kalerkantho


নারীদের ছবি বিকৃত করে ফেসবুকে পোস্ট, মাথা ন্যাড়া করে যুবককে মারধর

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ নভেম্বর, ২০১৮ ২০:০০



নারীদের ছবি বিকৃত করে ফেসবুকে পোস্ট, মাথা ন্যাড়া করে যুবককে মারধর

মুখে কালি মাখিয়ে, মাথা ন্যাড়া করে গোটা গ্রাম ঘোরানো হয়েছে ওয়াকিল নামের এক যুবককে। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশের আলিগড় জেলার শাহারাখুর্দ গ্রামে।

ওই যুবকের বিরুদ্ধে অভিযোগ, সোশ্যাল মিডিয়ায় নারীদের ছবি বিকৃত করে পোস্ট করতেন তিনি। যদিও ওই যুবক আদৌ এমন অপরাধ করেছেন কি না, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছেন গ্রামবাসীদের একাংশ।

পুলিশ জানিয়েছে, গত ৫ নভেম্বর ওয়াকিলের উপর চড়াও হয়ে মারধর করার পর তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেন কয়েকজন। পুলিশের কাছে তারা অভিযোগ করেন, ওই যুবক সোশ্যাল মিডিয়ায় নারীদের ছবি বিকৃত করে পোস্ট করতেন। ওই সব ছবিতে কখনো কখনো নিজের ছবিও জুড়ে দিতেন ওয়াকিল। শুধু তাই নয়, নিজের গ্রামের নারীদের তিনি হেনস্থা করতেন বলেও অভিযোগ করা হয় পুলিশে। ওই সব অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ গ্রেপ্তার করে ওই যুবককে।

যদিও ওয়াকিলের পরিবারের লোকজন আলিগড়ের জেলাশাসকের কাছে অভিযোগ জানান, ওই যুবকের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ আনা হয়েছে। শুধু তাই নয়, গ্রামবাসীদের একাংশ তাদের ছেলেকে বেধড়ক মারধর করেছে বলেও অভিযোগ করেন তারা। জেলাশাসক চন্দ্রভূষণ সিংহ বলেন, একটা ভিডিও আমি পেয়েছি যেখানে দেখা যাচ্ছে, এক যুবককে বেধড়ক মারধর করা হচ্ছে। তার মাথাও ন্যাড়া করে দেওয়া হয়েছে। পুলিশকে আমি ভিডিওটি পাঠিয়েও দিয়েছি।

স্থানীয় সমাজকর্মী ইফ্রাহিম হুসেন বলেন, ওয়াকিলকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায় বেশ কয়েকজন সমাজবিরোধী। তাকে বেধড়ক মারধর করা হয়। তার পর তাকে নিয়ে গোটা গ্রাম ঘুরে বেড়ান স্থানীয়রা। এমনকি একটা খালের কাছে নিয়ে গিয়ে ওয়াকিলকে প্রাণে মেরে ফেলারও চেষ্টা করা হয়।

হুসেন আরো বলেন, পথচলতি কিছু মানুষের সাহায্যে শেষাবধি বেঁচে যায় ওয়াকিল। তবে পুলিশ ওই সমাজবিরোধীদের পাকড়াও করার পরিবর্তে ওয়াকিলকেই গ্রেপ্তার করে বসে।

ওয়াকিলের যে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক করা হয়েছে সে কথাও বলেন ইব্রাহিম হুসেন। তিনি আরো বলেন, সত্যি কী ঘটেছে? পুলিশ তা যাচাই না করেই ওয়াকিলকে গ্রেপ্তার করল কেন? এর সুবিচার প্রয়োজন।



মন্তব্য