kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


এলেন পাঁচ ঘণ্টা দেরিতে, ছিলেন মাত্র ১২ মিনিট!

নিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজার   

১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



সরকারের একজন সচিব মাত্র ১২ মিনিটে একটি সরকারি অফিস পরিদর্শনের কাজ শেষ করেছেন। পুরো দিনের দুটি সরকারি কর্মসূচির মধ্যে মাত্র একটিতে যোগ দিয়ে সময় দিলেন ওই ১২ মিনিট! তাও আবার নির্ধারিত সময়ের প্রায় পাঁচ ঘণ্টা বিলম্বে উপস্থিতি।

সকাল সাড়ে ১০টার অনুষ্ঠানে এলেন বিকাল ৩টা ২ মিনিটে। অনুষ্ঠানস্থল ত্যাগ করেন ৩টা ১৪ মিনিটে।

গতকাল শনিবার কক্সবাজারে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. চৌধুরী মো. বাবুল হাসানের সরকারি সফরসূচিতে এ ঘটনা ঘটে। এ প্রসঙ্গে তিনি কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘সড়কে অস্বাভাবিক যানজটের কারণে একটু বিলম্ব হয়েছে। ’

কক্সবাজার জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক প্রীতম কুমার চৌধুরী বলেন, ‘সচিব স্যারের চাকরি শেষ পর্যায়ে। আগামী মাসে তিনি অবসরে যাবেন। তিন দিনের সরকারি সফরে এসেছেন কক্সবাজারে। ইনানির বিলাসবহুল হোটেল থেকে শহরের কর্মসূচিতে যথাসময়ে যোগ দিতে পারেননি যানজটসহ নানা কারণে। ’

জানা গেছে, ঈদুল আজহার পরের দিন ১৪ সেপ্টেম্বর সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. চৌধুরী মো. বাবুল হাসানের নেতৃত্বে তিন সরকারি কর্মকর্তা কক্সবাজার সফরে আসেন। অন্যরা হলেন সমাজসেবা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ও অতিরিক্ত সচিব গাজী মো. নুরুল কবির এবং প্রকল্প পরিচালক ও উপসচিব এ কে এম ফজলুজ্জোহা। ৮ সেপ্টেম্বর সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরের পাঠানো এক চিঠিতে বলা হয়েছে, সচিবসহ তিনজনই কক্সবাজারে আসেন সরকারি সফরে।

কক্সবাজারে তিন দিনের এই সফরে সচিব, অতিরিক্ত সচিব ও উপসচিবের পাঁচটি কর্মসূচিতে যোগ দেওয়ার কথা থাকলেও যোগ দিয়েছেন তিনটিতে। গত শুক্রবার উখিয়া উপজেলার সমাজসেবা অফিস পরিদর্শনের কথা থাকলেও সেখানে যাওয়া হয়নি তাঁদের। আর গতকাল শনিবার কক্সবাজারে প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্র পরিদর্শনের কথা থাকলেও সেখানে যাননি তাঁরা।

কক্সবাজার শহর সমাজ উন্নয়ন প্রকল্পের সভাপতি এম এম সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘সমাজকল্যাণ সচিবের সমাজসেবা অফিস পরিদর্শনের সময়সূচি ছিল সকাল সাড় ১০টায়। আমাদের কম্পিউটার প্রশিক্ষণকেন্দ্রটি পরিদর্শনই ছিল তাঁর মূল কাজ। যথাসময়ে প্রশিক্ষণার্থীসহ সংশ্লিষ্ট সবাই উপস্থিত ছিলেন। কিন্তু তাঁর অস্বাভাবিক বিলম্বের কারণে ততক্ষণে অনেকে চলে গেছেন। সচিব এখানে মাত্র ১০/১২ মিনিট কাটিয়ে চলে যান। ’


মন্তব্য