kalerkantho


যৌন হয়রানির অভিযোগ, আকবরকে 'সজ্জন' বললেন এক সাক্ষী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ নভেম্বর, ২০১৮ ২১:৫২



যৌন হয়রানির অভিযোগ, আকবরকে 'সজ্জন' বললেন এক সাক্ষী

#মিটু-তে কিছুটা স্বস্তি পেলেন এমজে আকবর। এবার সাবেক পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর কর্মজীবন নিয়ে আদালতে সাফাই গাইলেন এক নারী সাংবাদিক।

আকবরের ওই সাবেক সহকর্মী জয়িতা বসু বলেন, এমজে আকবরকে আমি দুর্দান্ত ভালো সাংবাদিক, বিজ্ঞ লেখক এবং সজ্জন ব্যক্তি বলেই জানি। আকবর সম্পর্কে এ ধরনের অভিযোগ উদ্দেশ্য প্রণোদিত। আমি হতাশ ও মর্মাহত।

#মিটু আন্দোলনের জোয়ারে আকবরের বিরুদ্ধে প্রথম মুখ খোলেন তার এক সময়ের সহকর্মী সাংবাদিক প্রিয়া রামানি। পর পর কয়েকটি টুইটে তিনি নিজের অভিজ্ঞতার কথা শেয়ার করেন। তার পর থেকেই একাধিক নারী আকবরের বিরুদ্ধে সরব হন। ফলে শেষ পর্যন্ত পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর পদ থেকে ইস্তফা দিতে হয়েছে আকবরকে।

প্রিয়া রামানির অভিযোগের ভিত্তিতেই পাল্টা মানহানির মামলা করেন আকবর। সেই মামলায় মোট ছয় জন সাক্ষীর নাম উল্লেখ করেন তিনি।

তার মধ্যেই একজন এই জয়িতা বসু। বর্তমানে তিনি দ্য সানডে গার্ডিয়ানের সম্পাদক। সোমবার দিল্লির আদালতে তিনি বলেন, আকবরের বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ, তাতে তার অর্জিত সম্মানের অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে। প্রিয়া রামানির সব টুইট পড়ার পর আমার মনে হয়েছে, আকবরের এই সম্মানহানি করার জন্যই টুইটগুলো করা হয়েছে।

জয়িতা বসু আরো বলেন, আমি ১৯৯৮ সাল থেকে এমজে আকবরকে চিনি। এখনো তার সম্পর্কে খারাপ কোনো কিছু শুনিনি। এক সময় তার সহকর্মী ছিলাম বলে প্রিয়া রামানির টুইট প্রকাশ্যে আসার পরই আমার বন্ধুবান্ধবরা বহু বার প্রশ্ন করেছেন, সত্যিই কি উনি এ রকম ছিলেন। ওই বন্ধুরা বলেছেন, ওই টুইটগুলো পড়ার পর আকবরের সম্পর্কে তাদের ধারণা বদলে গেছে। তারা এও বলেছেন, আকবরের সম্মান সারা জীবনের জন্য ক্ষতি হয়েছে।

 



মন্তব্য