kalerkantho

26th march banner

কক্সবাজারের ১৭ ও নোয়াখালীর ১৫ ইউনিয়নে ভোট আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজার ও নোয়াখালী প্রতিনিধি   

২২ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



কক্সবাজারের ১৭ ও নোয়াখালীর ১৫ ইউনিয়নে ভোট আজ

কক্সবাজার জেলার তিন উপজেলার ১৭টি এবং নোয়াখালীর দুই উপজেলার ১৫ ইউনিয়ন পরিষদে নির্বাচন আজ মঙ্গলবার। সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ ভোটগ্রহণে সার্বিক প্রস্তুতি নিয়েছে প্রশাসন। জোরদার করা হয়েছে সার্বিক নিরাপত্তা।

কক্সবাজার : ১৭ ইউনিয়নে ভোটার ৩ লাখ ৭৯ হাজার ২৭৭ জন। মোট ভোটকেন্দ্র ১৮৩ এবং বুথের সংখ্যা ৯৪৪।

কক্সবাজার জেলা পুলিশ সুপার শ্যামল কুমার নাথ বলেন, ‘তিন উপজেলার ১৭ ইউনিয়নের নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে পর্যাপ্তসংখ্যক আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থার সদস্যদের নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। যেকোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা সহ্য করা হবে না। ’

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মেছবাহ উদ্দিন গতকাল সোমবার বিকেলে বলেন, ‘ভোট গ্রহণের যাবতীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। নির্বাচনী কর্মকর্তারা ইতোমধ্যে ব্যালটসহ নির্বাচনী সামগ্রী নিয়ে উপজেলা থেকে স্ব স্ব ভোট কেন্দ্রে চলে গেছেন। ’

নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, কুতুবদিয়া উপজেলার ছয় ইউনিয়নে মোট ২৯২ প্রার্থী রয়েছেন। এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ২৯, সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ৬০ এবং সাধারণ সদস্য পদে ২০৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এসব ইউনিয়নে ভোটার ৮১ হাজার ৭৪৭ জন। ভোটকেন্দ্র রয়েছে ৫৪ টি এবং বুথের সংখ্যা ১৮৮।

মহেশখালী উপজেলার সাত ইউনিয়নে ৪৯৮ জন প্রার্থী রয়েছেন। চেয়ারম্যান পদে ৩৬ জন, সংরক্ষিত মহিলা পদে ৮৮ ও সাধারণ সদস্য পদে ৩৭৪ প্রার্থী নির্বাচনে লড়ছেন। ভোটার রয়েছেন ১ লাখ ৬৭ হাজার ৮৩৪। ভোটকেন্দ্র ৭৪ এবং বুথ ৩৯৪টি।

টেকনাফ উপজেলার চার ইউনিয়নে প্রার্থী রয়েছেন ২৮৯ জন। চেয়ারম্যান পদে ২৯, সংরক্ষিত মহিলা পদে ৪২ ও সাধারণ সদস্য পদে ২১৪ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন। মোট ভোটার ১ লাখ ২৯ হাজার ৬৯৬ জন এবং ভোটকেন্দ্র ৫৫ ও বুথ ৬৯৬টি। এখানকার হ্নীলা ও হোয়াইক্যং ইউনিয়নে নির্বাচন হবে ২৭ মার্চ।

নোয়াখালী : সুবর্ণচর ও হাতিয়া উপজেলার ১৫ ইউনিয়নে নির্বাচন আজ মঙ্গলবার। নির্বাচনের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে জেলা নির্বাচন অফিস।

জেলা পুলিশ সুপার মো. ইলিয়াছ শরীফ জানান, সব ভোটকেন্দ্রে এবং এর আশপাশের এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। নির্বাচনে ৯৪১ জন পুলিশ, আনসার ব্যাটালিয়ন ও সাধারণ আনসার সদস্য নিয়োজিত থাকবেন। পাশাপাশি বিজিবি ও র্রাব সদস্যরাও মাঠে থাকবেন।


মন্তব্য