kalerkantho


কলকাতায় অটোতে ধর্ষণচেষ্টা, অভিযুক্ত চালক গ্রেপ্তার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ নভেম্বর, ২০১৮ ২০:৫৪



কলকাতায় অটোতে ধর্ষণচেষ্টা, অভিযুক্ত চালক গ্রেপ্তার

কলকাতার নিউটাউনের রাস্তায় অটোর মধ্যে এক নারী যাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে চালকের বিরুদ্ধে। পথ চলতি দুই বাইক আরোহীর তৎপরতায় ওই তরুণী রক্ষা পেয়েছেন।

মঙ্গলবার গভীর রাতে নিউটাউন থানা পুলিশ একজনের ফোন পেয়ে পৌঁছায় ইডেন কোর্ট সংলগ্ন এলাকায়। সেখানে পুলিশ কর্মীরা দেখেন, এক তরুণী বিধ্বস্ত অবস্থায় বসে আছেন। পাশে দুই যুবক অন্য এক ব্যক্তিকে আটকে রেখেছেন।

ওই দুই যুবকের মধ্যে একজন ফোন করেছিলেন পুলিশকে। তিনি এবং তার সঙ্গী পুলিশকে জানান, তারা বাইক নিয়ে যাচ্ছিলেন। সেই সময় রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা একটি অটো থেকে গোঙানির শব্দ কানে আসে। তারা বাইক দাঁড় করিয়ে দেখেন, অটোর মধ্যে এক তরুণীর গলা চেপে ধরে তাকে চুপ করানোর চেষ্টা করছেন এক ব্যক্তি। দুই বাইক আরোহী ওই যুবককে ধরে ফেলে থানায় খবর দেন।

পুলিশ ওই নারী এবং আটক যুবককে থানায় নিয়ে যায়। পুলিশ বলছে, ওই নারী রাজস্থানের জয়পুরের বাসিন্দা। এখানে কেষ্টপুর এলাকায় ভাড়া থাকেন। তিনি আয়ার কাজ করেন। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টা নাগাদ বিধাননগর স্টেশন থেকে বাড়ি যাওয়ার জন্য একটি অটোতে ওঠেন।

ওই নারী যে অটোতে উঠেছিলেন সেই অটোটি সল্টলেক উল্টোডাঙা রুটের। তবে অটোচালক বলেছিলেন, তিনি ভিআইপি রোড দিয়েই যাবেন এবং তাকে কেষ্টপুরে নামিয়ে দেবেন।

পুলিশকে ওই তরুণী জানিয়েছেন, অটোটি বিধাননগর স্টেশন এলাকা থেকে বেরিয়ে ভিআইপি রোড ধরার বদলে সল্টলেকের রাস্তা ধরে। অটো চালককে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, কেষ্টপুরেই নিয়ে যাবেন, তবে সল্টলেক ঘুরে।

ওই নারী অটোচালককে বলেন, ২০৬ বাসস্ট্যান্ডের কাছে নামিয়ে দিতে। তাহলে তিনি খাল পেরিয়ে চলে যাবেন। কারণ খালের অন্য পাড়েই কেষ্টপুর।

ওই নারী পুলিশকে জানান, অটোটি ২০৬ বাসস্ট্যান্ড ছাড়িয়ে এগিয়ে গেলে তিনি প্রতিবাদ করেন। তখন অটোচালক আবারো আশ্বস্ত করেন যে তিনি নিউটাউন ঘুরে কেষ্টপুরে পৌঁছে দেবেন। কিন্তু নিউটাউনে ঢুকেই কেষ্টপুরের বদলে অটোটি ইডেন কোর্টের দিকে ঘুরে যায়। অটোচালককে বাধা দিতে থাকেন ওই নারী।

তার অভিযোগ, এর পরই ইডেন কোর্টের কাছে একটি ফাঁকা জায়গায় অটোটি দাঁড় করিয়ে অটোচালক তার ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েন। তিনি বাধা দিলে তার গলা চেপে ধরেন অটোচালক।

ওই নারীর অভিযোগের ভিত্তিতে বিধাননগর মহিলা থানায় এফআইআর করেছে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে অটোচালককে। খতিয়ে দেখা হচ্ছে তার বক্তব্য।



মন্তব্য