প্যানেল মেয়র নিয়ে কাউন্সিলররা-333432 | দ্বিতীয় রাজধানী | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১৪ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৬ জিলহজ ১৪৩৭


সাতকানিয়া পৌরসভা

প্যানেল মেয়র নিয়ে কাউন্সিলররা দ্বিধাবিভক্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৮ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



সাতকানিয়া পৌরসভার প্যানেল মেয়র নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কাউন্সিলররা বিভক্ত হয়ে পড়েছেন। গত রবিবার পৌর কার্যালয়ে সভা চলাকালে মেয়র মোহাম্মদ জোবায়ের দুপক্ষের সমর্থকদের বাধার মুখে পড়েন।

সাতকানিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. ফরিদ উদ্দিন খন্দকার বলেন, ‘পৌরসভার প্যানেল মেয়র নির্বাচন নিয়ে কাউন্সিলর মোহাম্মদ মোরশেদ এবং এনাম পক্ষের লোকজন পৌর কার্যালয়ের সামনে জড়ো হন। দুপক্ষ তাঁদের সমর্থিত কাউন্সিলরকে প্যানেল মেয়র করার জন্য মেয়রসহ পরিষদের প্রতি অনুরোধ জানান। পরে মেয়র ওই সভার আলোচ্যসূচি থেকে বিষয়টি বাদ দিয়ে সভা শেষ করেন। তবে অপ্রীতিকর কোনো ঘটনা ঘটেনি।’

মেয়র মোহাম্মদ জোবায়ের বলেন, ‘কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকেরা পৌর কার্যালয়ে এসে তাঁদের কথা জানিয়েছেন। তাই প্যানেল মেয়র নির্বাচনের এজেন্ডা স্থগিত রেখে বাকি বিষয়ে আলোচনা করে সভা শেষ করেছি। পরবর্তীতে আলাপ আলোচনার মাধ্যমে ওই বিষয়টিও নিষ্পত্তি করা হবে।’

কাউন্সিলর মোহাম্মদ মোরশেদ বলেন, ‘আমি দুবার ভোটে এবং এবার বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত কাউন্সিলর। তাই আমি প্যানেল মেয়র হওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করি। কিন্তু ইতোমধ্যে জানতে পারি, অন্য একজন কাউন্সিলরকে প্যানেল মেয়র করার জন্য সাতকানিয়া পৌরসভার কাউন্সিলরদের কয়েকজনকে চট্টগ্রাম নগরীতে নিয়ে গিয়ে ভয়ভীতি দেখানো হয়েছে। রবিবারের সভা চলাকালে কাউন্সিলর এনামের পক্ষের লোকজনকে পরিষদের আশপাশে দেখা যায়। ওই খবর পেয়ে আমার ওয়ার্ডের লোকজন পৌর কার্যালয়ে গিয়ে তাঁদের কথা মেয়রকে জানিয়েছেন।’

কাউন্সিলর এনাম বলেন, ‘কাউন্সিলর মোরশেদ চেয়েছিলেন বিনা নির্বাচনে প্যানেল মেয়র হতে। আর আমরা বলেছি, আইন অনুযায়ী কাউন্সিলরদের ভোটে প্যানেল মেয়র নির্বাচিত করতে হবে। মেয়রকে এসব কথা বলার পর তিনি ওই এজেন্ডা স্থগিত রেখে সভা শেষ করেছেন।’

মন্তব্য