kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


বিএনপি বিভক্ত মানিকছড়িতে

আবু দাউদ, খাগড়াছড়ি   

৪ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



দলের নেতৃত্ব ও কর্তৃত্ব এবং নতুন কমিটি গঠন নিয়ে মানিকছড়িতে বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের সাধারণ নেতাকর্মীরা অসন্তুষ্ট। সম্প্রতি সম্মেলন ছাড়াই উপজেলার চার ইউনিয়নে বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের কমিটি ঘোষণা করা নিয়ে দলাদলি ও ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে।

অনেকে এসব কমিটিকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে প্রতিবাদে রাস্তায় নেমেছেন। সব মিলিয়ে মানিকছড়িতে বিএনপি দুই শিবিরে বিভক্ত হয়ে পড়েছে।

অবশ্য উপজেলা বিএনপির সভাপতি এম এ করিম কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘গঠনতন্ত্র অনুসরণ করে নিয়মতান্ত্রিকভাবে এসব কমিটি গঠন এবং অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। কমিটি নিয়ে মান-অভিমান থাকলেও সহসা সব ঠিক হয়ে যাবে। ’

জানা গেছে, ২০০৮ সালের সংসদ নির্বাচনে খাগড়াছড়িতে সমীরণ দেওয়ান বিএনপির প্রার্থী হয়েছিলেন। দুর্নীতির মামলায় আরেক প্রভাবশালী নেতা সাবেক সংসদ সদস্য ওয়াদুদ ভূঁইয়া ছিলেন কারাবন্দি। এরপর থেকে মানিকছড়ি উপজেলায় বিএনপিতে দলাদলির সৃষ্টি হয়। নেতাকর্মীদের কেউ সমীরণের পক্ষে, কেউ ওয়াদুদের। সেই দলাদলি থেকেই বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের শাখা কমিটি গঠন নিয়ে চলমান বিরোধ বলে জানিয়েছেন নেতাকর্মীরা।

উপজেলা বিএনপির বিভক্ত দুটি কমিটি নিয়ে তিক্ততা ধীরে ধীরে ছড়িয়ে পড়ে উপজেলা ছাত্রদল ও যুবদলে। এর ফলে ২০০৯ ও ২০১৪ সালে অনুষ্ঠিত উপজেলা পরিষদ এবং সর্বশেষ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিএনপিতে একাধিক প্রার্থী থাকায় দলীয় প্রার্থীরা পরাজিত হন। ওই বিরোধ তৃণমূলে নেতিবাচক প্রভাব ফেলে। নির্বাচনে বিএনপির ভরাডুবি এবং দলের খারাপ অবস্থার জন্য সাধারণ নেতাকর্মীরা দায়ী করেছেন উপজেলা বিএনপির বিভক্তিকেই।

এরই মধ্যে সমপ্রতি মানিকছড়ির চার ইউনিয়নে বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের কমিটি গঠন করা হলে বিএনপির একাংশ ও ‘ত্যাগী’ নেতাকর্মীদের মাঝে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। গত ২০ সেপ্টেম্বর ঘোষিত এসব কমিটির নেতারা খাগড়াছড়িতে জেলা বিএনপির সভাপতি ওয়াদুদ ভূঁইয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। পরদিন জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম খলিল স্বাক্ষরিত অনুমোদনকৃত ইউনিয়ন কমিটিগুলোতে বেশ কজন ‘ত্যাগী’ নেতার নাম না থাকায় এবং বিতর্কিতদের নাম অন্তর্ভুক্ত হওয়ার খবরে নতুন করে ক্ষোভ দেখা দেয়। ওই দিনই উপজেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়কদের মধ্যে কয়েকজন পদত্যাগ করেন।  

উপজেলা বিএনপির একাংশের সভাপতি এস এম রবিউল ফারুক অভিযোগ করে বলেন, ‘যেখানে আমাদের নেত্রী খালেদা জিয়া দলকে শক্তিশালী করতে নির্দেশ দিয়েছেন, সেখানে খাগড়াছড়িতে বিএনপিকে নিয়ে ছিনিমিনি খেলছেন গুটিকয়েক নেতা। স্বার্থান্বেষীরা বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনগুলোকে ধ্বংস করে দিচ্ছে। ’ তিনি এ জন্য ওয়াদুদ ভূঁইয়াকে দোষারোপ করেন। এসব কমিটি অগণতান্ত্রিকভাবে গঠন করা হয়েছে উল্লেখ করে তিনি সব কমিটি প্রত্যাখ্যান করেন।

এ প্রসঙ্গে উপজেলা বিএনপির সভাপতি এম এ করিম বলেন, ‘ছাত্রদল ও যুবদলের কমিটি গঠন নিয়ে কিছুটা ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। শিগগিরই মান-অভিমান সব ঠিক হয়ে যাবে। ’ তবে গঠনতন্ত্র অনুসরণ করে নিয়মতান্ত্রিকভাবেই কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন তিনি।

খাগড়াছড়ি জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম খলিল বলেন, ‘জেলা কমিটির চেষ্টায় ইউনিয়ন কমিটিগুলো গঠন করা হয়েছে। পূর্ণাঙ্গ উপজেলা কমিটি ও ইউনিয়ন কমিটিগুলো গঠনে ব্যর্থতার কারণে ২৪ সেপ্টেম্বর মানিকছড়িতে আহ্বায়ক কমিটি বিলুপ্ত করা হয়েছে। ’

এদিকে ইউনিয়ন যুবদলের চলমান কমিটিকে না জানিয়ে নতুন কমিটি ঘোষণা করার প্রতিবাদে ২৩ সেপ্টেম্বর বিকেলে বাটনাতলী ইউনিয়নের নেতাকর্মীরা প্রতিবাদ সভা করেন। তাঁরা নতুন কমিটি প্রত্যাখ্যান এবং অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেন।


মন্তব্য