kalerkantho


পতাকা তুলেও মন খারাপ, দেশটা তার থাকবে তো?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ আগস্ট, ২০১৮ ১৯:০২



পতাকা তুলেও মন খারাপ, দেশটা তার থাকবে তো?

মন ভালো নেই হায়দার আলি খানের। মন ভালো থাকার কথাও নয়। তার পরেও, সে বুধবার স্কুলে গিয়েছিল। ভারতের স্বাধীনতা দিবস বলে কথা। স্কুলে পতাকা তোলা হবে যে! তার পর, চকোলেট। কিন্তু, মনটা একেবারেই ভালো নেই তার।

অাসামে দক্ষিণ শালমারার নসকরা নিম্ন প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চতুর্থ শ্রেণিতে পড়ে হায়দার। গত বছর স্বাধীনতা দিবসের সকালেই স্কুলে পতাকা তোলার সময় সে বন্ধু ও শিক্ষকদের সঙ্গে গলা অবধি পানিতে দাঁড়িয়ে স্যালুট করেছিল। সেই ছবি ‘ভাইরাল’ হয়েছিল দেশ জুড়ে। কিন্তু, এবার মনটা ভালো নেই হায়দারের।

সকাল ৮টা বাজতে না বাজতেই বন্ধুদের সঙ্গে স্কুলে পৌঁছে গিয়েছিল সে। সারাক্ষণ মুখটা কাঁচুমাচু করে দাঁড়িয়েছিল। স্কুল পরিদর্শক আমির হামজা এবং প্রধান শিক্ষক নৃপেন রাভা যখন পতাকা তুলছেন, নেভি ব্লু হাফ প্যান্ট আর আকাশি জামা পরা হায়দার তখন একদৃষ্টিতে সে দিকেই তাকিয়ে। পতাকা তোলা হতেই সকলের সঙ্গে বলে উঠল, 'বন্দে মাতরম’, ‘জয় হিন্দ’, ‘ভারত মাতার জয়’।

অথচ, হায়দার নিজে আপাতত ‘দেশহীন’। অাসামে নাগরিকপঞ্জির যে খসড়া তালিকা প্রকাশ হয়েছে, সেখানে হায়দারের নাম নেই। তাই মন খারাপ। অথচ চুপচাপ স্বভাবের এই ছেলেটিই সারাক্ষণ হাসিখুশি থাকে। পতাকা তোলার পর স্কুলশিক্ষক মিজানুর রহমান তাই জিজ্ঞাসা করে ফেললেন হায়দারকে, মনটা বেজার কেন তোমার? চিন্তা কীসের?

জবাবটা চটপটই এসেছিল, স্যার, নাম ওঠেনি আমার। আমার কী হবে?



মন্তব্য