kalerkantho


পাকিস্তানকে আর পানি দেবে না ভারত

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৭:৫১



পাকিস্তানকে আর পানি দেবে না ভারত

জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় নিরাপত্তা বাহিনীর ওপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় পাকিস্তানকে জবাব দিতে এরইমধ্যে ব্যাপক পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে নয়াদিল্লি। ২১ ফেব্রুয়ারি, বৃহস্পতিবার ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং এ হুঁশিয়ারি দেন।

আর দেশটির কেন্দ্রীয় পরিবহন ও পানিসম্পদমন্ত্রী নীতিন গড়কড়ি বলেন, পাকিস্তানে বহমান পূর্বাঞ্চলীয় নদীগুলোর গতিমুখ কাশ্মীর ও পাঞ্জাবের দিকে ঘুরিয়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত।

এই ঘোষণার পর পাকিস্তান বলেছে, ভারত যদি পূর্বাঞ্চলের বিয়াস, সুতলেজ এবং রাভি নদীর পানি পাকিস্তানকে না দেয় তাতে তারা একটুও চিন্তিত নয়। কেননা সিন্ধু পানি চুক্তি অনুযায়ী ভারত তা করতেই পারে।  কিন্তু ভারত যদি পশ্চিমাঞ্চলীয় নদী চেনাব, সিন্ধু এবং ঝিলম নদীর পানিপ্রবাহে বাধা সৃষ্টি করে তাহলে আমরা অবশ্যই প্রতিবাদ জানাবো। কেননা ওই নদীগুলোর পানি ব্যবহারের পূর্ণ অধিকার রয়েছে আমাদের।

পাকিস্তান কর্তৃপক্ষ আরো বলে, ১৯৬০ সালের সিন্ধু পানি চুক্তিতেই আমরা ভারতকে পূর্বাঞ্চলীয় নদীগুলোর পানি ব্যবহারে পূর্ণ অধিকার দিয়েছি। ফলে তারা যদি এখনে সেটা করতে চায় বা নাও চায় তাতে আমাদের কোনো সমস্যা নেই।

এদিকে, ইসলামাবাদে হামলা হলে ভারতের বিরুদ্ধে পাল্টা ব্যবস্থা নিতে পাকিস্তান সেনাবাহিনীকে অনুমোদন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

গত সপ্তাহে কাশ্মীরের পুলওয়ামায় ভারতীয় নিরাপত্তাবাহিনীর ওপর পাকিস্তান ভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠী জইশ-ই-মোহাম্মদের হামলার পর থেকে ক্রমেই অবনতি ঘটছে দিল্লি-ইসলামাবাদ সম্পর্কের। সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদকে মদদ দেয়ায় পাকিস্তানের বিরুদ্ধে একের পর এক ব্যবস্থা গ্রহণ করছে ভারত।

ভারতের কেন্দ্রীয় পরিবহন ও পানিসম্পদমন্ত্রী নীতিন গড়কড়ি জানান, পাকিস্তানের দিকে প্রবাহিত নিজেদের অংশের নদীর পানি সরবরাহ বন্ধ করে দেবেন তারা। পূর্বাঞ্চলীয় নদীগুলোর পানি পাকিস্তানের বদলে কাশ্মীর ও পাঞ্জাবের মানুষের জন্য সরবরাহ করার কথা জানান তিনি।

নীতিন গড়কড়ি বলেন, ‘বিশ্ব ব্যাংকের মধ্যস্থতায় ১৯৬০ সালের ভারত পাকিস্তানের সিন্ধু পানি চুক্তি অনুযায়ী, তিনটি নদী আমাদের ও অপর তিনটি নদী পাকিস্তানকে দেয়া হয়। আমাদের নদীর পানি পাকিস্তানের দিকেও বহমান। ঐ তিনটি নদীর গতিমুখ ঘুরিয়ে দিতে প্রকল্প বাস্তবায়নের সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা। একইসঙ্গে সব নদীর পানি আমরা যমুনা নদীতে ফিরিয়ে আনব।’

শুধু নদীর গতিপথ পরিবর্তনই নয়, পুলওয়ামা হামলার জেরে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে আরো কঠোর ও বড় ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণের পরিকল্পনা করছে ভারত। বৃহস্পতিবার, সে আভাসই দেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং। দিল্লিতে এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ভারতীয় নিরাপত্তাবাহিনীর ওপর হামলার পর পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে জনগণের পক্ষ থেকে যে দাবি দাওয়া আসছে তা যথাসময়ে কড়ায় গণ্ডায় দেশটিকে বুঝিয়ে দেয়া হবে।

তবে ভারত যদি পাকিস্তানের ওপর কোনো ধরনের হামলা করে সেক্ষেত্রে তার সমুচিত জবাব দেয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন পাকিস্তানি প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। পাকিস্তানে হামলা হলে ভারতকে পাল্টা জবাব দিতে বৃহস্পতিবার দেশটির প্রতিরক্ষা বাহিনীকে সামরিক ব্যবস্থা নেয়ার অনুমোদন দেন তিনি।

বার্তা সংস্থা এপি জানায়, ভারতের যে কোনো ধরনের আক্রমণ প্রতিরোধে দেশটির বিরুদ্ধে তৎক্ষণাৎ কঠোর ব্যবস্থা নিতে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীকে অনুমতি দিয়েছেন ইমরান খান। নিরাপত্তা কমিটির সঙ্গে বৈঠক শেষে সেনাবাহিনীকে হামলার অনুমোদনের পাশাপাশি আবারো পুলওয়ামা হামলার ঘটনায় পাকিস্তানের সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ নাকচ করে দেন তিনি।

এরমধ্যেই চীন ও পাকিস্তানের তীব্র বিরোধিতা সত্ত্বেও বৃহস্পতিবার কাশ্মীরের পুলওয়ামার ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে একটি প্রস্তাব পাস করে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ। জঙ্গিগোষ্ঠী জইশ-ই-মোহাম্মদের জঘন্য হামলার নিন্দার পাশাপাশি সংকট সমাধানে ভারতকে সহযোগিতা করতে সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলোকেও আহ্বান জানানো হয়।



মন্তব্য