kalerkantho


৪৯ দিন ভেলায় ভেসে অথৈ সাগরে...

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১২:২৬



৪৯ দিন ভেলায় ভেসে অথৈ সাগরে...

আলদি নোভেল গভীর সমুদ্রে টানা ৪৯ দিন ভেসে ছিলেন এই ভেলায়: বিবিসি

আলদি নোভেল আদিলাং (১৮)। ইন্দোনেশিয়ার এই তরুণ গভীর সমুদ্রে টানা ৪৯ দিন ভেসে ছিলেন। মাছ ধরার জন্য কাঠ দিয়ে তৈরি ভেলায় ছিলেন তিনি। গত ১৪ জুলাই সমুদ্রে প্রচণ্ড ঝড় হয়। সেই ঝড়ে ভেসে যায় ভেলাটি। সম্প্রতি তাকে জীবিত উদ্ধার করা হয়।

সমুদ্রের নোনাপানি ও লাফিয়ে ওঠা মাছ খেয়ে বেঁচে ছিলেন আলদি। ইন্দোনেশিয়ায় গভীর সমুদ্র ও উপকূলীয় এলাকায় মাছ ধরার স্থানীয় একটি পদ্ধতি হল 'রমপং'। এই পদ্ধতিতে কাঠ দিয়ে একটি ভেলা তৈরির পর তার উপর কুঁড়েঘরের মতো একটি ছোট কক্ষ বানানো হয়। সেখানে একজন বা দু'জন মানুষ থাকতে পারেন।

এই ভেলায় আলো জ্বালানো হয়। সাগরে ঢেউয়ের তালে তালে ভেসে থাকা ভেলার সঙ্গে আলো দুলতে থাকে। এই রমপং পদ্ধতি হলো মাছ ধরতে আলোর ফাঁদ। 

আলদির কাজ ছিল ভেলায় আলো জ্বালানো। ইন্দোনেশিয়ার উপকূল থেকে সাগরের ১২৫ কিলোমিটার গভীরে বাঁধা ছিল ভেলাটি। এ ধরণের ভেলায় কোনো ইঞ্জিন বা বৈঠা ব্যবহার করা হয় না। অন্য নৌযান দিয়ে ভেলাটিকে গভীর সমুদ্রে নেওয়া হয়।

হঠাৎ ঝড়ে দড়ি ছিঁড়ে ভেলাটি সমুদ্রে ভেসে যায়। এরপর কয়েক হাজার কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে প্রশান্ত মহাসাগরের দ্বীপ অঞ্চল গুয়ামের কাছে গিয়ে পৌঁছে। পানামার একটি জাহাজ আদলিকে দেখতে পায় ও উদ্ধার করে। সাগরে অসহায় অবস্থায় তিনি চিৎকার করে কাঁদতেন। সাগরে তার ৪৯ দিন কেটেছে শঙ্কায়।

সূত্র: বিবিসি 



মন্তব্য