kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


অস্ত্রসহ তিন জলদস্যু গ্রেপ্তার, অপহৃত নয় জেলে উদ্ধার

নোয়াখালী প্রতিনিধি   

২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার মেঘনা নদীতে অভিযান চালিয়ে তিন জলদস্যুকে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার করেছে কোস্টগার্ড। এ সময় এদের আস্তানা থেকে নয় জেলেকেও উদ্ধার করা হয়।

গত রবিবার সন্ধ্যায় উপজেলার ঢালচর এলাকায় ওই অভিযান চালানো হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন উপজেলার নলচিরা ইউনিয়নের মো. মনজুরুল হকের ছেলে মো. ছারওয়ার হোসেন বাবুল (২৫), চরকিং ইউনিয়নের বাইশ নম্বর গ্রামের জাবের উদ্দিনের ছেলে আফসার আলী (২০) ও চানন্দী ইউনিয়নের আব্দুর রবের ছেলে মো. বোরহান উদ্দিন (২৪)। এ সময় জলদস্যুদের আস্তানা থেকে উদ্ধার হওয়া নয় জেলে হলেন মো. জাহাঙ্গীর হোসেন (৩০), মো. সুজন উদ্দিন (৩৫), জামাল উদ্দিন (৩০), সাহাব উদ্দিন (২৬), জালাল উদ্দিন (৩৫), টুটুল উদ্দিন (৩২), মফিজ উদ্দিন(২৭), আলাউদ্দিন মাঝি ও জলিল মাঝি। এসব জেলেকে রবিবার ভোরে মেঘনা নদী থেকে অপহরণ করে নিয়ে যায় জলদস্যুরা। তাঁদের সবার বাড়ি মনপুরা উপজেলায়। অভিযানের সময় দুটি একনলা বন্দুক, দুটি পিস্তল, একটি কাটা রাইফেল, দুটি রামদা, পাঁচটি লোহার ঢাল ও সাত রাউন্ড তাজা কার্তুজ উদ্ধার করা হয়।

হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. গোলাম ফারুক জানান, গত রবিবার রাতে ঢালচর ফকির বাহিনীর সেকেন্ড ইন কমান্ডসহ তিন জলদস্যুকে থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা হয়েছে।

হাতিয়া কোস্টগার্ডের কন্টিজেন্ট কমান্ডার লে. ওমর ফারুক জানান, বেশ কিছুদিন ধরে মেঘনার বিভিন্ন স্থানে জলদস্যুরা জেলেদের অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায় করে আসছে। রবিবার ভোরে ঢালচর এলাকা থেকে ওই নয় জেলেকে অপহরণ করে নিয়ে যায় জলদস্যুরা। এ খবর পেয়ে রবিবার সন্ধ্যায় ঢালচর ও মৌলভীরচর এলাকায় অভিযান চালিয়ে কোস্টগার্ড সদস্যরা জলদস্যু দলের তিন সদস্যকে গ্রেপ্তার করেন। এ সময় অপহৃত নয় জেলেকেও উদ্ধার করা হয়।

পুলিশের গাড়ির ধাক্কায় শিশু নিহত : হাতিয়ার আফাজিয়া বাজার সংলগ্ন হাবিবিয়া নুরানী মাদ্রাসার সামনে পুলিশবাহী মাইক্রোবাসের ধাক্কায় দ্বিতীয় শ্রেণির শিশু মো. সৈকত উদ্দিন (৮) নিহত হয়েছে। এ সময় শিশুটি সড়ক পার হচ্ছিল। গতকাল সোমবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।

পরে পুলিশ শিশুটিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত সৈকত আফাজিয়া তালুকদার গ্রামের রিকশাচালক মো. সমির উদ্দিনের ছেলে।

হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. গোলাম ফারুক জানান, চালকের অবহেলায় সরকারি কাজে রিক্যুইজিশন করা গাড়িটির ধাক্কায় শিশুটি মারা যায়। এ ব্যাপারে নিহতের বাবা গাড়ির চালক ও মালিকের বিরুদ্ধে মামলা করবেন।


মন্তব্য