kalerkantho


#মিটুর পর এবার নতুন আন্দোলন শুরু করেছেন নারীরা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ নভেম্বর, ২০১৮ ১৯:৩৩



#মিটুর পর এবার নতুন আন্দোলন শুরু করেছেন নারীরা

#দিসইসনটকনসেন্ট। এই হ্যাশট্যাগের সঙ্গে অন্তর্বাসের ছবি। বিশ্বজুড়ে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে এই লেখাই পোস্ট করছেন নারীরা। #মিটু আন্দোলনের পর যা নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে। নারীদের উপর নির্যাতনের প্রতিবাদেই এই আন্দোলন।

কিন্তু, কীভাবে শুরু হলো এই আন্দোলন? কার পাশে দাঁড়াতে গিয়ে লড়াইয়ের অস্ত্র হিসেবে অন্তর্বাসকেই বেছে নিলেন নারীরা? সেটা জানতে গত কয়েকদিনে আয়ারল্যান্ডে চলতে থাকা ঘটনাবলীর দিকে নজর দিতে হবে।

গত ৬ নভেম্বর ধর্ষণে অভিযুক্ত ২৭ বছর বয়সী এক যুবককে নিরপরাধ বলে মুক্তি দেয় আয়ারল্যান্ডের এক আদালত। তার বিরুদ্ধে ১৭ বছর বয়সী এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ ছিল।

শুনানি চলাকালীন, অভিযুক্তের আইনজীবী ওই কিশোরীর অন্তর্বাস বিচারকদের দেখিয়ে বলেন, এই অন্তর্বাস পরে আমার মক্কেলকে প্রলুব্ধ করেছিলেন ওই নারী। এটা দেখেই বোঝা যাচ্ছে, আকৃষ্ট করার যথেষ্ট সম্ভাবনা এই অন্তর্বাসের আছে। এ ধরনের অন্তর্বাস কেউ পরলে বাকিদের কাছে এই বার্তাই পৌঁছায় যে, তার মিলনের ইচ্ছা রয়েছে। আপনারা এটা দেখে নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন, ওই নারী এত ছোট অন্তর্বাস কেন পরতেন।

তার এ ধরনের বক্তব্য শোনার পর আটজন পুরুষ এবং চার জন নারী সদস্যের জুরি বোর্ড ধর্ষণের অভিযোগ থেকে রেহাই দেয় ওই যুবককে। আর একই সঙ্গে শুরু হয় ‘#দিস ইস নট কনসেন্ট’ আন্দোলন। ছোট অন্তর্বাস পরা মানেই যে মিলনে সম্মতি দেওয়া নয়, এই আন্দোলনের মূল কথা এটিই। প্রথমে আয়ারল্যান্ড, তার পর সেই আন্দোলন এখন ছড়িয়ে পড়েছে সারা পৃথিবীতেই।

অবশ্য শুধু সোশ্যাল মিডিয়া নয়, নির্যাতিত নারীর পাশে দাঁড়িয়েছেন আয়ারল্যান্ডের রাজনীতিবিদরাও। আয়ারল্যান্ডের পার্লামেন্টেও পৌঁছে গেছে এই আন্দোলনের ঝড়। অন্তর্বাস দেখিয়ে পার্লামেন্টে প্রতিবাদ দেখিয়েছেন আইনসভার সদস্য রুথ কপিঙ্গার।

তার প্রতিবাদ দেখানোর সময়, বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল পার্লামেন্টের টিভি ক্যামেরা। এটা জানার পর কপিঙ্গারের মন্তব্য, আদালতে অভিযুক্তরা অন্তর্বাস দেখিয়ে ছাড় পেয়ে যায়, অথচ পার্লামেন্টে তা দেখানো যায় না।

তা নিয়ে রাস্তায় নেমেও প্রতিবাদ সংগঠিত করছেন তিনি। এখন এই প্রতিবাদে শুধু আয়ারল্যান্ড নয়, সামিল হচ্ছেন দুনিয়ার অনেকেই। সোশ্যাল মিডিয়াকেই তারা বেছে নিচ্ছেন প্রতিবাদের মাধ্যম হিসেবে।



মন্তব্য