সিলর, ৫০০ ডেলিগেট মিলিয়ে ৭৫০ নেতাকর্মী নগর থেকে ঢাকা যাবেন। এর বাইরেও অনেকে ব্যক্তিগতভাবে যেতে পারেন। কাউন্সিলর ও ডেলিগেটদের বেশির ভাগ ট্রেনে যাবেন। অন্যরা যাবেন সড়কপথে। ’

তিনি জানান, সম্মেলন উপলক্ষে মহানগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে চট্টগ্রাম বিমানবন্দর এলাকাসহ নগরের বিভিন্ন স্থানে আলোকসজ্জা করা হয়েছে।

গত সোমবার থেকে আলোকসজ্জার কাজ শুরু হয়। বুধবারের মধ্যে নির্ধারিত সব স্থানে আলোকসজ্জা শেষ হওয়ার কথা। সম্মেলন ঘিরে নেতাকর্মীদের মধ্যে চাঙ্গাভাব দেখা দিয়েছে।

চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও রাউজান পৌরসভার চেয়ারম্যান দেবাশীষ পালিত বলেন, ‘উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীরা সম্মেলন উপলক্ষে উজ্জীবিত। দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে কেন্দ্রীয় সম্মেলন নিয়ে যে উৎসাহ-উদ্দীপনা বিরাজ করছে তা ধরে রাখতে হবে। সম্মেলনে ১১১ জন কাউন্সিলর অংশ নেবেন। এছাড়া ডেলিগেট ও অতিথি মিলিয়ে প্রায় এক হাজার নেতাকর্মী সড়ক ও রেলপথে ঢাকা যাচ্ছেন। ইতোমধ্যে সব প্রস্তুতি গ্রহণ করেছি। ’

তিনি জানান, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের আওতাধীন উপজেলা, থানা, পৌরসভা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়েও ২০তম জাতীয় সম্মেলন উপলক্ষে প্রচার চলছে। সবাই এখন ঢাকায় যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

সরেজমিনে দেখা গেছে, নগরীর জামালখান, চেরাগীপাহাড়, আন্দরকিল্লা, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন ভবন, সিরাজদ্দৌলা সড়ক, কোতোয়ালী মোড়, নিউমার্কেট গোল চত্বর, দেওয়ানহাট, টাইগারপাস, লালখানবাজার, জিইসি মোড়, আগ্রাবাদ বাদামতল, ইপিজেড, মুরাদপুর, ২ নম্বর গেট, অক্সিজেন, বহদ্দারহাট, অলংকার, কাস্টমস মোড় এলাকায় ব্যাপক আলোকসজ্জা করা হয়েছে। রংবেরঙের এসব আলোকসজ্জা সড়কে যাতায়াতকারীদের আকৃষ্ট করছে। চলছে সেলফি তোলা।


মন্তব্য