kalerkantho


আজ পেকুয়ার সাত ইউনিয়নে নির্বাচন

সুষ্ঠু ভোট নিয়ে বিএনপির শঙ্কা

চকরিয়া প্রতিনিধি   

৩১ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলায় সাত ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন আজ বৃহস্পতিবার। সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণ করতে প্রশাসন ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে। এদিকে সুষ্ঠু ভোট নিয়ে বিএনপি শংকা প্রকাশ করেছে। আর আওয়ামী লীগের এক ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থীকে অপহরণের অভিযোগ করেছে তাঁর পরিবার।

গত কয়েকদিন ধরে টৈটং ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী জাহেদুল ইসলাম সিকদারের কর্মী-সমর্থক এবং একই দলের ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী শহীদুল্লাহর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ, ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, গোলাগুলির ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়েছে ভোটারদের মাঝে। এমনকি মঙ্গলবার রাতে প্রচার শেষ করে বাড়ি ফেরার সময় বন্দুকধারীরা শহীদুল্লাহকে অপহরণ করে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ করেছে তাঁর পরিবার। গতকাল বিকেল পর্যন্ত তাঁর হদিস পায়নি পরিবার।

এদিকে মগনামায় আওয়ামী লীগ প্রার্থী খাইরুল এনামের মিছিলে জাতীয় পাটির প্রার্থী ইউনুছ চৌধুরীর লোকজন সশস্ত্র হামলার প্রস্তুতি নেওয়ার সময় স্ট্রাইকিং ফোর্সের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোজাম্মেল হক রাসেলের নেতৃত্বে বিজিবি অভিযান চালায়। এ সময় একটি এলজি ও ২৫ রাউন্ড গুলি এবং দুটি গাড়ি জব্দ করে।

পেকুয়া থানার ওসি জিয়া মোহাম্মদ মোস্তফিজ ভূঁইয়া বলেন, ‘চেয়ারম্যান প্রার্থী শহীদুল্লাহকে কারা অপহরণ করেছে তা নির্দিষ্ট করে বলতে পারছে না পরিবার। এর পরও তাঁকে উদ্ধারে পুলিশ সর্বাত্মক চেষ্টা চালাচ্ছে। ’

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্র জানায়, আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত একযোগে ভোটগ্রহণ হবে উপজেলার সাত ইউনিয়ন পেকুয়া সদর, রাজাখালী, টৈটং, শিলখালী, বারবাকিয়া, উজানটিয়া ও মগনামায়। এসব ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির একক প্রার্থী ছাড়াও কয়েকটি ইউনিয়নে জাতীয় পার্টিও একক প্রার্থী দিয়েছে। সব মিলিয়ে চেয়ারম্যান পদে ৩২ জনসহ সংরক্ষিত ও সাধারণ সদস্য পদে ৩৪০ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

পেকুয়া উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও পেকুয়া সদর ইউনিয়নের দলের চেয়ারম্যান প্রার্থী বাহাদুর শাহ বলেন, ‘সরকারি দলের প্রার্থী ও তাঁদের কর্মী-সমর্থকদের নানা হুমকিতে নির্বাচনী পরিবেশ অশান্ত হয়ে উঠেছে। ’

উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সদর ইউনিয়নে নির্বাচনে প্রার্থী অ্যাডভোকেট এম কামাল হোছাইন বলেন, ‘সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য সবার সহযোগিতা দরকার। ’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মারুফুর রশিদ খান জানান, কেন্দ্র দখল বা ব্যালট পেপার ও বাক্স ছিনতাইয়ের চেষ্টা হলে প্রয়োজনে গুলির নির্দেশও দেওয়া হয়েছে।


মন্তব্য