kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


মহিউদ্দিন চৌধুরী বললেন

যুদ্ধাপরাধীদের দোসর আছে চট্টগ্রাম পুলিশে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১০ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



যুদ্ধাপরাধী মীর কাসেম আলীর জন্য যারা হরতাল ডেকেছে তাদের বিচার দাবি করেছেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘ওরা দেশের পবিত্র সংবিধান ও আইনের শাসনের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে।

দেশে অরাজকতা সৃষ্টির পাঁয়তারা চালাচ্ছে। ’

গতকাল বুধবার দারুল ফজল মার্কেট চত্বরে মহানগর আওয়ামী লীগের হরতাল ও নৈরাজ্যবিরোধী সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। সাবেক সিটি মেয়র মহিউদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘এখনো চট্টগ্রামে পুলিশ প্রশাসন ও সরকারের বিভিন্ন স্তরে যুদ্ধাপরাধীদের দোসর ঘাপটি মেরে আছে। এরা বিভিন্ন স্থানে গোপন বৈঠক করছে এবং দেশবিরোধী অপতত্পরতার নীলনক্সা করছে। তাদের এসব ঘৃণ্য কার্যকলাপের দালিলিক তথ্য আমাদের কাছে আছে। তাদের সাবধান করে দিচ্ছি, সংযত না হলে পরিণতি হবে ভয়াবহ। ’

মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতির প্রত্যাশা পূরণে ঐতিহাসিক ভূমিকা পালন করে যাচ্ছেন। সময় এসেছে জননেত্রী শেখ

হাসিনার নেতৃত্বে জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করা। তাই আমাদের সব নেতাকর্মীকে আওয়ামী লীগ সরকারের সাফল্যের বার্তা ঘরে ঘরে পৌছে দিতে হবে। ’

মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিক আদনানের সঞ্চালনায় সমাবেশে আরো বক্তব্য দেন সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট সুনীল কুমার সরকার, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক শফিকুল ইসলাম ফারুক, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, বন ও পরিবেশ সম্পাদক মশিউর রহমান চৌধুরী. উপ-দপ্তর সম্পাদক কাউন্সিলর জহরলাল হাজারী, গৌরাঙ্গ চন্দ্র ঘোষ, হাজী নুরুল আমিন শান্তি, অমল মিত্র, বখতিয়ার উদ্দিন খান, ইঞ্জিনিয়ার বিজয় কিষাণ চৌধুরী, হাজী বেলাল আহমেদ, কোতোয়ালী থানা আওয়ামী লীগ সভাপতি শের মোহাম্মদ ও সাধারণ সম্পাদক কাউন্সিলর সলিম উল্লাহ বাচ্চু, আবদুর রহমান, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মো. সালাহউদ্দিন আহমেদ, মোহাম্মদ হাসান মনসুর, মো. হেলাল উদ্দিন, আবু সাঈদ জন ও শেখ নাছির আহমেদ।


মন্তব্য