kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


দুই দিনের বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠান কাল থেকে

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজের ৬০ বছর

নূপুর দেব   

১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজের ৬০ বছর

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী ও প্রাদেশিক মন্ত্রী শেখ মুজিবুর রহমান। ছবি : সংগৃহীত

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ ১৯৫৭ সালের ২০ সেপ্টেম্বর উদ্বোধন করেন তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী। ওই সময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন তৎকালীন প্রাদেশিক মন্ত্রী শেখ মুজিবুর রহমান, স্বাস্থ্যমন্ত্রী ধীরেন্দ্রলাল দত্তসহ জাতীয় ও স্থানীয় অনেক নেতা।

এমবিবিএস কোর্সে ৫০টি আসন দিয়ে যাত্রা শুরু হওয়া দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম সরকারি এই মেডিক্যাল কলেজে এখন প্রতি শিক্ষাবর্ষে এমবিবিএসে দুই শতাধিক এবং বিডিএস কোর্সে অর্ধশতাধিক দেশি-বিদেশি শিক্ষার্থী ভর্তি হন। শুধু তাই নয়, ওই কলেজে ১৯৯২ সাল থেকে ডিপ্লোমা এবং ২০০২ সাল থেকে এমডি-এমএসসহ স্নাতকোত্তরের বিভিন্ন কোর্স চালু হয়েছে। সব মিলিয়ে বর্তমানে স্নাতকোত্তরে ৩১ বিষয়ে প্রতি শিক্ষাবর্ষে পাঁচ শতাধিক চিকিৎসাক উচ্চতর ডিগ্রি নিতে ভর্তি হন। মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করা চিকিৎসাকদের মধ্যে একমাত্র বীর উত্তম উপাধিতে ভূষিত শাহ আলম চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজের ১৩তম ব্যাচের ছাত্র। তিনি নৌ-কমান্ডো ছিলেন। এছাড়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক প্রাণগোপাল দত্ত, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক অধ্যাপক এম এ ফয়েজসহ অনেক গুণীজন চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজের শিক্ষার্থী।

ঐতিহ্যবাহী এই মেডিক্যাল কলেজের ছয় দশক পূর্তি হচ্ছে আগামী ২০ সেপ্টেম্বর। এ উপলক্ষে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজে দুই দিনের বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠান শুরু হবে আগামীকাল সোমবার। এছাড়া বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা ওই কলেজের প্রাক্তন শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও চিকিৎসাকরাও সেখানে আয়োজন করছেন নানা অনুষ্ঠান। ৬০ বছর পূর্তি অনুষ্ঠান হবে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজের পাশাপাশি নিউইয়র্ক, কানাডার টরেন্টো, অস্ট্রেলিয়ার সিডনি, সৌদি আরবের রিয়াদ ও কলকাতায়। এছাড়া ঢাকা অফিসার্স ক্লাব, খুলনা মেডিক্যাল কলেজেও হবে অনুষ্ঠান। এর মধ্যে গত শুক্রবার সৌদি আরবের রিয়াদে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজের প্রাক্তন শিক্ষার্থী ও চিকিৎসাক-শিক্ষকরা জমকালো অনুষ্ঠান করেছেন।

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজের দুই দিনের অনুষ্ঠানে অর্ধকোটি টাকা খরচ হতে পারে বলে সংশ্লিষ্টরা জানান। অনুষ্ঠানে ২০ সেপ্টেম্বর দুপুরে বিভিন্ন ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য সাতজনকে সম্মাননা দেওয়া হবে। তাঁরা হলেন মুক্তিযুদ্ধে কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের জন্য শাহ আলম বীর উত্তম (মরণোত্তর), চিকিত্সাশাস্ত্রে নিউরোসার্জন অধ্যাপক এল এ কাদেরী ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ডা. প্রাণগোপাল দত্ত, রাজনীতিতে সাবেক প্রাথমিক গণশিক্ষামন্ত্রী ডা. আফছারুল আমীন, সাবেক প্রতিমন্ত্রী ও সংসদ সদস্য ডা. মোজাম্মেল হোসেন, আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. বদিউজ্জামান ভূঁইয়া এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এম এ ফয়েজ। তাঁরা চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজের ছাত্র ছিলেন।

‘শেকড়ের টানে প্রিয় প্রাঙ্গণে’ স্লোগানে ‘সিএমসি ডে ২০১৬ কাউন্টডাউন’ ১ সেপ্টেম্বর শুরু হয়েছে। ১৯ সেপ্টেম্বর সকাল ১১টায় ২০টি বিভিন্ন প্রজাতির চারাগাছ রোপণের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হবে। এর পর দুপুর ১২টা থেকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল ক্যাম্পাস ‘ক্লিন ও গ্রিন’ করবেন বর্তমান ও সাবেক শিক্ষার্থী ও বর্তমান ও সাবেক শিক্ষক-চিকিৎসাকরা। বিকেল ৫টায় বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের ফুটবল ম্যাচ, রাত ১০টায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও ডিজে পার্টির আয়োজন করা হয়েছে কলেজ মাঠে।

রাত ১২টা ১ মিনিটে ৬০টি আতশবাজি ও ফানুস ওড়ানোর মধ্য দিয়ে মূল অনুষ্ঠান শুরু হবে। ২০ সেপ্টেম্বর সকাল ৯টায় ক্যাম্পাস থেকে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হবে। সকাল সাড়ে ১০টায় ৬০ কেজি ওজনের কেক কাটা হবে। সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত আলোচনা অনুষ্ঠান এবং এর পর ওই সাতজনের হাতে সম্মাননা স্মারক তুলে দেওয়া হবে। দুপুর ১টা থেকে ৫টা পর্যন্ত আড্ডা ও স্মৃতিচারণ। দুপুর ও রাতে মেজবান। এছাড়া সঙ্গীতানুষ্ঠান, র‍্যাফল ড্রসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত হবে।

‘সিএমসি ডে ২০১৬’ এর আহ্বায়ক ও চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ সেলিম মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর বলেন, ‘আমাদের প্রস্তুতি প্রায় সম্পন্ন। অনেক ইতিহাস ও গৌরবের সাক্ষী এই মেডিক্যাল কলেজ। জাঁকজমকপূর্ণভাবে ৬ দশক পূর্তিতে আমরা দুই দিনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছি। এতে দেশ-বিদেশের বিভিন্ন স্থান থেকে কলেজের শিক্ষার্থীরা অংশ নেবেন। ’

অনুষ্ঠান প্রস্তুতি কমিটির যুগ্ম আহবায়ক অধ্যাপক ডা. মুজিবুল হক খান, চেয়ারম্যান অধ্যাপক প্রদীপ কুমার দত্ত, ডা মনোয়ারুল হক শামীম ও সমন্বয়কারী ডা. ফয়সাল ইকবাল চৌধুরীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজের উদ্যোগে আগামী ২০ সেপ্টেম্বর আরো চার দেশে এবং ঢাকা ও খুলনায়ও ছয় দশক পূর্তি অনুষ্ঠান হবে।

১৬ সেপ্টেম্বর সৌদি আরবের রিয়াদে অনুষ্ঠান হয়েছে। মূল অনুষ্ঠান হবে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ মাঠে। গতকাল শনিবার দুপুরেও কলেজ অডিটরিয়ামে প্রস্তুতিমূলক সভা হয়েছে।

অনুষ্ঠান প্রস্তুতি কমিটির সদস্য সচিব ও কলেজের সহকারী অধ্যাপক ডা. নূর হোসেন ভূঁ্ইয়া শাহীন জানান, এ পর্যন্ত প্রায় চার হাজার সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থী রেজিস্ট্রেশন করেছেন। অনুষ্ঠানে চার থেকে সাড়ে চার হাজার জন অংশগ্রহণ করতে পারেন। এতে প্রায় অর্ধকোটি টাকা খরচ হবে। এ টাকা অধ্যাপক ২০ হাজার, সহযোগী অধ্যাপক ১৫ হাজার, সহকারী অধ্যাপক ১০ হাজার আর রেজিস্ট্রেশন বাবদ প্রত্যেকে ৫০০ টাকা করে দিচ্ছেন। কলেজের সাবেক শিক্ষার্থীরা যাঁরা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে আছেন তাঁরাও কিছু অনুদান দিচ্ছেন। এর বাইরে কারো কাছ থেকে কোনো টাকা নেওয়া হচ্ছে না।


মন্তব্য