kalerkantho


রাক্কায় তিন গণকবরে সহস্রাধিক মৃতদেহ, অধিকাংশই নারী ও শিশু

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ জুলাই, ২০১৮ ১০:০৭



রাক্কায় তিন গণকবরে সহস্রাধিক মৃতদেহ, অধিকাংশই নারী ও শিশু

ছবি অনলাইন

সিরিয়ার রাক্কা শহরটি বেশ কিছুদিন ভয়ঙ্করতম সন্ত্রাসী গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) নিয়ন্ত্রণাধীন ছিল। আইএস বিতারণের পর শহরটি আনাচে-কানাচে এখনো গণকবরের সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে। সে শহরে এবার তিনটি বড় গণকবরের সন্ধান পাওয়া গেল।

রাক্কায় তিনটি গণকবরে এবার ১ হাজার ২৩৬টি মৃতদেহের সন্ধান পাওয়া গেছে। সন্ধান পাওয়া মৃতদেহগুলোর বেশির ভাগই নারী ও শিশুর।

রাক্কা পুনর্নিমাণ কমিটি এ মৃতদেহগুলো উদ্ধার করেছে। তবে এ নারী ও শিশুদের আইএস হত্যা করেছে এমন অভিযোগ নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন উদ্ধারকারীরা। তারা বলছেন আইএস বিতারণের সময় মার্কিন নেতৃত্বাধীন বাহিনীর বোমাবর্ষণ ও হামলার সময় এদের অনেকেরই মৃত্যু হয়। তবে মার্কিন নেতৃত্বাধীন বাহিনী অবশ্য তাদের অভিযানে বিপুলসংখ্যক সাধারণ মানুষ নিহত হওয়ার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে।

গত বছর মার্কিন নেতৃত্বে আইএসবিরোধী হামলার সময় রাক্কায় বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠন গণহত্যার অভিযোগ তুলে নিন্দা জানিয়েছিল। অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের এক রিপোর্টে প্রকাশ পায় মার্কিন বোমা হামলায় সে সময় চারটি পরিবারের ৯০ জন নিহত হয়েছিল। এছাড়া গত বছরের মার্চ মাসে একটি স্কুলে বিমান হামলায় ৪০ জন নিহত হয়েছিল।

রাক্কা পুনর্নিমাণ কমিটি জানিয়েছে, আইএসবিরোধী অভিযানের সময় প্রচণ্ড বোমাবর্ষণ ও হামলায় নিহত সেখানে বসবাসকারী সাধারণ মানুষের গণকবর এগুলো। সে সময় একটি স্কুলসহ বেশ কয়েকটি আবাসিক ভবনে মার্কিন নেতৃত্বাধীন বাহিনী হামলা চালায়। তখনই এদের মৃত্যু হয় বলে দাবি কমিটির।

সূত্র : ইয়ান শাফাক ও অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল



মন্তব্য