kalerkantho


গোপনে ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছে উত্তর কোরিয়া

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ নভেম্বর, ২০১৮ ১৮:০২



গোপনে ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছে উত্তর কোরিয়া

উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে গোপনে ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার অভিযোগ তুলেছে একদল মার্কিন গবেষক। যুক্তরাষ্ট্রের গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর স্ট্র্যাটেজিকস অ্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল স্টাডিজ-এর এক প্রতিবেদনে বলা হয়, দুর্গম পাহাড়ি এলাকায় গোপনে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি অব্যাহত রেখেছে উত্তর কোরিয়া। স্যাটেলাইট থেকে ধারণকৃত ছবি বিশ্লেষণ ও বিভিন্ন তথ্য-উপাত্তের মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে।

স্যাটেলাইট থেকে ধারণ করা এ ছবি উত্তর কোরিয়ার গোপন ক্ষেপণাস্ত্র তৈরির কারখানা দাবি করে সোমবার এক প্রতিবেদন প্রকাশ করে মার্কিন গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর স্ট্র্যাটেজিক অ্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল স্টাডিজ-সি.এস.আই.এস। চলতি বছরের জুন মাস থেকে সিঙ্গাপুরে অনুষ্ঠিত ঐতিহাসিক ট্রাম্প-কিম বৈঠককে কেন্দ্রে করে ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা থেকে শুরু করে সব ধরনের পরমাণু কর্মসূচি বন্ধ রেখেছে উত্তর কোরিয়া। পরে সাংবাদিক ও আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষকদের উপস্থিতিতে নিজেদের পরমাণু কেন্দ্র ধ্বংস করে দেয় উত্তর কোরিয়া। 

ওয়াশিংটন-ভিত্তিক গবেষণা প্রতিষ্ঠানটি বলছে, জনশূন্য দুর্গম পাহাড়ি এলাকার ভূগর্ভে অন্তত ১৩টি ক্ষেপণাস্ত্র কেন্দ্র চালু রেখেছে কিম প্রশাসন। এছাড়া পিয়ংইয়ং মোট ২০টি জায়গায় অঘোষিথভাবে ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি চালু রেখেছে বলে দাবি সংস্থাটির সি.এস.আই.এস উত্তর কোরিয়া প্রকল্প প্রধান ভিক্টোর চা বলেন, ‘আমরা গবেষণার মাধ্যমে যেসব কেন্দ্রের খোঁজ পেয়েছি, সেগুলোতে ক্ষেপণাস্ত্র কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। এসব কেন্দ্রে পরমাণু অস্ত্র বহনে সক্ষম দূর ও মধ্যপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্রের পাশাপাশি তৈরি করা হচ্ছে ব্যালিস্টিক মিসাইল ও ভ্রাম্যমাণ ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ কেন্দ্র। আরো বিস্তারিত জানতে গবেষণা চালিয়ে যাবো আমরা।’

সিঙ্গাপুরের ঐতিহাসিক বৈঠকের পর উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনোল্ড ট্রাম্পের সম্পর্ক অনেকটাই উষ্ণ হয়েছিল। ১২ই জুনের ওই বৈঠকের পর দ্বিতীয় বৈঠকের কথা থাকলেও তা এখনো হয়ে উঠেনি। ওই বৈঠকের বিষয়ে মর্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও’র সঙ্গে আলোচনা করতে কিম জং উনের সহযোগী কিম ইয়ং চোলের নিউইয়র্কে সফরের কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত তা বাতিল করা হয়।

এমন পরিস্থিতির মধেই সোমবার জাপান সফর যান মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স। পরে প্রধানমন্ত্রী শিনজো অ্যাবের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। দুই নেতার বৈঠকে উত্তর কোরিয়া ইস্যুর পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্র-জাপানের মধ্যে বাণিজ্যিক সম্পর্ক আরো জোরদারের বিষয়ে আলোচনা হয় বলে জানায় সংবাদ মাধ্যম।

এদিকে, কূটনীতিক সম্পর্ক জোরদারের অংশ হিসেবে দক্ষিণ কোরিয়ায় মাশরুম পাঠানোর পর পাল্টা উপঢৌকন হিসেবে উত্তর কোরিয়ায় ২শ' টন কমলা লেবু পাঠিয়েছে সিউল।



মন্তব্য