kalerkantho

শনিবার । ২১ জানুয়ারি ২০১৭ । ৮ মাঘ ১৪২৩। ২২ রবিউস সানি ১৪৩৮।


চট্টগ্রামে ভালো ব্যবস্থাপনার কাগজ এখনো হয়ে ওঠেনি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৩১ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



চট্টগ্রামে ভালো ব্যবস্থাপনার কাগজ এখনো হয়ে ওঠেনি

চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে ‘আমার জীবন আমার সাংবাদিকতা’ অনুষ্ঠানে প্রবীণ সাংবাদিক মোহাম্মদ ইউসুফ। ছবি : কালের কণ্ঠ

সাংবাদিকতায় নবীনদের বেশি বেশি করে পড়াশোনা  করার পরামর্শ দিয়েছেন প্রবীণ সাংবাদিক মোহাম্মদ ইউসুফ। বলেন, ‘সাংবাদিকতা শুধু পেশা নয়, এটি নিয়ত চর্চার কাজ। এই পেশা অনেক সময় সৃষ্টিশীলতাকে ব্যাঘাত করে। প্রতিবন্ধকতা তৈরি করে। তাই এখানে আসা নবীনরা বেশি বেশি পড়াশোনায় মনোনিবেশ না করলে পিছিয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। ’

চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব আয়োজিত ‘আমার জীবন আমার সাংবাদিকতা’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে সাংবাদিক ইউসুফ এ কথা বলেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে ওই অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি আরো বলেন, ‘সংবাদপত্র একটি সমন্বিত প্রয়াস। সংবাদমনস্কতা, কলাম, প্রচার, বিজ্ঞাপন ও ব্যবস্থাপনার সমন্বয়ে একটি ভালো সংবাদপত্র হয়। কিন্তু ভালো ব্যবস্থাপনার কাগজ চট্টগ্রামে এখনো হয়ে ওঠেনি। ’ ভালো সাংবাদিক হতে তিনি নবীনদের একাধিক ভাষা শিখতে এবং প্রচুর বই পড়ার তাগাদা দেন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘মোহাম্মদ ইউসুফের মতো সাংবাদিকরা আমাদের যে পথ দেখিয়েছেন, সেটা আমাদের ধরে রাখতে হবে। কারণ তাঁরা কঠিন সময়েও সাংবাদিকতা করে বিচ্যুত হননি। নীতি নৈতিকতায় অটল থেকেছেন। ’

অনুষ্ঠানের শুরুতে মোহাম্মদ ইউসুফের বর্ণাঢ্য জীবন নিয়ে তৈরি করা তথ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়। অনুষ্ঠান আয়োজন নিয়ে কথা বলেন প্রেস ক্লাব সভাপতি কলিম সরওয়ার। স্বাগত বক্তব্য দেন ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মহসিন চৌধুরী। তথ্যচিত্র তৈরির আদ্যোপান্ত তুলে ধরেন ক্লাবের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আলমগীর সবুজ। আরো বক্তব্য দেন বাংলা একাডেমি পুরস্কারপ্রাপ্ত সাংবাদিক আবুল মোমেন, প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি ও রূপালী ব্যাংকের পরিচালক আবু সুফিয়ান, এম নাসিরুল হক, হেলাল উদ্দিন চৌধুরী, রাশেদ রউফ, এজাজ ইউসুফী, তমাল চৌধুরী, মুস্তফা নঈম, মোহাম্মদ ইউসুফের স্ত্রী খুরশীদা বেগম এবং তাঁর মেয়েজামাই সাংবাদিক নজরুল কবীর। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ক্ল্লাবের যুগ্ম সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ।

আবুল মোমেন বলেন, ‘সংবাদপত্র এক যুগ পার হয়ে অন্য যুগে। যে যুগ শেষ হতে চলেছে তার অন্যতম কাণ্ডারি মোহাম্মদ ইউসুফ। ’

আবু সুফিয়ান বলেন, ‘মোহাম্মদ ইউসুফ দেশের বিভিন্ন কাগজে কাজ করে অনেক অভিজ্ঞতা অর্জন করেছেন। সেই অভিজ্ঞতা কাজে লাগানোর সুযোগ রয়েছে নবীন সাংবাদিকদের। ’ 

জানা যায়, ১৯৬০ সালে চট্টগ্রামের দৈনিক আজাদীতে সাংবাদিকতা শুরু করেন মোহাম্মদ ইউসুফ। শারীরিক অসুস্থতায় গত এক দশকেরও বেশি সময় অবসর জীবনযাপন করছেন তিনি। উচ্চ মাধ্যমিকের ছাত্র থাকা অবস্থায় তাঁর সাংবাদিকতা শুরু। এরপর তিনি দৈনিক জমানা, আজাদ ও ইনসাফ, রাজশাহী বেতার, দৈনিক সংবাদ ও দৈনিক দেশ হয়ে আবার আজাদীতে কাজ করেন।

তথ্যচিত্রে সাংবাদিক ইউসুফকে নিয়ে কথা বলেন তাঁর সহকর্মী বিশিষ্ট সাংবাদিক আবদুল গাফফার চৌধুরী, সাংবাদিক কামাল লোহানী, সাংবাদিক-অনুবাদক সিদ্দিক আহমেদ ও মুক্তিযোদ্ধা-সাংবাদিক নাসিরুদ্দিন চৌধুরী। তথ্যচিত্রটি নির্মাণ করেন দেশ টিভির চট্টগ্রাম ব্যুরোপ্রধান আলমগীর সবুজ। পরে মোহাম্মদ ইউসুফের প্রিয় কিছু গান পরিবেশন করেন শিল্পী দিনাত জাহান পারুল।


মন্তব্য