kalerkantho


‘তালেবানি হিন্দুত্ব চলছে দেশে’

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৩ জুলাই, ২০১৮ ২১:২৯



‘তালেবানি হিন্দুত্ব চলছে দেশে’

ভারতে রাজস্থানের আলোয়াড়ে কথিত গোরক্ষকদের হাতে রাকবর খান নামে এক মুসলিম যুবককে পিটিয়ে হত্যা এবং রাজ্যে রাজ্যে ক্রমবর্ধমান গণপিটুনির ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ উগরে দিলেন দেশটির পশ্চিমবঙ্গ প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই ধরনের ঘটনায় যুক্তদের ‘হিন্দু তালেবান’ আখ্যা দিয়েছেন তিনি। সেইসঙ্গে সংসদে দাঁড়িয়ে শুধুমাত্র গণপিটুনির নিন্দা না করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং কেন তাঁর দলের লোকজনকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারছেন না, তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন মমতা।

সোমবার নবান্নে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে পশ্চিমবঙ্গেও গণপিটুনির ঘটনা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘কিছু উগ্র ধর্মীয় গোষ্ঠী ঘৃণা ছড়াচ্ছে। এই সকল লোকজন গণপিটুনির ঘটনায় জড়িত। এছাড়া সোস্যাল মিডিয়ায় নানা গুজব ছড়িয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করছে তারা।’

এই ধরনের ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে ঘোষণা করেছেন তিনি। ভারতে বিভাজনের রাজনীতিতে জড়িতদের ‘হিন্দু তালেবান’ আখ্যা দেন মমতা। 

সংসদে দাঁড়িয়ে গণপিটুনির ঘটনার নিন্দা করতে দেখা গিয়েছে ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংকে। কিন্তু এ ধরনের ঘটনা রুখতে কেন্দ্র আদৌ আন্তরিক কি-না, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন তৃণমূলনেত্রী। 

তাঁর অভিযোগ, সমাজে ঘৃণা ছড়ানোর এবং বিভাজনের রাজনীতির সঙ্গে রাজনাথের দলের (BJP) সমস্ত স্তরের লোকজন জড়িত। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কেন তাঁদের দলের লোকজনকে নিয়ন্ত্রণ করছেন না। বিজেপি-র ঘৃণার রাজনীতির কারণেই দেশজুড়ে এমন ঘটনা ঘটছে।



মন্তব্য