kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


‘বয়স বৈষম্য দূর করুন’

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



‘বয়স বৈষম্য দূর করুন’ স্লোগানে নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে গতকাল শনিবার আন্তর্জাতিক প্রবীণ দিবস পালিত হয়েছে। চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন, সমাজসেবা অধিদপ্তর ও বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার যৌথ উদ্যোগে কর্মসূচি পালন করা হয়।

দিনব্যাপী কর্মসূচির মধ্যে ছিল শোভাযাত্রা, আলোচনা সভা, প্রবীণদের সম্মাননা ও ভাতার বই বিতরণ।

দিবসটি উপলক্ষে সকাল ৯টায় নগরীর প্রবর্তক মোড় থেকে একটি শোভাযাত্রা বের করা হয়। জেলা প্রশাসক সামসুল আরেফিন এতে নেতৃতে দেন। শোভাযাত্রাটি গোলপাহাড় চত্বর ঘুরে শিশু একাডেমিতে শেষ হয়। পরে শিশু একাডেমি মিলনায়তনে আলোচনা সভা, প্রবীণদের সম্মাননা প্রদান ও ভাতার বই বিতরণ করা হয়। সমাজসেবা অধিদপ্তর চট্টগ্রামের উপ-পরিচালক বন্দনা দাশের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক।

জেলা প্রশাসক সামসুল আরেফিন বলেন, ‘আজকে যাঁরা নবীন আগামীতে তাঁরা হবেন প্রবীণ। প্রবীণদের শ্রদ্ধা করতে হবে। সরকার প্রবীণদের কল্যাণে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। কর্মসূচিগুলো বাস্তবায়িত করতে পারলে প্রবীণদের উপকারে আসবে। প্রত্যেক ধর্মে প্রবীণদের প্রতি শ্রদ্ধার কথা বলা হয়েছে। প্রবীণদের কল্যাণে পরিবার, বিদ্যালয় ও সমাজকে সচেতন করতে হবে। ’

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় সমাজকল্যাণ পরিষদের সদস্য এস এম মোরশেদ হোসেন, অধ্যাপক রীতা দত্ত ও সমাজকর্মী জেসমিন সুলতানা পারু। স্বাগত বক্তব্য দেন জেলা সমাজসেবা কার্যালয় চট্টগ্রামের সহকারী পরিচালক ওমর ফারুক। শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন আঞ্চলিক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র চট্টগ্রামের সহকারী পরিচালক হাসান মাসুদ।

এছাড়া প্রবীণদের মধ্যে অনুভূতি ব্যক্ত করেন শামসুন নাহার, সমাজসেবা কর্মকর্তা কামরুল পাশা ভূঁইয়া, মো. ওয়াহিদুল আলম, আবুল কাশেমসহ বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার প্রতিনিধি, সমাজের বিশিষ্ট ব্যক্তি। শতাধিক প্রবীণ ব্যক্তি অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

আলোচনা সভা শেষে জেলা প্রশাসক সিটি এলাকায় বসবাসরত প্রবীণদের মধ্যে বয়স্ক ভাতার বই বিতরণ করেন।


মন্তব্য