kalerkantho


ইরানকে ধ্বংস করার পাল্টা হুমকি ইসরায়েলের

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ২০:০৯



ইরানকে ধ্বংস করার পাল্টা হুমকি ইসরায়েলের

ইসরায়েল ও মার্কিন আগ্রাসন থেকে সতর্ক থাকতে ইরানি প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি যে আহ্বান জানিয়েছেন তার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে দেশটিকে পাল্টা হুঁশিয়ারি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরায়েল।

 ইরানের ইসলামি বিপ্লবের ৪০তম বার্ষিকীতে ১১ ফেব্রুয়ারি, সোমবার এক টুইট বার্তায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরানকে ব্যর্থ রাষ্ট্র হিসেবে উল্লেখ করেন। তেহরানের শাসক গোষ্ঠীর পরিবর্তন প্রয়োজন উল্লেখ করে এজন্য ইরানিদের সমর্থন দেয়ার অঙ্গীকার করেন মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন।

ইসরায়েলি প্রেসিডেন্ট বিন ইয়ামিন নেতানিয়াহু বলেন, তেল আবিবের ওপর হামলা চালানো হলে ৪০তম ইসলামি বিপ্লব বার্ষিকীর অনুষ্ঠানই হবে দেশটির শেষ আয়োজন।

ইরানি প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি বলেন, ‘ইহুদি ও মার্কিন সন্ত্রাসীদের শত চাপ আর নিষেধাজ্ঞার মধ্যেও আমরা ইসলামি বিপ্লবের ৪০তম বার্ষিকী উদযাপন করছি। ইরানি জনগণের আজকের উপস্থিতিই বলে দেয় পশ্চিমাদের সকল ষড়যন্ত্র ব্যর্থ হয়েছে। আমাদের যে কোনো ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার বা ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচির জন্য আমাদের কারো কাছ থেকে অনুমতি নেয়ার প্রয়োজন নেই।’

ইরানের ইসলামী বিপ্লবের ৪০তম বার্ষিকীতে আজাদি স্কয়ারে আয়োজিত সমাবেশে ১১ ফেব্রুয়ারি, সোমবার ইসরায়েলি ও মার্কিন আগ্রাসন থেকে সতর্ক থাকতে তেহরানবাসীর প্রতি আহ্বান জানান প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। নিজেদের নিরাপত্তায় অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা নির্মাণের পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরায়েলের ইরানবিরোধী ষড়যন্ত্র মোকাবিলার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তিনি।

তবে ইরানের ইসলামি বিপ্লবের ৪০ বছরে দেশটিকে ব্যর্থ রাষ্ট্র হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সোমবার এক টুইট বার্তায় তিনি বলেন, গত চল্লিশ বছরে দুর্নীতি, আগ্রাসন আর সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড পরিচালনা করেছে ইরান। এজন্য দেশটির শাসকগোষ্ঠীকে দায়ী করে ইরানের জনগণ আরো সুন্দর ও উজ্জ্বল ভবিষ্যতের উপযুক্ত বলেও মন্তব্য করেন তিনি। মার্কিন নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন বলেন, ইরানের শাসক গোষ্ঠীর পরিবর্তনের জন্য ইরানি জনগণকেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন বলেন, ‘চল্লিশ বছরে ইরান ব্যর্থ হয়েছে। দেশটির জনগণকে নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছে তারা। তেহরানের শাসকরা মানুষের অধিকার ছিনিয়ে নিয়েছে। ইরানকে সঠিক পথে পরিচালনা করতে হলে তাদের জনগণকেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে। আর এ জন্য যুক্তরাষ্ট্র সব সময় ইরানি জনগণের পাশে থাকবে। তাদের দাবিগুলো যেন ঠিক মত শোনা যায় সে ব্যবস্থাও করব আমরা।’

প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি ও ইরানি রেভ্যুলেশনারি গার্ডের কমান্ডার ইয়াদোল্লাহ জাভানির হুঁশিয়ারির প্রতিক্রিয়ায় ইরানকে গুঁড়িয়ে দেয়ার পাল্টা হুমকি দিয়েছেন ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী।

ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বিন ইয়ামিন নেতানিয়াহু বলেন, ‘ইরানের হুমকিকে আমি ভয় করিনা আবার আমরা তা উড়িয়েও দিতে চাইনা। তেল আবিব বা হাইফাকে ধ্বংস করার চেষ্টা করলে ইতিহাসের সবচেয়ে বড় ভুল করবে ইরান। আমাদের ওপর আক্রমণ করা হলে ইসলামি বিপ্লব বার্ষিকীর এটিই তাদের শেষ আয়োজন হবে।’

যে কোনো মূল্যে ইরানের অপতৎপরতা রুখে দেয়ারও অঙ্গীকার করেন বিন ইয়ামিন নেতানিয়াহু।



মন্তব্য